সুপ্রিয়া পিলগাঁওকর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুপ্রিয়া পিলগাঁওকর
SupriyaPilgaonkar.jpg
একটি অনুষ্ঠানে সুপ্রিয়া পিলগাঁওকর
জন্ম
সুপ্রিয়া সবনিস

(1967-08-17) ১৭ আগস্ট ১৯৬৭ (বয়স ৫২)[১]
জাতীয়তাভারতীয়
পেশাঅভিনেত্রী, চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক
দাম্পত্য সঙ্গীশচীন পিলগাঁওকর (বি. ১৯৮৫)
সন্তানশ্রিয়া পিলগাঁওকর

সুপ্রিয়া পিলগাঁওকর (জন্ম: ১৭ই আগস্ট ১৯৬৭;[১] প্রায়শই তাঁর পর্দার নাম সুপ্রিয়া দিয়ে পরিচিত) হলেন হিন্দি এবং মারাঠি ভাষার অভিনেত্রী। তিনি হিন্দি এবং মারাঠি অভিনয় জগতের পরিচিত মুখ শচীন পিলগাঁওকরের স্ত্রী।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

সুপ্রিয়া ১৯৬৭ সালের ১৭ই আগস্ট তারিখে ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বইয়ের একটি মহারাষ্ট্রীয় ব্রাহ্মণ পরিবারে "সুপ্রিয়া সবনিস" নামে জন্মগ্রহণ করেছেন। শচীন পিলগাঁওকর পরিচালিত নাভরি মিলে নাভ্রায়লা নামক মারাঠি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সময়, শচীনের সাথে তাঁর সর্বপ্রথম দেখা হয়েছিল। ১৯৮৫ সালে তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন, উক্ত সময়ে সুপ্রিয়ার বয়স মাত্র ১৮ ছিল।[২] তাদের দুজনের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে, যার নাম শ্রিয়া পিলগাঁওকর; তিনি একজন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১২ সালে স্বামী শচীন পিলগাঁওকরের সাথে সুপ্রিয়া

সুপ্রিয়া পিলগাঁওকর তাঁর অভিনয় জীবনে বেশ কয়েকটি টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন; যার মধ্যে তু তু ম্যঁয় ম্যঁয়, কুছ রং প্যায়ার কে অ্যায়সে ভি, শশুরাল গেন্দা ফুল, রাধা কি বেটিয়াঁ কুছ কর দিখায়েগী এবং কড়ভী খাট্টী মিঠী উল্লেখযোগ্য। তিনি ১৯৯২ সালে ডিডি ন্যাশনালে প্রচারিত টেলিভিশন ধারাবাহিক শিতিজ ইয়ে নাহিতে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনয় এবং একই সাথে টেলিভিশন জগতে পদার্পণ করেন; উক্ত ধারাবাহিকে তিনি নিশা নামক চরিত্রে অভিনয় করেছেন। অতঃপর ১৯৯৪ সালে, তু তু ম্যঁয় ম্যঁয় এক শাশুড়ি এবং পুত্রবধূর মধ্যে পার্থক্য এবং স্নেহের এক হাস্যরসাত্মক চিত্রায়নে অভিনয় করেছিলেন। উক্ত ধারাবাহিকে পিলগাঁওকর পুত্রবধূর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তু তু ম্যঁয় ম্যঁয়-এর দ্বিতীয় সংস্করণ কড়ভী খাট্টী মিঠী-তে তিনি এক নতুন চরিত্রে অভিনয় করেছেন; পূর্বের বিপরীত অর্থাৎ এবার তিনি শাশুড়ির চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ২০১১ সালে, তিনি স্টার প্লাসে প্রচারিত কৌতুক অনুষ্ঠান কমেডি কা মহা মুকাবলায় একজন প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন; যেখানে তিনি "শেখর কে মুভারস" দলের একজন সদস্য ছিলেন।

মারাঠি চলচ্চিত্রেও সুপ্রিয়ার বেশ উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে। তিনি তাঁর অভিনীত চলচ্চিত্রের মধ্যে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে তাঁর স্বামী শচীন পিলগাঁওকরের সাথে অভিনয় করেছেন; সেগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো: নাভরি মিলে নাভ্রায়লা, মাঝা পতি করোড়পতি, আশী হি বানওয়া বানভী, আত্যা ঘরত ঘরোবা। এই চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি ব্যবসায়িক দিক থেকে সফল। এছাড়াও পিলগাঁওকর আওয়ারা পাগল দিওয়ানা, এতবার, দিওয়ানে হুয়ে পাগল, বরসাতের মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

২০০৫ সালে, সুপ্রিয়া এবং শচীন স্টার ওয়ানে প্রচারিত জনপ্রিয় নৃত্য অনুষ্ঠান নাচ বলিয়ের প্রথম মরশুমে একসাথে প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলেন; সেখানে তাঁরা বিজয়ী হয়েছিলেন।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Sharma, Sarika (১৭ আগস্ট ২০১৬)। "TV actress Supriya Pilgaonkar turns 49, daughter sends a yummilicious cake"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-২৩ 
  2. "Staying in step with Sachin and Supriya"The Telegraph। Calcutta, India। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-২৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]