জর্জ স্টাড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জর্জ স্টাড
The Studd Brothers.jpg
কাইনাস্টোন ও চার্লসের সাথে জর্জ স্টাড (ডানে)
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজর্জ ব্রাউন স্টাড
জন্ম২০ অক্টোবর, ১৮৫৯
নেদারেভন, উইল্টশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু১৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৫
পাসাদেনা, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কপঞ্চভ্রাতা: আর্থার, চার্লস, হার্বার্ট, কাইনাস্টোন, রেজিনাল্ড
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪১)
৩০ ডিসেম্বর ১৮৮২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট২১ ফেব্রুয়ারি ১৮৯৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৮৭
রানের সংখ্যা ৩১ ২,৮৯২
ব্যাটিং গড় ৪.৪২ ২১.৯০
১০০/৫০ ০/০ ৩/১৫
সর্বোচ্চ রান ১২০
বল করেছে ৭৬
উইকেট
বোলিং গড় - ১৪.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - ১/৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮/০ ৭৪/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩০ অক্টোবর ২০১৯

জর্জ ব্রাউন স্টাড (ইংরেজি: George Studd; জন্ম: ২০ অক্টোবর, ১৮৫৯ - মৃত্যু: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৫) উইল্টশায়ারের নেদারেভন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও ধর্মযাজক ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৮২ থেকে ১৮৮৩ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে মিডলসেক্স দলের প্রতিনিধিত্ব করেন জর্জ স্টাড। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

এটনে ব্যাটিংয়ে বিশেষ খ্যাতি কুড়ান। শক্তিশালী ড্রাইভ মারতেন। ফিল্ডিং করে অনেকগুলো নিশ্চিত রান বাঁচান। তবে, সবসময় ক্যাচ তালুবন্দী করতে পারতেন না। ১৮৭৯ সাল থেকে ১৮৮৬ সাল পর্যন্ত জর্জ স্টাডের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

ঊনবিশ শতকের শেষদিকে ইংরেজ ক্রিকেটে প্রভাববিস্তারকারী বিখ্যাত স্টাড ভ্রাতাদের মধ্যে তিনি দ্বিতীয় জ্যেষ্ঠ ছিলেন। ছয় ভাই একত্রে এটন একাদশে খেলেছেন। ইংল্যান্ড দলের পক্ষে চারটি টেস্টে অংশ নেন। এছাড়াও কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় ও মিডলসেক্সের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি।

উইল্টশায়ারের অ্যামিসবারির কাছাকাছি নেদারেভন হাউজে জর্জ স্টাডের জন্ম। ১৮৭৭ সালে এটনের পক্ষে ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেন। হ্যারোর বিপক্ষে ৩২ ও ২৩ এবং উইনচেস্টারের বিপক্ষে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন। এরপর ১৮৭৮ সালে কেমব্রিজের ট্রিনিটি কলেজে ভর্তি হন।[১] ফ্রেশম্যান হিসেবে ব্লুধারী হন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায় অক্সফোর্ডের বিপক্ষে চারবার খেলেন। ১৮৮০ সালে অক্সফোর্ডের বিপক্ষে ৩৮ ও ৪০ রান তুলেন। তিনি ও তার অপর দুই ভ্রাতা কাইনাস্টন স্টাড ও চার্লস স্টাড ১৮৮১ ও ১৮৮২ সালে কেমব্রিজ দলে একত্রে খেলেছিলেন।

১৮৮২ সালে জর্জ স্টাড লাইট ব্লুজের অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন। এ পর্যায়ে তিনি ১২০ রান। ঐ সময়ে এ সংগ্রহটি মাত্র সপ্তমবারের মতো তিন অঙ্কের রান ছিল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায় দ্বিতীয় ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল। মূলতঃ ক্রিকেটার হিসেবে পরিচিতি ছিল তার। কেমব্রিজে স্নাতক-পূর্ব শ্রেণীতে অধ্যয়নকালে শেষ দুই বছরে অক্সফোর্ডের বিপক্ষে টেনিসে একক ও দ্বৈত খেলায় অংশ নেন।

১৮৮২ সালে প্রথম-শ্রেণীর খেলাগুলোয় ৮১৯ রান তুলেন। এরপর কেমব্রিজ লং ভ্যাকেসন ক্লাবের পক্ষে ২৮৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। ডব্লিউ এল মারডকের অস্ট্রেলীয় দলকে তিন খেলার দুইটিতে পরাজিত করে। ১৮৭৯ থেকে ১৮৮৬ সাল পর্যন্ত মাঝে-মধ্যে মিডলসেক্সের পক্ষে খেলায় অংশ নিতেন।

অ্যাশেজ খেলায় জয়ী অস্ট্রেলিয়া দলকে কেমব্রিজ দল ছয় উইকেটে পরাজিত করে। তিন ভাইয়ের মধ্যে স্যার জে ই কে স্টাড ও জি বি স্টাড উদ্বোধনী জুটিতে ১০৬ রান তুলে অবিস্মরণীয় জয়ে ভূমিকা রাখেন। তবে, সি টি স্টাডের ভূমিকা ছিল অনবদ্য। ১১৮ ও অপরাজিত ১৭ রান সংগ্রহের পর আট উইকেট পান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে চারটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জর্জ স্টাড। ৩০ ডিসেম্বর, ১৮৮২ তারিখে মেলবোর্নে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৭ ফেব্রুয়ারি, ১৮৮৩ তারিখে মেলবোর্নে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৮৮২-৮৩ মৌসুমে সম্মানীয় ইভো ব্লাইয়ের অধিনায়কত্বে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) সদস্যরূপে তিনি ও চার্লস স্টাড একত্রে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন। এ দলটি অ্যাশেজ জয়ে সমর্থ হয়। তবে, জর্জ ব্যক্তিগতভাবে দূর্বল খেলা উপহার দিয়েছিলেন। চার টেস্টে অংশ নিয়ে ৭ ইনিংসে মাত্র ৩১ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

বারের সদস্যপদ লাভ করলেও কখনো আইনচর্চার সাথে জড়িত হননি। শীতকালে অসুস্থ হয়ে পড়ায় বারে যোগ দিতে পারেননি। চার্লসের ন্যায় তিনি ধর্মযাজকের পথ বেছে নেন। শুরুতে থিওডরের পেনিয়েল মিশন ও পরবর্তীতে ম্যানি পেইনে ফার্গুসনে যোগ দেন। এরপর, সেপ্টেম্বর, ১৯০৭ সালে অ্যাপোস্টলিক ফেইদ মিশনে যুক্ত হন।

১৮৯১ সাল থেকে মৃত্যু পূর্ব-পর্যন্ত ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলসের দক্ষিণ অঞ্চলে বসবাস করতেন। ১৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৪৫ তারিখে ৮৫ বছর বয়সে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পাসাদেনা এলাকায় জর্জ স্টাডের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Studd, George Brown (STT878GB)"A Cambridge Alumni Databaseকেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]