কুমিল্লা বিভাগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কুমিল্লা বিভাগ
সমতট
রোসনাবাদ
প্রস্তাবিত বিভাগ
প্রস্তাবিত কুমিল্লা বিভাগ
প্রস্তাবিত কুমিল্লা বিভাগ
দেশ বাংলাদেশ
আসনকুমিল্লা
আয়তন
 • মোট১২৮৪৮.৫৩ কিমি (৪৯৬০.৮৫ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১,৬৭,০৮,০০০
 • জনঘনত্ব১৩০০/কিমি (৩৪০০/বর্গমাইল)
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
আইএসও ৩১৬৬ কোডBD-B

কুমিল্লা বিভাগ বাংলাদেশের মধ্য-পূর্বাঞ্চলের প্রস্তাবিত একটি বিভাগ। কুমিল্লা বিভাগের সদরদপ্তর কুমিল্লা শহরে অবস্থিত।[১] প্রস্তাবিত এই বিভাগ কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী এবং লক্ষ্মীপুর জেলা নিয়ে গঠিত হবে।[২][৩][৪][৫] এটি দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় অঞ্চলের মোট ১২,৮৪৮.৫৩ কিমি (৪,৯৬০.৮৫ মা)[৬] এবং ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী ১,৬৭,০৮,০০০ জনসংখ্যা নিয়ে গঠিত।[৭][৮]

নামকরণে মতপার্থক্য[সম্পাদনা]

প্রস্তাবিত কুমিল্লা বিভাগের ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক অঞ্চলকে বর্ণনা করার জন্য ভিন্ন ভিন্ন শব্দ ব্যবহার করা হয়। যেমন:

  • ভৌগলিক শব্দসমূহ:
  • সমতট; একটি প্রাচীন রাজ্য ছিল। বৃহত্তর কুমিল্লা অঞ্চল এবং বৃহত্তর নোয়াখালী অঞ্চল সমতট রাজ্যের অন্তর্গত ছিল। ভৌগোলিকভাবে প্রস্তাবিত বিভাগটি দুটি স্বতন্ত্র সাংস্কৃতিক অঞ্চল দ্বারা গঠিত - বৃহত্তর কুমিল্লা এবং বৃহত্তর নোয়াখালী।
    • বৃহত্তর কুমিল্লা- ১৭৯০ সালে ব্রিটিশদের দ্বারা বঙ্গের একটি জেলা ত্রিপুরা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়[৯] এবং পরবর্তীতে ১৯৬০ সালে কুমিল্লা নামে নামকরণ করা হয়।[১০] এতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চাঁদপুরের অংশবিশেষ অন্তর্গত ছিল যা ১৯৮৪ সালে পৃথক জেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।
    • বৃহত্তর নোয়াখালী; নোয়াখালীর প্রাচীন নাম ভুলুয়া। নোয়াখালী জেলাটি ১৭৮৭ সালে ব্রিটিশ ভারত সরকার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এতে লক্ষ্মীপুর ও ফেনীর অংশবিশেষ অন্তর্ভুক্ত ছিল যা ১৯৮৪ সালে পৃথক জেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।
  • রোসনাবাদ; সুবাহ বাংলার মুঘল আমলে এ এলাকা রোসনাবাদ এলাকা নামে সুপরিচিত ছিল।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

প্রস্তাবিত কুমিল্লা বিভাগ অর্থাৎ বৃহত্তর কুমিল্লা ও নোয়াখালী অঞ্চল সমতট নামক প্রাচীন রাজ্যের অধীনে ছিল। কুমিল্লা পৌরসভা গঠিত হয় ১৮৯০ সালে সিটি কর্পোরেশন হয় ২০১১ সালে। এইটি প্রাচীন শহর ।[১১]

প্রশাসনিক জেলা[সম্পাদনা]

এই বিভাগটি ছয়টি জেলা এবং ৫৯টি উপজেলা (উপজেলা) নিয়ে গঠিত হবে।

নাম রাজধানী আয়তন(কিঃমি) জনসংখ্যা
১৯৯১ আদমশুমারি
জনসংখ্যা
২০০১ আদমশুমারি
আদমশুমারি
২০১১ আদমশুমারি
(প্রাথমিক
তথ্য)
ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১,৯২৭.১১ ২১,৪১,৭৪৫ ২৩,৯৮,২৫৪ ২৮,০৮,০০০
কুমিল্লা জেলা কুমিল্লা ৩,০৮৫.১৭ ৪০,৩২,৬৬৬ ৪৫,৯৫,৫৩৯ ৫৩,০৪,০০০
চাঁদপুর জেলা চাঁদপুর ১,৭০৪.০৬ ২০,৩২,৪৪৯ ২২,৭১,২২৯ ২৩,৯৩,০০০
লক্ষ্মীপুর জেলা লক্ষ্মীপুর ১,৪৪০.৩৯ ১৩,১২,৩৩৭ ১৪,৮৯,৯০১ ১৭,২৯,১৮৮
নোয়াখালী জেলা নোয়াখালী ৪,২০২.৮৭ ২২,১৭,১৩৪ ২৫,৭৭,২৪৪ ৩১,০৮,০৮৩
ফেনী জেলা ফেনী ৯৯০.৩৬ ১০,৯৬,৭৪৫ ১২,৪০,৩৮৪ ১৪,৩৭,৩৭১
মোট কুমিল্লা ১৩,৩৪৯.৯৬ ১,২৮,৩৩,০৭৬ ১,৪৫,৭২,৫৫১ ১,৬৭,০৮,০০০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "কুমিল্লা বিভাগ দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি"prothom-alo.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৪ 
  2. http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1288479.bdnews
  3. ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনে কাজ শুরুর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর [Mymensingh Division worked on the instruction of the Prime Minister]। Prothom Alo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  4. "Mymensingh to become new division"The Daily Star। ২৬ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  5. "3 new divisions to be formed"The Independent। Dhaka। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  6. Miah, Sajahan (২০১২)। "Chittagong Division"Islam, Sirajul; Jamal, Ahmed A.। Banglapedia: National Encyclopedia of Bangladesh (Second সংস্করণ)। Asiatic Society of Bangladesh 
  7. http://www.observerbd.com/2015/10/30/118019.php
  8. http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/1105396/%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%97-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%A6%E0%A6%BE%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%A8%E0%A7%8B%E0%A7%9F%E0%A6%BE%E0%A6%96%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A7%80-%E0%A6%B6%E0%A6%B9%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%AC%E0%A6%AC%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A7%E0%A6%A8-%E0%A6%86%E0%A6%9C
  9. Bengal District Gazetteer, Tipperah District – 1933
  10. Siddiqi, Mamun (২০১২)। "Comilla District"Islam, Sirajul; Jamal, Ahmed A.। Banglapedia: National Encyclopedia of Bangladesh (Second সংস্করণ)। Asiatic Society of Bangladesh 
  11. "3 new divisions to be formed"theindependentbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৪