এলিজাবেথ ওলসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এলিজাবেথ ওলসেন
Elizabeth Olsen SDCC 2014 2 (cropped).jpg
জন্ম
এলিজাবেথ চেজ ওলসেন

(1989-02-16) ১৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৯ (বয়স ৩০)
শের্মান ওকস, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
জাতীয়তামার্কিন
অন্য নামলিজি ওলসেন
শিক্ষাক্যাম্পবেল হল স্কুল
যেখানের শিক্ষার্থীনিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৯৩–৯৬; ২০১১–বর্তমান
আত্মীয়মেরি-কেট ওলসেন (বোন)
আশলে ওলসেন (বোন)

এলিজাবেথ চেজ ওলসেন (জন্ম ফেব্রুয়ারি ১৬, ১৯৮৯)[১] হচ্ছেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী। তার সাফল্য ওঠে আসে ২০১১ সালে যখন তিনি স্বাধীন থ্রিলার নাটক মার্থা মার্সি মে মার্লেইন-এ অভিনয় করেন, যার জন্য তিনি অন্যান্য পুরস্কারের মধ্যে ক্রিটিক্স' চয়েস মুভি অ্যাওয়ার্ড ফর বেস্ট এক্ট্রেস এবং ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্পিরিট অ্যাওয়ার্ড ফর বেস্ট ফিমেল লিড এর জন্য মনোনীত হন। তিনি পরে অভিনয় করেন সাইলেন্ট হাউজ (২০১১), লিবারেল আর্টস (২০১২), ওল্ডবয় (২০১৩), গডজিলা (২০১৪), আই স দ্য লাইট (২০১৫), ইনগ্রিড গোস ওয়েস্ট (২০১৭) এবং ওয়াইন্ড রিভার (২০১৭)।

তিনি বৈশ্বিক স্বীকৃতি অর্জন করেন যখন তিনি মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্স-এর ওয়ান্ডা ম্যাক্সিমঅফ / স্কারলেট উইচ চরিত্রে , ক্যাপ্টেন আমেরিকা: দ্য উইন্টার সোলজার (২০১৪) শেষ কৃতিত্বের দৃশ্যে অভিনয় করেন, তারপর অ্যাভেঞ্জার্স: এজ অব আলট্রন (২০১৫), ক্যাপ্টেন আমেরিকা: সিভিল ওয়ার (২০১৬), অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার (২০১৮) এবং আসন্ন অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম‎ (২০১৯) চলচ্চিত্রের প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে।

প্রারম্ভের জীবন[সম্পাদনা]

ওলসেন ক্যালিফোর্নিয়ার শারম্যান ওকসে জন্মগ্রহণ করেন জার্নেট "জার্নি", একজন ব্যক্তিগত পরিচালক এবং ডেভিড "ডেভ" ওলসেন, একটি রিয়েল এস্টেট ডেভেলপার ও বন্ধকী ব্যাংকার এর ঘরে।[১][২] তিনি মেরি-কেট এবং অ্যাশলি ওলসেন যমজ বোনদ্বয়ের ছোট বোন, যিনি টিভি এবং চলচ্চিত্র তারকা হিসাবে অল্প বয়সে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। ওলসেনেরও একজন বড় ভাই রয়েছে, এবং দুজন সৎ-ভাইবোন আছে। ১৯৯৬ সালে, তার বাবা-মা তালাকপ্রাপ্ত হয়।[৩] ওলসেনের পূর্বপুরুষগণ ছিলেন নরওয়েজিয়ান এবং ইংরেজ।[৪]

একজন শিশু হিসেবে, তিনি ব্যালে নাচ ও গানের শিক্ষা নিয়েছেন।[৫] তিনি ছোট বয়সে অভিনয় শুরু করেন, তার বোনদের চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে। ১১ বৎসর বয়সের পূর্বে , হাউ দ্য ওয়েস্ট ওয়াজ ফান এবং সোজা টু ভিডিও সিরিজ দ্য অ্যাডভেঞ্চার অব মেরি-কেট এন্ড অ্যাশলে-এ তার স্বল্প অভিনয় ছিল। তার বোনদের ভিডিওতে হাজির হওয়ার পর, যখন তিনি চতুর্থ শ্রেণিতে ছিলেন, তখন ওলসেন অন্যান্য অভিনয়ের কাজের জন্য অডিশনে যান। তিনি নর্থ হলিউড, ক্যালিফোর্নিয়ার ক্যাম্পবেল হল স্কুল-এ কিন্ডারগার্টেন থেকে গ্রেড ১২ পর্যন্ত পড়ালেখা করেন।[৬]

গ্যাজুয়েশনের পরে , তিনি নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটির টিসচ স্কুল অফ আর্টস-এ ভর্তি হন। ২০০৯-এ, ওলসেন ইউসিন ও'নিল থিয়েটার সেন্টারের ম্যাটস প্রোগ্রামের মাধ্যমে মস্কো আর্ট থিয়েটার স্কুল, মস্কোতে অধ্যয়নরত থেকে একটি সেমিস্টারে ব্যয়িত করেছেন।[৬]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ওলসেন নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটির টিশ স্কুল অফ আর্টস এবং আটলান্টিক থিয়েটার কোম্পানিতে যোগ দেন এবং ছয় বছরের অন্তর্বর্তীকালীন গবেষণায় স্নাতক হয়েছেন।[৭][৮] তার বড় বোনদের পোশাক লাইন "এলিজাবেথ ও জেমস" তার এবং তার বড় ভাইয়ের নামে নামকরণ করা হয়েছিল।[৬]

সেপ্টেম্বর ২০১২-এ, ওলসেন অভিনেতা এবং ফ্যাশন মডেল বয়ড হলব্রোকের সঙ্গে ডেটিং শুরু করেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] মার্চ ২০১৪-এ তাঁদের বাগদান হয়,[৯][১০] কিন্তু তা বলা হয় জানুয়ারি ২০১৫-এ।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Elizabeth Olsen"Hollywood.com। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৫, ২০১৬ 
  2. "Mary-Kate Olsen Biography (1986-)"। Filmreference.com। অক্টোবর ৪, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৫, ২০১১ 
  3. Tauber, Michelle (মে ৩, ২০০৪)। "Two Cool"People। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২১, ২০১৬ 
  4. Briodagh, Kenneth (মার্চ ১১, ২০১০)। "Mobile Marketing Gets Cool"EventMarketer.com। জুন ২২, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৭, ২০১৩JCPenney for four days in October last year hit the streets of New York City with a mobile ice cream truck filled with goodies and samples of its Olsenboye collection, a new line of junior apparel designed by Mary Kate and Ashley Olsen for sale at its stores this spring. The name, Olsenboye, derives from the twins’ Norwegian ancestry. 
  5. Bakker, Tiffany (জানুয়ারি ১৫, ২০১২)। "Elizabeth Olsen admires her sisters"The Daily Telegraph। সংগ্রহের তারিখ মে ১৫, ২০১৮ 
  6. Connor, Katie L. (নভেম্বর ২১, ২০১১)। "Lizzie Olsen: Miss Independent"Marie Claire। জুন ২০, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ১৭, ২০১৩ 
  7. "Elizabeth Olsen and Eric Ripert Prepare Wild Boar Ragu"YouTube। মার্চ ২১, ২০১৩। জুলাই ২৩, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৭, ২০১৩ 
  8. Rozen, Leah (অক্টোবর ১১, ২০১১)। "An Olsen Sister Finds a Spotlight All Her Own"The New York Times। ডিসেম্বর ২২, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  9. Maresca, Rachel। "Elizabeth Olsen engaged to boyfriend Boyd Holbrook: report - NY Daily News"nydailynews.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০১৮ 
  10. "Elizabeth Olsen Engaged to Boyd Holbrook!"Us Weekly (ইংরেজি ভাষায়)। মার্চ ১২, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০১৮ 
  11. "Elizabeth Olsen, Boyd Holbrook Split, Break Off Engagement: Details"Us Weekly (ইংরেজি ভাষায়)। জানুয়ারি ১৯, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]