চার্লস চ্যাপলিন সিনিয়র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চার্লস চ্যাপলিন সিনিয়র
Charles Chaplin Sr.jpg
চ্যাপলিন সিনিয়র, আনু. ১৮৮৫
স্থানীয় নাম
Charles Chaplin Sr.
জন্ম
চার্লস স্পেন্সার চ্যাপলিন

(১৮৬৩-০৩-১৮)১৮ মার্চ ১৮৬৩
মেরিলবোন, লন্ডন
মৃত্যু৯ মে ১৯০১(1901-05-09) (বয়স ৩৮)
ল্যামবেথ, লন্ডন
জাতীয়তাব্রিটিশ
পেশাগায়ক
কার্যকাল১৮৮৭–১৯০০
দাম্পত্য সঙ্গীহান্নাহ চ্যাপলিন (বি. ১৮৮৫–১৯০১)
সন্তানচার্লি চ্যাপলিন
সিডনি চ্যাপলিন (সৎ পুত্র)
আত্মীয়দেখুন: চ্যাপলিন পরিবার

চার্লস স্পেন্সার চ্যাপলিন সিনিয়র (ইংরেজি: Charles Spencer Chaplin Sr.; ১৮ মার্চ, ১৮৬৩ - ৯ মে, ১৯০১) ছিলেন একজন ব্রিটিশ গীতিমঞ্চের বিনোদনদাতা। ১৮৯০ এর দশকে তিনি গায়ক হিসেবে সফলতা লাভ করেন। তিনি ছিলেন জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা ও নির্মাতা চার্লি চ্যাপলিনের পিতা।

জীবনী[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

চ্যাপলিন ১৮৬৩ সালের ১৮ মার্চ লন্ডনের মেরিলবোনে জন্মগ্রহণ করেন।[১] তার পিতা স্পেন্সার চ্যাপলিন (১৯৩৪/৫-১৮৯৭) এবং মাতা এলেন এলিজাবেথ স্মিথ (১৮৩৮-১৮৭৩)। তিনি তার পিতামাতার তৃতীয় সন্তান। তার অন্যান্য ভাইবোনেরা হলেন স্পেন্সার জুনিয়র, হেলেন, ব্লেঞ্চ, আলবার্ট ও হ্যারি।[২] চ্যাপলিনের পিতা ছিলেন একজন কসাই, ফলে তিনি শ্রমিক শ্রেণীর শিশুদের মতই বেড়ে ওঠেন।[৩] চ্যাপলিনের শৈশব সম্পর্কে খুব কম জানা যায়।[১] ১৮৭১ ও ১৮৮১ সালের যুক্তরাজ্যের আদমশুমারি থেকে জানা যায় যে তার পিতামাতা এবং পরিবার নটিং হিলের রিলিংটনে বাস করতেন। এই স্থানটি দশক পরে জন ক্রিস্টির হত্যাকাণ্ডের জন্য পরিচিতি লাভ করে।[৪]

১৮৮৫ সালে জুনে ২২ বছর বয়সে তিনি ১৯ বছর বয়সী হান্নাহ চ্যাপলিনকে বিয়ে করেন।[৫] তিন বছর পূর্বে তারা একটি গীতিনাট্যে কাজ করতে গিয়ে পরিচিত হন এবং প্রেমের সম্পর্কে জড়ান।[৬] হান্নাহর তিন মাস বয়সী একটি পুত্র সন্তান ছিল, তার নাম রাখা হয় সিডনি চ্যাপলিন। ১৮৮৯ সালে ১৬ এপ্রিল চ্যাপলিনের ঔরসজাত সন্তান চার্লি চ্যাপলিন জন্মগ্রহণ করে।[৭] ১৮৯১ সালে চ্যাপলিন ও হান্নাহ আলাদা হয়ে যান, কিন্তু তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় নি ও মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তারা বিবাহিত ছিলেন।[৮]

গীতিমঞ্চে কাজ[সম্পাদনা]

শিট মিউজিকের কভারে চ্যাপলিনের একটি জনপ্রিয় গান।

চ্যাপলিনের পরিবারের কেউ পূর্বে অভিনয় বা গানের সাথে সম্পৃক্ত ছিল না, তবু চ্যাপলিন গীতিমঞ্চ শিল্পে আকৃষ্ট হন। গীতিমঞ্চ ১৮৮০ এর দশকে সাউথ লন্ডনে খুব উন্নতি লাভ করতে শুরু করেছিল।[৯] প্রথমে তিনি অনুকরণশিল্পী হিসেবে কাজ করেন। ১৮৮৭ সালের ১০ জুন পলি ভ্যারাইটি থিয়েটারে তার অভিষেক হয়। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যে তিনি নাট্যধর্মী ও বর্ণনাধর্মী সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করেন। তিনি প্রাত্যহিক জীবনের সমস্যা নিয়ে গান গাইতেন।[১০] চ্যাপলিনের জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে এবং ১৮৯০ সালের মধ্যে তিনি নিয়মিত কাজ পেতে থাকেন।[১১] ফ্রান্সিস, ডে আন্ড হান্টার ১৮৯০ সালে তার তিনটি গান প্রকাশ করেন। গান তিনটি হল "অ্যাজ দ্য চার্চ বেলস কাইম", "এভরিডে লাইফ" ও "এহ, বয়েজ?"।[১১]

চ্যাপলিন ১৮৯০ সালে আমেরিকা সফরে যান এবং নিউ ইয়র্ক সিটির ইউনিক স্কোয়ার থিয়েটারেও যুক্ত হন।[১২] যদিও তিনি কখনোই ড্যান লেনো ও হারবার্ট ক্যাম্পবেলের সমান তারকা খ্যাতি পান নি, শিট মিউজিকের কভারে চ্যাপলিনের নাম আসে এবং ছবি ছাপা হয়, যা তাকে জনপ্রিয় করে তুলে।[১৩] তার জনপ্রিয় একটি গান ছিল "দ্য গার্ল ওয়াজ ইয়ং অ্যান্ড প্রিটি"।[১৪]

চ্যাপলিনের সমৃদ্ধির সেরা বছরগুলো ছিল ১৮৯০-১৮৯৬, কিন্তু ১৮৯৭ সালেও তিনি বিভিন্ন প্রদেশে কাজ পেতে থাকেন।[১৫] ১৮৯৮ সালেও তিনি লিস্টারের নিউ এম্পায়ার প্যালেস থিয়েটারের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়ার যোগ্য ছিলেন।[৭] এরপর থেকে তার দর্শক আকর্ষণ করার ক্ষমতা কমতে থাকে। ১৯০০ সালের সেপ্টেম্বরে ওয়ালহ্যাম গ্রিনের গ্র্যান্ডভিল থিয়েটারে তার পরিবেশনা ছিল তার শেষ কাজ।[১৬]

চার্লির সাথে সম্পর্ক[সম্পাদনা]

হান্নাহের কাছ থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার পর চ্যাপলিনের তার পুত্র চার্লির সাথে কোন সম্পর্ক ছিল না। এমনকি তিনি তাদের কোন আর্থিক সহায়তাও করতেন না।[১৭] চার্লি চ্যাপলিন ৭০ বছর পর তার স্মৃতিকথায় লিখেন যে তিনি তার পিতা সম্পর্কে খুব কমই জানতেন।[১৮] কেনিংটনে তারা কাছাকাছি থাকার পরও তাদের কোন সম্পর্ক ছিল না।[১৯] ১৮৯৬ সালে চার্লি ও সিডনি একটি কর্মশালায় যোগ দেয়। সেই কর্মশালার কর্তৃপক্ষ চ্যাপলিনের সাথে যোগাযোগ করেন। চ্যাপলিন তাকে জানায় যে তিনি চার্লির দায়িত্ব নিবেন কিন্তু সিডনির নয়। অবিভাবকদের বোর্ড সিদ্ধান্ত নেয় যে তারা দুই ভাই একসাথে থাকবে, কিন্তু এই নিয়ম করে যে চ্যাপলিন আইনগতভাবে দুটি সন্তানের দায়িত্ব পালন করবেন এবং তাদের লালন পালনের জন্য প্রতি সপ্তাহে ১৫ শিলিং দিবেন।[২০] তিনি কোন অর্থ প্রদান করেন নি, ফলে এক বছর পর তার সন্তানদের দায়িত্ব পালনে অবহেলার জন্য সাউথওয়ার্ক কাউন্সিল চ্যাপলিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে।[১৫] চ্যাপলিনের ভাই স্পেন্সার সেই অর্থ পরিশোধ করলে তার গ্রেফতারি পরোয়ানা তুলে নেওয়া হয়।[২১]

চ্যাপলিনই চার্লিকে বিনোদন শিল্পের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। ১৮৯৯ সালে তিনি তাকে দি এইট ল্যাঙ্কাশায়ার ল্যাড্‌স ক্লগ নৃত্য দলে একটি চরিত্রের অভিনয়ের সুযোগ পাইয়ে দেন। এই দলটি চালাতেন তারই এক বন্ধু।[২২] চার্লি তার স্মৃতিকথায় লিখেন যে তার পিতার মৃত্যুর কয়েক সপ্তাহ পূর্বে তিনি তার পিতাকে একটি পাবে দেখতে পান। চ্যাপলিন চার্লিকে দেখে খুশি হন এবং প্রথমবারের মত তাকে জড়িয়ে ধরেন এবং চুমু খান।স্মৃতিকথায়

মৃত্যু[সম্পাদনা]

গীতিমঞ্চে কাজের প্রকৃতি অনুযায়ী তারকারা মদ কেনাকে অনুপ্রাণিত করতে গিয়ে নিজেরাই মদে আসক্ত হয়ে পড়ত।[১২] চ্যাপলিনও তেমনি আসক্ত হয় পড়েন এবং প্রচণ্ড আসক্তি তার কর্মজীবনের সমাপ্তি ডেকে আনে।[২৩] ১৯০১ সালের মধ্যে তিনি যকৃত ও পেটে সার্হোসিস রোগে আক্রান্ত হন। তাকে ১৯০১ সালে ২৯ এপ্রিল ল্যামবাথের সেন্ট থমাস হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং ৯ মে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল মাত্র ৩৮।[১৬] চ্যাপলিনের প্রায় নিঃস্ববস্তায় শেষকৃত্য করা হত যদি তার ছোট ভাই আলবার্ট না এগিয়ে আসত। ১৩ মে টুটিংয়ে তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়। হান্নাহ ও চার্লি চ্যাপলিন (তখন ১২ বছর) উভয়ই শেষকৃত্যে অংশগ্রহণ করেছিলেন।[২৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Robinson, p. 2.
  2. Robinson, see "The Chaplin Family, Table 1" between p. xix and p. 1.
  3. Weissman, p. 10.
  4. Stockdill, Roy। "Famous family trees: Charlie Chaplin" (ইংরেজি ভাষায়)। Findmypast। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  5. Robinson, p. 4.
  6. Chaplin, p. 17.
  7. Robinson, p. 10.
  8. Robinson, p. 13 for separation; p. 36 states that Hannah was still Chaplin's wife when he died.
  9. Robinson, p. 5.
  10. Robinson, pp. 7–9.
  11. Robinson, p. 11.
  12. Robinson, p. 12.
  13. Robinson, p. 9.
  14. Weissman, p. 13.
  15. Robinson, p. 23.
  16. Robinson, p. 36.
  17. Robinson, p. 15.
  18. Chaplin, p. 15.
  19. Weissman, p. 24.
  20. Robinson, p. 19.
  21. Robinson, p. 24.
  22. Robinson, p. 28.
  23. Chaplin, p. 20.
  24. Robinson, p. 36–37.

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]