অদিতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অদিতি
মাতৃত্বের দেবী, দেবমাতা, পরাপ্রকৃতি এবং উর্বরতার দেবী
Goddess Aditi.jpg
অদিতি
অন্তর্ভুক্তিদেবী
অস্ত্রসমূহতলোয়ার, ত্রিশূল
বাহনPhoenix
গ্রন্থসমূহঋগ্বেদ, পুরাণ, রামায়ণ, মহাভারত
ব্যক্তিগত তথ্য
মাতাপিতা
সহোদরদিতি, কদ্রু, বিনতা, সতী, স্মৃতি স্বাহা, রোহিণী, রেবতী, দনু, মুনি এবং আরো অনেক ভাই এবং বোন
সঙ্গীকাশ্যপ
সন্তানআদিত্যগণ,

ইন্দ্র, সূর্য, ভগ, বরুণ, মিত্র, আর্য়মান, সবিতৃ এবং বামন

[১][২]

অদিতি (সংস্কৃত: अदिति = "অসীম" বা "সীমাহীন") হিন্দুধর্মের একজন বৈদিক দেবী, যাকে অসীমের রূপক অবয়ব বলে মনে করা হয়। ঋগ্বেদে তিনি অনন্ত আকাশ, চেতনা, অতীত, ভবিষ্যত এবং উর্বরতার দেবী হিসেবে উল্লেখিত হয়েছেন।[৩] তিনি আকাশের দেবদেবতা, দ্বাদশ আদিত্যের মাতা এবং বিষ্ণুঅগ্নি সহ অনেক দেবতার মা হিসাবে পরিচিত। প্রতিটি বিদ্যমান রূপ এবং সত্তার দৈবী মা হিসাবে এবং সমস্ত কিছুর সংশ্লেষণ রূপে, তাকে মহাশূন্য (আকাশ) এবং বাক্যের সাথে একীভূত করে দেখা হয়। তাকে ব্রহ্মার স্ত্রীলিঙ্গ রূপ হিসাবে দেখা যেতে পারে এবং বেদান্তে আদি অস্তিত্ব (মূলাপ্রকৃতি) রূপে কল্পনা করা যেতে পারে। ঋগ্বেদে তাঁর নাম প্রায় ২৫০ বারের ও বেশি উল্লেখ করা রয়েছে এবং তাঁর সম্পর্কে মন্ত্রও রয়েছে।

"অদিতি থেকে দক্ষ এবং দক্ষ থেকে অদিতি" - এই শ্লোকটি থিওসোফিস্টরা "শাশ্বত ঐশ্বরিক মর্মের জন্ম-পুনর্জন্মের চিরন্তন চক্র" এবং ঐশ্বরিক জ্ঞানের প্রসঙ্গ হিসাবে চিন্তা করেন।[৪][৫]

পরিবার[সম্পাদনা]

পুরাণমতে, অদিতি দক্ষ এবং পাঞ্চজনীর কন্যা। শিব পুরাণ এবং ভাগবত পুরাণের মতো পুরাণগুলিতে বলা হয় যে অদিতি ঋষি কাশ্যপের স্ত্রী এবং তিনি ইন্দ্র, সূর্য এবং বামনের মতো আদিত্যদের জন্ম দিয়েছেন। [৬]

মূল[সম্পাদনা]

বেদের অনেক স্থানেই অদিতিকে দ্যৌ বা আকাশ বলা হয়েছে।[৭][টীকা ১] কৃষ্ণযজুর্বেদে পৃথিবীকে অদিতি বলা হয়েছে।[৯][১০] সূর্য এবং অন্যান্য স্বর্গীয় দেবতা আদিত্যদের মা হিসাবে অদিতির উল্লেখ করা হয়েছে। অদিতির প্রথম উল্লেখ পাওয়া যায় ঋগেদে, যা ১৭০০-১১০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে রচিত হয়েছিল বলে অনুমান করা হয়[১১]শতপথ ব্রাহ্মণে বর্ণিত হয়েছে যে অদিতিকে আধ্যাত্মিক বলিদানের সময় আহ্বান করা হয় কারণ তিনি পৃথিবীর সমার্থক বলে আখ্যায়িত। [১২]

বৈশিষ্ট্যাবলী[সম্পাদনা]

দেবজননী[সম্পাদনা]

অদিতিকে সর্বপ্রসূতি বলা হয়। যা তেজঃপুঞ্জ, যা সুন্দর, যা দীপ্তমান, যা মহৎ, যা বলবান, আকাশ, চন্দ্র, সূর্য, বরুণ, মরুৎ, পর্জন্য, সকলের প্রসূতি বলে অদিতি দেবমাতা। ঋষি কাশ্যপ এবং অদিতির তেত্রিশ পুত্র, যার মধ্যে বারোজনকে আদিত্য (দ্বাদশ আদিত্য), এগারজনকে রুদ্র এবং আটজনকে বসু (অষ্টবসু) বলা হয়।[১৩]। অদিতিকে দেবরাজ ইন্দ্র (দ্বাদশ আদিত্যের একজন) এবং অন্যান্য রাজাদের মাতা।[১৪] পুরাণে তাঁকে সমগ্র দেবতাদের মাতা বলা হয়েছে।[১৫] বেদে, অদিতি হলেন দেবমাতা[৭] এবং তাঁর মহাজাগতিক শক্তিতেই সমস্ত দেবতাদের জন্ম হয়েছিল বলে বর্ণিত হয়েছে। তিনি প্রাথমিকভাবে যে বারোজন আদিত্যর মাতা, তাদের নাম: বিবস্বান (সূর্য), অর্য্যমা, পূষা, ত্বষ্টা, সবিতা, ভগ, ধাতা, বরুণ, মিত্র,[১৬] ইন্দ্র, অংশুমান, বিষ্ণু (ভগবান বিষ্ণু বামন অবতারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন অদিতির গর্ভে)[১৭][১৮]। তদনুসারে, ভগবান বিষ্ণু শ্রবণা নক্ষত্রের অধীনে শ্রাবণ মাসে (হিন্দু বর্ষপঞ্জীর পঞ্চম মাস, অবনী নামেও খ্যাত) অদিতির পুত্র হিসাবে বামন অবতারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।

ঋগ্বেদে, অদিতি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দেবতা। মাতৃসত্ত্বা হিসাবে যারা স্তুতি করেন, তাদের রক্ষা করতে[১৯] এবং ধন-সম্পদ ও প্রাচুর্যের সঞ্চয় করতে অদিতির নিকট প্রার্থনা জানান।[২০]

সৃজনশীলতা[সম্পাদনা]

অদিতির পারিবারিক তথ্যাদি

সাধারণত ঋগ্বেদে অন্যান্য দেবদেবীদের সাথে অদিতির উল্লেখ পাওয়া যায়। ঊষা এবং পৃথিবীর তুলনায় অদিতিকে স্রষ্টা হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা যায়।

স্বাধীনতা[সম্পাদনা]

অদিতি মানে স্বাধীনতা। অদিতি নামটিতে মূল "দ" (বাঁধতে বা আনতে) ধাতু অন্তর্ভুক্ত রয়েছে যা তার চরিত্রের আরও একটি বৈশিষ্ট্যের দিকে ইঙ্গিত করে। অ-দিতি হিসাবে তিনি একজন সীমাহীন, মুক্ত আত্মা এবং তাঁর উদ্দেশ্যে লেখা স্তোত্রাবলীতে আবেদন করা হয়ে যে আবেদককে বিভিন্ন বাধা, বিশেষত পাপ ও অসুস্থতা থেকে মুক্ত করার জন্য (মন্ডল ২.২৭.১৪)। একটি স্তোত্রে তাঁকে এমন একজন আবেদনকারীকে মুক্তি দিতে বলা হয়েছে যাকে চোরের মতো বেঁধে রাখা হয়েছে (মন্ডল ৮.৬৭.১৪)। অদিতির অন্য একটি অর্থ 'অননুকরণীয়' বা 'অনন্য'।

শক্তি[সম্পাদনা]

অদিতি বৈদিক জনগণের পুরুষতান্ত্রিকতার বিরুদ্ধে এক সোচ্চার প্রতিবাদ। অদিতিকে আকাশের দেবী এবং পৃথিবী দেবী উভয় হিসাবেই বিবেচনা করা হত, যা প্রাগৈতিহাসিক সভ্যতার জন্য খুব বিরল। বেশিরভাগ প্রাগৈতিহাসিক সভ্যতায় আকাশ পিতা এবং পৃথিবী মাতা, এই দ্বৈত নীতি প্রতি সম্মান দেখায়। অদিতিকে বৈদিক সংস্কৃতি দ্বারা প্রথম দেবতার মর্যাদা দেওয়া হয়েছিল। তিনি ঋগ্বেদে "পরাক্রমশালী" হিসাবে সম্বোধিত হন।

অন্যান্য[সম্পাদনা]

অন্যান্য বহু হিন্দু দেবদেবীদের মতো অদিতিরও রয়েছে এক পরাক্রমশালী বাহন, ফিনিক্স পাখি। তিনি এই বাহনে চড়ে অসীম আকাশ জুড়ে পর্যটন করেন। বাহনটি শক্তি এবং সম্মানের প্রতীক। তাঁর অস্ত্রগুলির মধ্যে রয়েছে বিখ্যাত ত্রিশূল এবং একটি তরবারি।

মন্দির[সম্পাদনা]

কেরালার ভিজনজামে অদিতির একটি সুপরিচিত পুরানো মন্দির রয়েছে। পাহাড়ের পাথর কেটে তৈরি গুহার কাছে মন্দিরটি অবস্থিত।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

নোট[সম্পাদনা]

টিকা[সম্পাদনা]

  1. যেভ্যো মাতা মধুমৎ পিন্বতে পয়ঃ পীযুষং দ্যৌরদিতিরদ্রিবর্হাঃ [৮] এখানে দ্যৌঃ শব্দে আকাশ বুঝানো হয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Jamison-Brereton-2015 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Mani-2015 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকায় Aditi
  4. The Secret Doctrine 2:247n
  5. "Adi-Ag: Encyclopedic Theosophical Glossary"। Theosociety.org। 
  6. Gopal, Madan (১৯৯০)। India through the ages। Publication Division, Ministry of Information and Broadcasting, Government of India। পৃষ্ঠা 62 
  7. ঋগ্বেদ, মণ্ডল ১০, সুক্ত ৬৩, ঋক্ ৩।
  8. ঋগ্বেদ ১০।৬৩।৩
  9. কৃষ্ণ যজুর্বেদ ১।১।৭।৭
  10. নিঘণ্টু ১।১
  11. Oberlies (1998:155) gives an estimate of 1100 BC for the youngest hymns in book 10. Estimates for a terminus post quem of the earliest hymns are more uncertain. Oberlies (p. 158) based on 'cumulative evidence' sets a wide range of 1700–1100
  12. "Satapatha Brahmana Part 1 (SBE12): First Kânda: I, 1, 2. Second Brâhmana"www.sacred-texts.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-২৮ 
  13. Sathyamayananda, Swami। Ancient sages। Sri Ramakrishna Math। পৃষ্ঠা 173। আইএসবিএন 81-7505-356-9 
  14. ঋগ্বেদ ২।২৭
  15. ঋগ্বেদ ১।১১৩।১৯
  16. ঋগ্বেদ ১০।৩৬।৬ ; ৮।২৫।৩ ; ১০।১৩২।৬ ; ১।৮৯।১০
  17. "Srimad Bhagavatam Canto 6 Chapter 6 Verses 38-39"। Vedabase.net। ২০ মার্চ ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৮-১৩ 
  18. হিন্দুদের দেবদেবীঃ উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ, ১ম খণ্ড । - ডঃ হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য। পৃষ্ঠা ১৩৮
  19. ঋগ্বেদ মণ্ডল ১। ১০৬ ; ৮।১৮।৬
  20. ঋগ্বেদ ১০।১০০ ; ১।৯৪।১৫

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • “দেবদত্ত ও হিন্দুধর্ম” -- বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
  • “হিন্দুদের দেবদেবীঃ উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ, ১ম খণ্ড” -- ডঃ হংসনারায়ণ ভট্টাচার্য।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

উইকিমিডিয়া কমন্সে অদিতি সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন।