মুরাবাহা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

মুরাবাহা (আরবি: مرابحة মুরাবাহাহ্‌) ইসলামী শরিয়াহ্‌ সম্মত এক প্রকারের বিক্রয় পদ্ধতি, যেখানে বিক্রেতা স্পষ্টভাবে পণ্যের ক্রয়মূল্য, পণ্যের বিক্রয়মূল্য এবং উক্ত বিক্রয় থেকে তার লব্ধ লাভের পরিমাণ ক্রেতাকে বিক্রয়ের সময় জানিয়ে দেয়। এজন্য এটি ইসলামী অর্থনীতির বাইউল আমানাহ্‌-এর (বিশ্বস্ততার ভিত্তিতে ক্রয়-বিক্রয়) একটি প্রকার। কারণ, এখানে ক্রয়মূল্য, এবং বিক্রয় মূল্য থেকে লব্ধ লাভের পরিমাণ ক্রেতার কাছে বিশ্বস্ততার সাথে বিক্রেতার উল্লেখ করতে হয়।[১] বর্তমানে মুরাবাহা সূদবিহীন ইসলামি ব্যাংকিং পদ্ধতির একটি গুরুত্বপূর্ণ এবং বহুল প্রচলিত মাধ্যম। এটি বর্তমানে সূদবিহীন ক্ষুদ্র ঋণ, পণ্য আমদানি-রফতানি এবং স্থাবর সম্পত্তি ক্রয়ের জন্য প্রদত্ত ঋণের ক্ষেত্রে বিনিয়োগের একটি মাধ্যম।

শব্দ বিশ্লেষণ[সম্পাদনা]

মুরাবাহা আরবী শব্দ। এটি আরবী রিব্‌হ্‌ (আরবী: ربح ) শব্দ থেকে নির্গত। রিব্‌হ্‌-এর শাব্দিক অর্থ লাভ। আর মুরাবাহার শাব্দিক অর্থ হলো লাভ দেয়া, ফায়দা দেয়া। ইসলামের পরিভাষায় কোনো পণ্য ক্রয় করার পর এর সাথে নির্দিষ্ট পরিমাণ মুনাফা যোগ করে পুনরায় বিক্রয় করাকে বাইয়ে মুরাবাহা বলে।[২]

সংজ্ঞা[সম্পাদনা]

মুরাবাহার সংজ্ঞা দিতে গিয়ে বাহরাইনভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা এ্যাকাউন্টিং এ্যান্ড অডিটিং অরগানাইজেশন ফর ইসলামিক ফাইনান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন্স-এর শরীয়াহ্‌ স্ট্যান্ডার্ডে বলা হয়েছে,

মুরাবাহা হলো নির্ধারিত ও সম্মত লাভের ভিত্তিতে পণ্য বিক্রি। এই লাভ বিক্রয় মূল্যের হারাহারি হতে পারে কিংবা তা 'থোক' (Lump sum) হতে পারে। কেনার ওয়াদা ছাড়া এ লেনদেন সম্পন্ন হলে তা হবে একটি সাধারণ মুরাবাহা চুক্তি। কোন আগ্রহী ব্যক্তি কোন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পণ্য কেনার জন্য আগাম পেশ করা ওয়াদাপত্রের ভিত্তিতে এ লেনদেন হলে তা ব্যাংকিং মুরাবাহা হিসেবে গণ্য হবে। এরূপ লেনদেনের প্রকৃত ক্রয়মূল্যের সাথে সাধারণ খরচাদি আলাদাভাবে উল্লেখ থাকায় এ চুক্তি স্বচ্ছতানির্ভর আস্থাভিত্তিক চুক্তিসমূহের পর্যায়ভুক্ত।

[৩] মুরাবাহার যে পদ্ধতিটি সূদবিহীন ব্যাংকিংয়ে ব্যবহৃত হয় তার সংজ্ঞা সেন্ট্রাল শরীয়াহ্‌ বোর্ড ফর ইসলামিক ব্যাংকস অব বাংলাদেশ কর্তৃক প্রণীত এবং বাংলাদেশ ব্যাংকে প্রেরিত "ইসলামী ব্যাংক কোম্পানি আইন"-এ বলা হয়েছে,

"বাই' মুরাবাহা" বলিতে এমন এ ব্যবসায়িক চুক্তি বুঝাইবে যাহার অধীনে ব্যাংক বিনিয়োগ গ্রাহকের অনুরোধে নির্ধারিত মালামাল ক্রয় করিয়া ক্রয়মূল্যের সহিত উভয়ের সম্মতির ভিত্তিতে নির্ধারিত লাভ যুক্ত করিয়া তাঁহার নিকট বিক্রয় করিবে। বিনিয়োগ গ্রাহক চুক্তির শর্তানুসারে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিক্রয়মূল্য পরিশোধ করিয়া মালামাল গ্রহণ করিতে বাধ্য থাকিবে। এই চুক্তিতে পণ্যের প্রকৃত ক্রয়মূল্য উল্লেখ করিতে হইবে।

[৪]

তথ্যসূত্র ও পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Murabaha"। ইনভেস্টোপেডিয়া ডট কম। সংগৃহীত 3 January 2014 
  2. "বাইয়ে বাতিল ও বাইয়ে ফাসিদ"। ইসলামবিকাশ ডট কম। সংগৃহীত 3 January 2014 
  3. Murabaha is selling a commodity as per the purchasing price with a defined and agreed profit mark-up. This mark-up may be a percentage of the selling price or a lump sum. This transaction may be concluded either without a prior promise to buy, in which case it is called an ordinary Murabaha, or with a prior promise to buy submitted by a person interested in acquiring goods through the institution, in which case it is called a "banking Murabaha" i.e. Murabaha to the purchase orderer. This transaction is one of the trust-based contracts that depends on transparency as to the actual purchasing price or cost price in addition to common expenses.Shariah Standards। Bahrain: Accounting and Auditing Organization for Islamic Financial Institutions (AAOIFI)। 2010। পৃ: ১২৭। আইএসবিএন 9990123071 
  4. মোহাম্মদ আবদুল মান্নান (২০১৩)। ইসলামী ব্যাংকব্যবস্থা। ঢাকা: সেন্ট্রাল শরীয়াহ্‌ বোর্ড ফর ইসলামিক ব্যাংকস অব বাংলাদেশ। পৃ: ১৪৩–১৪৫। আইএসবিএন 9843000006853 

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]