বেনিন জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বেনিন
দলের লোগো
ডাকনামলেস একুরোই (কাঠবিড়ালি)
অ্যাসোসিয়েশনবেনিন ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচমিশেল দুসুয়ে
অধিনায়কস্তেফান সেসেনিয়ন
সর্বাধিক ম্যাচস্তেফান সেসেনিয়ন (৮৩)
শীর্ষ গোলদাতাস্তেফান সেসেনিয়ন (২৪)
মাঠস্তাদ দে লামিতি
ফিফা কোডBEN
ওয়েবসাইটfebefoot.org
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮২ বৃদ্ধি(১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ৫৯ (নভেম্বর–ডিসেম্বর ২০০৯, এপ্রিল ২০১০)
সর্বনিম্ন১৬৫ (জুলাই ১৯৯৬)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ৮৭ বৃদ্ধি(২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ৫৬ (ডিসেম্বর ১৯৬৪)
সর্বনিম্ন১৬৫ (মে ১৯৯৫)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 দাহোমি ০–১ নাইজেরিয়া 
(দাওমে; ৮ নভেম্বর ১৯৫৯)
বৃহত্তম জয়
 দাহোমি ৭–০ মৌরিতানিয়া 
(আবিজান, কোত দিভোয়ার; ২৭ ডিসেম্বর ১৯৬১)
বৃহত্তম পরাজয়
 নাইজেরিয়া ১০–১ দাহোমি 
(নাইজেরিয়া; ২৮ নভেম্বর ১৯৫৯)
আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্স
অংশগ্রহণ৪ (২০০৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যকোয়ার্টার-ফাইনাল (২০১৯)

বেনিন জাতীয় ফুটবল দল (ফরাসি: Équipe nationale de Football du Benin, ইংরেজি: Benin national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে বেনিনের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম বেনিনের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বেনিন ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৬৪ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬৩ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৫৯ সালের ৮ই নভেম্বর তারিখে, বেনিন প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; দাওমেতে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে বেনিন দাওমকে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করেছে।

২০,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট স্তাদ দে লামিতিতে লেস একুরোই নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় বেনিনের রাজধানী পোর্তো-নোভোয় অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন মিশেল দুসুয়ে এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন আক্রমণভাগের খেলোয়াড় স্তেফান সেসেনিয়ন

বেনিন এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সে বেনিন এপর্যন্ত ৪ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার মধ্যে সেরা সাফল্য হচ্ছে ২০১৯ আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সের কোয়ার্টার-ফাইনালে পৌঁছানো, যেখানে তারা সেনেগালের কাছে ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

স্তেফান সেসেনিয়ন, খালিদ আদেনুন, রমুয়ালদ বোকো, রাজাক ওমোতোয়োসি এবং স্তেভ মুনির মতো খেলোয়াড়গণ বেনিনের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০০৯ সালের নভেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে বেনিন তাদের ইতিহাসে সর্বপ্রথম সর্বোচ্চ অবস্থান (৫৯তম) অর্জন করে এবং ১৯৯৬ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৬৫তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে বেনিনের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৫৬তম (যা তারা ১৯৬৪ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৬৫। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮০ বৃদ্ধি  কাবু ভের্দি ১৩০৬
৮১ বৃদ্ধি  ওমান ১৩০৩
৮২ বৃদ্ধি  বেনিন ১৩০২
৮৩ হ্রাস  উগান্ডা ১৩০১
৮৪ অপরিবর্তিত  হাইতি ১২৮৫
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
৮৫ বৃদ্ধি  সিরিয়া ১৪৮৫
৮৫ হ্রাস  উগান্ডা ১৪৮৫
৮৭ বৃদ্ধি  বেনিন ১৪৮১
৮৮ হ্রাস  এল সালভাদোর ১৪৭৯
৮৯ হ্রাস  জর্ডান ১৪৬৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১০
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬ উত্তীর্ণ হয়নি
ইতালি ১৯৯০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ উত্তীর্ণ হয়নি ১৯
ফ্রান্স ১৯৯৮ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি
জার্মানি ২০০৬ ১২ ১৩ ২৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২৩ ৩৯ ২৩ ৩৪ ৮১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]