গুলমার্গ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গুলমার্গ
গৌরী মার্গ
পার্বত্য শহর
গুলমার্গ গন্ডোলা থেকে গুলমার্গের দৃশ্য
গুলমার্গ গন্ডোলা থেকে গুলমার্গের দৃশ্য
গুলমার্গ জম্মু ও কাশ্মীর-এ অবস্থিত
গুলমার্গ
গুলমার্গ
স্থানাঙ্ক: ৩৪°০৩′ উত্তর ৭৪°২৩′ পূর্ব / ৩৪.০৫° উত্তর ৭৪.৩৮° পূর্ব / 34.05; 74.38স্থানাঙ্ক: ৩৪°০৩′ উত্তর ৭৪°২৩′ পূর্ব / ৩৪.০৫° উত্তর ৭৪.৩৮° পূর্ব / 34.05; 74.38
দেশ ভারত
কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলজম্মু ও কাশ্মীর
জেলাবারমুলা
উচ্চতা২,৬৫০ মিটার (৮,৬৯০ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,৯৬৫
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
পিন১৯৩৪০৩

গুলমার্গ হল একটি নগর ও পার্বত্য শহর। এটি জনপ্রিয় খেলা স্কি’র আদর্শ ক্ষেত্র এবং জম্মু ও কাশ্মীরের বারমুলা জেলার একটি অবহিত অঞ্চল কমিটি[১][২] শহরটি পশ্চিম হিমালয়ের পীর পঞ্জাল শৈলশিরায় অবস্থিত।

গুলমার্গে পৌঁছুনোর সময় দৃশ্য

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

আগে এর নাম ছিলগৌরী পথ, যার অর্থ (দেবী গৌরী)র পথ। পরে চক রাজবংশের ইউসুফ শাহ কর্তৃক পরিবর্তিত হয়ে গুলমার্গ হয়ে যায়।[৩][৪]

ভূতত্ত্ব এবং ভূগোল[সম্পাদনা]

হিমালয়ের পীর পঞ্জাল শৈলশিরায় পেয়ালার আকারের উপত্যকায় গুলমার্গ অবস্থিত, সমুদ্রতল থেকে এর উচ্চতা ২,৬৫০ মি (৮,৬৯৪ ফু), শ্রীনগর থেকে এর দূরত্ব ৫৬ কিমি।[৫] হিমবাহের পলি, ল্যাকাসট্রাইন অবক্ষেপন এবং প্লাইস্টোসিন যুগের মোরাইনসের সমন্বয়ে গুলমার্গের মাটি গঠিত, যার মধ্যে আছে কর্দমশিলা, চুনাপাথর, বেলেপাথর, স্কিস্ট এবং অন্যান্য ধরনের পাথরের আচ্ছাদন।[৬] শীতকালে বরফ দিয়ে ঢাকা গুলমার্গের তৃণভূমিগুলিতে, বসন্ত ও গ্রীষ্মকালে ডেইজি, ফরগেট-মি-নট এবং বাটারক্যাপের মতো বুনো ফুল জন্মায়[৫][৭] তৃণভূমিগুলির মাঝে মাঝে আছে ঘেরা উদ্যান এবং ছোট ছোট হ্রদ। এগুলি ঘিরে আছে সবুজ পাইন এবং ফারের বন।[৫] গুলমার্গের স্কি এবং অন্যান্য শীতকালীন খেলাগুলি আফার্বত শিখরের ঢাল থেকে হয়, এখানে যার উচ্চতা ৪,২৬৭ মি (১৩,৯৯৯ ফু)।[৮] আফার্বত শিখর এবং খিলানমার্গের অনেকগুলি জায়গা থেকে নাঙ্গা পার্বাত এবং হারমুখ পর্বতমালার মনোরম দৃশ্য দেখা যায়।[৫]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ভারতীয় আদমশুমারি অনুসারে, গুলমার্গের মোট জনসংখ্যা ছিল, ৭৭টি পরিবারে ১,৯৬৫ জন। শহরে পুরুষ জনসংখ্যা ১,৯৫৭ জন, অর্থাৎ মহিলার সংখ্যা কেবল আটজন এবং ০ থেকে ৬ বছর বয়সের মধ্যে কোনও শিশু নেই। গুলমার্গে সাক্ষরতার হার ৯৯.২৪%, যেখানে রাজ্যের গড় সাক্ষরতার হার ৬৭.১৬%। এর মধ্যে পুরুষদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৯৯.২৩% এবং মহিলা সাক্ষরতার হার ১০০%। তফসিলি জাতি এবং তফসিলি উপজাতি জনসংখ্যা যথাক্রমে ০.৬১% এবং ০.১৫%।[৯] গুলমার্গে স্থায়ীভাবে বসবাসকারীদের সংখ্যা কম রয়েছে, এখানকার বেশিরভাগ বাসিন্দা পর্যটক বা পর্যটন শিল্পের সাথে জড়িত।[৫]

ক্রীড়া[সম্পাদনা]

প্রথম জাতীয় ব্যান্ডি (একটি শীতকালীন দলগত খেলা যেখানে বরফের উপরে স্কেটিং করে খেলা হয়, এবং স্কেটাররা একটি বলকে প্রতিপক্ষ দলের গোলে পাঠাতে লাঠি ব্যবহার করে, অনেকটা হকির মত) প্রতিযোগিতাটি ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে গুলমার্গে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।[১০]

গলফ কোর্স[সম্পাদনা]

২,৬৫০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত এটি বিশ্বের সর্বোচ্চ সবুজ গল্ফ কোর্স। ঐতিহাসিক গুলমার্গ গল্ফ ক্লাবটি ১৯১১ সালে ব্রিটিশরা শুরু করেছিল যারা এই জায়গাটিতে ছুটি কাটাতে আসত।

জলবায়ু[সম্পাদনা]

উচ্চতার কারণে, বিশেষত অক্ষাংশের জন্য, গুলমার্গে আর্দ্র মহাদেশীয় জলবায়ু দেখা যায় এবং এখানে আর্দ্র শীত ঋতুতে ভারী তুষারপাত হয়।

গুলমার্গ-এর আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য
মাস জানু ফেব্রু মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টে অক্টো নভে ডিসে বছর
সর্বোচ্চ °সে (°ফা) গড় ০٫৭
(৩৩)
১٫১
(৩৪)
৪٫৫
(৪০)
১০٫৫
(৫১)
১৪٫৯
(৫৯)
২০٫০
(৬৮)
২০٫৬
(৬৯)
২০٫৪
(৬৯)
১৮٫৭
(৬৬)
১৪٫২
(৫৮)
৯٫১
(৪৮)
৪٫৫
(৪০)
১১٫৬
(৫২٫৯)
সর্বনিম্ন °সে (°ফা) গড় −৭٫৯
(১৮)
−৭٫৪
(১৯)
−৩٫৬
(২৬)
১٫৫
(৩৫)
৫٫৩
(৪২)
৯٫৩
(৪৯)
১১٫৭
(৫৩)
১১٫৪
(৫৩)
৭٫৯
(৪৬)
৩٫২
(৩৮)
−১٫২
(৩০)
−৫
(২৩)
২٫১
(৩৬)
গড় অধঃক্ষেপণ মিমি (ইঞ্চি) ১৫৮٫৮
(৬٫২৫)
২২৩٫৯
(৮٫৮১)
২৫৫٫৮
(১০٫০৭)
১৭৩٫৭
(৬٫৮৪)
১৪৯٫৫
(৫٫৮৯)
৯৮٫০
(৩٫৮৬)
১১৪٫৮
(৪٫৫২)
১০৪٫৪
(৪٫১১)
৫৮٫০
(২٫২৮)
৫২٫৬
(২٫০৭)
৫২٫৮
(২٫০৮)
১২৩٫৪
(৪٫৮৬)
১,৫৬৫٫৭
(৬১٫৬৪)
উৎস: [১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "A Family Ski Adventure in the Himalayas" 
  2. Gopal, Madan (১৯৯০)। K.S. Gautam, সম্পাদক। through the ages। Publication Division, Ministry of Information and Broadcasting, Government of India। পৃষ্ঠা 178 
  3. Kumar, Brajesh (২০০৩)। Pilgrimage Centres of India (ইংরেজি ভাষায়)। Diamond Pocket Books (P) Ltd.। আইএসবিএন 9788171821853 
  4. Lovell-Hoare, Max; Lovell-Hoare, Sophie (২০১৪-০৭-০১)। Kashmir: Jammu. Kashmir Valley. Ladakh. Zanskar (ইংরেজি ভাষায়)। Bradt Travel Guides। আইএসবিএন 9781841623962 
  5. Mitra, Swati (২০১৩)। Jammu & Kashmir: Travel Guide। Eicher Goodearth Limited। পৃষ্ঠা 30–36। আইএসবিএন 978-93-80262-45-1 
  6. Vaidya, Balkrishna C. (১ জানুয়ারি ২০০৩)। Geography of Transport Development in India। Concept Publishing Company। পৃষ্ঠা 354। আইএসবিএন 978-81-7022-957-5 
  7. Chaturvedi, B.K.। Tourist Centers Of India। Diamond Pocket Books (P) Ltd.। পৃষ্ঠা 82। আইএসবিএন 978-81-7182-137-2 
  8. "Gulmarg"। Official Website of Jammu and Kashmir Tourism। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  9. "Gulmarg Population Census 2011"। Census Commission of India। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  10. [১][স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  11. "Gulmarg"India Meteorological Department। ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 

টেমপ্লেট:Jammu and Kashmir topics