কোত দিভোয়ার জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কোত দিভোয়ার
দলের লোগো
ডাকনামলে এলেফঁতস (হাতি)
অ্যাসোসিয়েশনআইভোরীয় ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচপাত্রিস বোমেল
অধিনায়কসের্জ ওরিয়ে
সর্বাধিক ম্যাচদিদিয়ের জোকোরা (১২৩)
শীর্ষ গোলদাতাদিদিয়ের দ্রগবা (৬৫)
মাঠফেলিক্স উফোয়েত বোয়ানি স্টেডিয়াম
ফিফা কোডCIV
ওয়েবসাইটwww.fifciv.com
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৫৯ বৃদ্ধি(৭ এপ্রিল ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ১২ (ফেব্রুয়ারি ২০১৩, এপ্রিল–মে ২০১৩)
সর্বনিম্ন৭৫ (মার্চ–মে ২০০৪)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৪৯ বৃদ্ধি(২৪ এপ্রিল ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১০ (জানুয়ারি ২০১৩)
সর্বনিম্ন৭০ (অক্টোবর ১৯৯৬)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 কোত দিভোয়ার ৩–২ দাহোমি 
(মাদাগাস্কার; ১৩ এপ্রিল ১৯৬০)
বৃহত্তম জয়
 কোত দিভোয়ার ১১–০ মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র 
(আবিজান, কোত দিভোয়ার; ২৭ ডিসেম্বর ১৯৬১)
বৃহত্তম পরাজয়
 নেদারল্যান্ডস ৫–০ কোত দিভোয়ার 
(রটার্ডাম, নেদারল্যান্ডস; ৪ জুন ২০১৭)
বিশ্বকাপ
অংশগ্রহণ৩ (২০০৬-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব (২০০৬, ২০১০, ২০১৪)
আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্স
অংশগ্রহণ২৩ (১৯৬৫-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচ্যাম্পিয়ন (১৯৯২, ২০১৫)
আফ্রিকান নেশন্স চ্যাম্পিয়নশিপ
অংশগ্রহণ৩ (২০০৯-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যতৃতীয় স্থান (২০১৬)
কনফেডারেশন্স কাপ
অংশগ্রহণ১ (১৯৯২-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যচতুর্থ স্থান (১৯৯২)

কোত দিভোয়ার জাতীয় ফুটবল দল (ফরাসি: Équipe Nationale de football de Côte d'Ivoire, ইংরেজি: Ivory Coast national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে কোত দিভোয়ারের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম কোত দিভোয়ারের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইভোরীয় ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৬৪ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬৫ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৬০ সালের ১৩ই এপ্রিল তারিখে, কোত দিভোয়ার প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; মাদাগাস্কারে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে কোত দিভোয়ার দাহোমিকে ৩–২ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

৫০,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট ফেলিক্স উফোয়েত বোয়ানি স্টেডিয়ামে লে এলেফঁতস নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় কোত দিভোয়ারের বৃহত্তম শহর আবিজানে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন পাত্রিস বোমেল এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন টটেনহ্যাম হটস্পারের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় সের্জ ওরিয়ে

কোত দিভোয়ার এপর্যন্ত ৩ বার ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে প্রত্যেকটি আসরে তারা শুধুমাত্র গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়েছে। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সে কোত দিভোয়ার অন্যতম সফল দল, যেখানে তারা ২টি (১৯৯২ এবং ২০১৫) শিরোপা জয়লাভ করেছে। এছাড়াও, কোত দিভোয়ার ১৯৯২ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে।

দিদিয়ের জোকোরা, কলো তুরে, দিদিয়ের দ্রগবা, গেরভিনিয়ো এবং সালোমন কালুর মতো খেলোয়াড়গণ কোত দিভোয়ারের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে কোত দিভোয়ার তাদের ইতিহাসে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ অবস্থান (১২তম) অর্জন করে এবং ২০০৪ সালের মার্চ মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ৭৫তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে কোত দিভোয়ারের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১০ম (যা তারা ২০১৩ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ৭০। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৭ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৫৭ হ্রাস  মালি ১৪০০.৯৪
৫৮ অপরিবর্তিত  কাতার ১৩৯৭.৯২
৫৯ বৃদ্ধি  কোত দিভোয়ার ১৩৯৭.৭৭
৬০ হ্রাস  বুর্কিনা ফাসো ১৩৯২.৯
৬১ হ্রাস  গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র ১৩৭৬.৬৫
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২৪ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৪৮ বৃদ্ধি  গ্রিস ১৬৩৯
৪৯ বৃদ্ধি  কোত দিভোয়ার ১৬৩৮
৫০ বৃদ্ধি  ইরাক ১৬৩৭
৫১ হ্রাস  বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ১৬৩৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ উত্তীর্ণ হয়নি
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ ১১ ১০
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ ১২
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ ১০ ২২ ১০
জার্মানি ২০০৬ গ্রুপ পর্ব ১৯তম ১০ ২০
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ গ্রুপ পর্ব ১৭তম ১২ ২৯
ব্রাজিল ২০১৪ গ্রুপ পর্ব ২১তম ১৯
রাশিয়া ২০১৮ উত্তীর্ণ হয়নি ১১
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট গ্রুপ পর্ব ৩/২১ ১৩ ১৪ ৮০ ৪১ ২৫ ১৪ ১৪৫ ৬৯

অর্জন[সম্পাদনা]

শিরোপা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৭ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২৪ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]