অমরকানন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অমরকানন
গ্রাম
পর্যটন কেন্দ্র
অমরকানন পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
অমরকানন
অমরকানন
অমরকানন ভারত-এ অবস্থিত
অমরকানন
অমরকানন
পশ্চিমবঙ্গের মানচিত্রে অমরকাননের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°২৩′৫০.৩″ উত্তর ৮৭°০৬′৩২.০″ পূর্ব / ২৩.৩৯৭৩০৬° উত্তর ৮৭.১০৮৮৮৯° পূর্ব / 23.397306; 87.108889স্থানাঙ্ক: ২৩°২৩′৫০.৩″ উত্তর ৮৭°০৬′৩২.০″ পূর্ব / ২৩.৩৯৭৩০৬° উত্তর ৮৭.১০৮৮৮৯° পূর্ব / 23.397306; 87.108889
দেশটেমপ্লেট:দেশের উপাত্ত Indiaভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাবাঁকুড়া
ভাষা
 • সরকারিবাংলা, ইংরেজি
সময় অঞ্চলভারতীয় প্রমাণ সময় (ইউটিসি+০৫:৩০)
দূরাভাষ/এসটিডি কোড০৩২৪২
লোকসভা কেন্দ্রবাঁকুড়া
বিধানসভা কেন্দ্রবরজোড়া
ওয়েবসাইটbankura.gov.in

অমরকানন হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাঁকুড়া জেলার সদর মহকুমার অন্তর্গত গঙ্গাজলঘাটী সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের একটি গ্রাম ও পর্যটন কেন্দ্র। এই ব্লকের প্রধান কার্যালয় অমরকানন গ্রামেই অবস্থিত।[১][২]

জনপরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

২০১১ সালের জনগণনা প্রতিবেদনে অমরকাননের জনসংখ্যার পৃথক উল্লেখ পাওয়া যায় না। সম্ভবত এই প্রতিবেদনে অমরকানন ও তার পার্শ্ববর্তী ভৈরবপুর গ্রামের জনসংখ্যা একত্রিত করে ধরা হয়ে। উক্ত বছরের জনগণনা অনুসারে, ভৈরবপুরের সামগ্রিক জনসংখ্যা ৪.৬৬৯ জন। এর মধ্যে ২,৩৭৯ জন (৫১%) পুরুষ এবং ২,২৯০ জন (৪৯%) নারী। ৫০৬ জনের জনসংখ্যা ছয় বছরের নিচে। ভৈরবপুরের মোট সাক্ষর জনসংখ্যা ২,৯১১ (ছয় বছরের অধিক জনসংখ্যার ৬৮.৯৩%)।[৩]

পরিবহণ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

মোরগ্রাম থেকে খড়গপুর পর্যন্ত প্রসারিত ১৪ নং জাতীয় সড়ক (পুরনো সংখ্যা অনুসারে ৬০ নং জাতীয় সড়ক অমরকাননের উপর দিয়ে গিয়েছে।[৪] এই অংশেই পুরুলিয়া জেলার সাঁওতালডিহি থেকে উত্তর চব্বিশ পরগনা নদীয়া জেলার মাঝদিয়া পর্যন্ত প্রসারিত ৮ নং জাতীয় সড়ক ১৪ নং জাতীয় সড়কের সঙ্গে একই রুট ভাগ করে নিয়েছে।[৫]

পর্যটন কেন্দ্র[সম্পাদনা]

অমরকাননের নিকটস্থ ৪০০ ফুট উঁচু কোরো পাহাড় বহু পর্যটক ট্রেকিং ও বনভোজন করতে আসেন। এই পাহাড়টি বাঁকুড়া শহর থেকে ১৯ কিলোমিটা দূরে অবস্থিত।[৬]

অমরকাননের আরেকটি পর্যটন কেন্দ্র হল গাংদুয়া বাঁধ। শালি নদীর উপর ৪,৯০০ ফুট উঁচু এই বাঁধ এবং তার পিছনে জলাধারটি একটি জনপ্রিয় বনভোজন স্থল। এটি অমরকানন থেকে ৪ কিলোমিটার ও বাঁকুড়া থেকে ২৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।[৭]

শিক্ষাব্যবস্থা[সম্পাদনা]

স্বাধীনতা সংগ্রামী গোবিন্দ প্রসাদ সিংহের নামানুসারে ১৯৮৫ সালে অমরকাননে গোবিন্দ প্রসাদ মহাবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। এই কলেজটি বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক অনুমোদিত। এখানে বাংলা, ইংরেজি, ইতিহাস ও ভূগোলের সাম্মানিক পাঠক্রম ও কলাবিভাগে সাধারণ পাঠক্রম চালু রয়েছে।[৮]

স্বাস্থ্য পরিষেবা[সম্পাদনা]

অমরকানন গ্রামীণ হাসপাতাল হল গঙ্গাজলঘাটী সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের কেন্দ্রীয় হাসপাতাল। এছাড়া শ্রীচন্দনপুর, গঙ্গাজলঘাটী ও রামহরিপুরে তিনটি জনস্বাস্থ্য কেন্দ্র ও ৩০টি উপকেন্দ্র রয়েছে।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "District Census Handbook: Bankura" (PDF)Map of Bankura with CD Block HQs and Police Stations (on the fifth page)। Directorate of Census Operations, West Bengal, 2011। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  2. "Bankura District" (PDF)Gangajalghati। Bankura district administration। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  3. "2011 Census – Primary Census Abstract Data Tables"West Bengal – District-wise। Registrar General and Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  4. "Rationalisation of Numbering Systems of National Highways" (PDF)। New Delhi: Department of Road Transport and Highways। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  5. "List of State Highways in West Bengal"। West Bengal Traffic Police। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৬ 
  6. "Koro Hills, Bankura"। Holiday Hospot। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  7. "Gangdua"। Hotel Debarshi। ২৩ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৬ 
  8. "Gobinda Prasad Mahavidyalaya"। GPV। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  9. "Status of Health and FW Services in Bankura District"। Chief Medical Officer of Health, Bnkura। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • উইকিভ্রমণ থেকে অমরকানন ভ্রমণ নির্দেশিকা পড়ুন