সালমান বিন আবদুল আজিজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
সালমান
সৌদি আরবের বাদশাহ
সৌদি আরবের প্রধানমন্ত্রী
দুই পবিত্র মসজিদের খাদেম
Salman bin Abdull aziz December 9, 2013.jpg
২০১৩ সালে সালমান
সৌদি আরবের বাদশাহ
রাজত্ব জানুয়ারি ২৩, ২০১৫ – বর্তমান
Bay'ah জানুয়ারি ২৩, ২০১৫
পূর্বসূরী আবদুল্লাহ বিন আবদুল আজিজ
উত্তরসুরি ঘোষণা মুকরিন বিন আবদুল আজিজ (২০১৫)
মুহাম্মদ বিন নায়েফ (২০১৫–২০১৭)
মুহাম্মদ বিন সালমান ২০১৭–বর্তমান
জন্ম (১৯৩৫-১২-৩১) ৩১ ডিসেম্বর ১৯৩৫ (বয়স ৮১)
রিয়াদ, সৌদি আরব
পূর্ণ নাম
সালমান বিন আবদুল আজিজ বিন আবদুর রহমান বিন ফয়সাল বিন তুর্কি বিন আব্দুল্লাহ বিন মোহাম্মদ বিন সৌদ
রাজবংশ আল সৌদ
পিতা আবদুল আজিজ ইবনে সৌদ
মাতা হাসসা আল সৌদাইরি
ধর্ম ইসলাম (সুন্নি)

সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ (ইংরেজি: Salman bin Abdulaziz Al Saud, আরবি: سلمان ابن عبد العزيز آل سعود‎, Salmān bin ʻAbd al-ʻAzīz Āl Saʻūd, ; জন্মঃ ডিসেম্বর ৩১, ১৯৩৫) হলেন সৌদি আরবের বাদশাহ, দুই পবিত্র মসজিদের খাদেম এবং আল সৌদের প্রধান। তিনি ২০১১ সাল থেকে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন তারও আগে ১৯৬৩ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত রিয়াদ প্রদেশের গভর্ণর নিযুক্ত ছিলেন। সালমান জানুয়ারি ২৩, ২০১৫ তারিখে তার সৎভাই বাদশাহ আবদুল্লাহ বিন আবদুল আজিজের স্থলাভিষিক্ত হন।[১][২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

সালমান ডিসেম্বর ৩১, ১৯৩৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন।[৩] তিনি ইবনে সৌদের ২৫তম সন্তান।[৩][৪] তার মায়ের নাম হাসসা আল সৌদাইরি[৫] সালমান এবং তার ছয় ভাই সৌদাইরি সেভেন হিসেবে পরিচিত।[৬] তিনি রিয়াদের ঐতিহাসিক মুরাব্বা প্রাসাদে বেড়ে ওঠেন।

সালমান রাজধানী রিয়াদের প্রিন্স স্কুলে প্রাথমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেন। এই বিদ্যালয়টি ইবনে সৌদ কর্তৃক শুধুমাত্র তার সন্তানদের শিক্ষাদানের উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল।[৭] তিনি ধর্ম ও আধুনিক বিজ্ঞান বিষয়ে পড়াশুনা করেন।[৮]

প্রাথমিক অভিজ্ঞতা[সম্পাদনা]

সালমান শাসনকার্যের অভিজ্ঞতা লাভ করেন মাত্র ১৮ বছর বয়সে, যখন তার পিতা মার্চ ১৭, ১৯৫৪ সালে তাকে একজন আমির এবং রিয়াদের সহকারী গভর্ণর নিযুক্ত করেন।[৩][৮] পরবর্তিতে এপ্রিল ১৯, ১৯৫৫ সালে তিনি মন্ত্রী পদমর্যাদায় রিয়াদের গভর্ণর নিযুক্ত হন।[৩][৮] সালমান ডিসেম্বর ২৫, ১৯৬০ সালে এই দায়িত্ব পরিত্যাগ করেন।[৭]

রিয়াদের শাসনকর্তা[সম্পাদনা]

২০০৭ সালে গভর্ণর সালমান এবং ভ্লাদিমির পুতিন

সালমান ফেব্রুয়ারি ৪, ১৯৬৩ সালে রিয়াদ প্রদেশের গভর্ণর নিযুক্ত হন।[৭] গভর্নর হিসেবে তিনি রিয়াদের উন্নয়নে অবদান রাখেন। তিনি তার দেশের পর্যটন রাজধানী প্রকল্প এবং বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ মৈত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি পশ্চিম সঙ্গে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক উন্নয়নে ও বিশেষ অবদান রাখেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

যৌবনে সালমান

সালমান বিন আব্দুল আজিজ তিনবার বিবাহ করেন। তার প্রথম স্ত্রী সুলতানা বিনতে তুর্কি আল সৌদাইরি যিনি, জুলাই ২০১১ সালে ৭১ বছর বয়সে মারা যান, এবং ছিলেন তার মামা আসির প্রদেশের সাবেক গভর্ণর তুর্কি বিন আহমদ আল সৌদাইরির কন্যা।[৯][১০][১১][১১][১২] সুলতানা ছিলেন সালমানের বিভিন্ন দাতব্য কার্যক্রমের অনুপ্রেরণা।[১৩] এই পরিবারের সালমানের সন্তানরা হলেন, প্রিন্স ফাহাদ, প্রিন্স আহমদ, প্রিন্স সুলতান, প্রিন্স আব্দুল আজিজ, প্রিন্স ফয়সাল এবং প্রিন্সেস হাসসা[১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Martin, Douglas; Hubbard, Ben। "King Abdullah, Who Nudged Saudi Arabia Forward, Dies at 90"New York Times। সংগৃহীত জানুয়ারি ২৩, ২০১৫ 
  2. "Saudi Arabia's King Abdullah dies"BBC News Middle East। সংগৃহীত জানুয়ারি ২৩, ২০১৫ 
  3. "Profile: New Saudi Defense Minister Prince Salman Bin Abdulaziz"Asharq Alawsat। ৬ নভেম্বর ২০১১। সংগৃহীত ১২ মে ২০১২ 
  4. Andelman, David A. (৩০ মে ২০১২)। "Letter From Arabia III: Paranoia, or We’re Surrounded!"World Policy Blog। সংগৃহীত ৭ জুন ২০১২ 
  5. Winberg Chai (২২ সেপ্টেম্বর ২০০৫)। Saudi Arabia: A Modern Reader। University Press। পৃ: ১৯৩। আইএসবিএন 978-0-88093-859-4। সংগৃহীত ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  6. "An Heir to the Kingdom: New Crown Prince Salman"The Diplomat 35: 8–11। জুলাই–আগস্ট ২০১২। সংগৃহীত ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  7. "His royal highness Prince Salman bin Abdulaziz"। Ministry of Interior। সংগৃহীত ১২ মে ২০১২ 
  8. "Ministers with portfolio"। Saudi Embassy, Washington DC। সংগৃহীত ১৯ জুন ২০১২ 
  9. "Prince Sulayman Named Saudi ‘Crown Prince’"Arab Times (Riyadh)। ১৮ জুন ২০১২। সংগৃহীত ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  10. "Princess Sultana"Eugene Register Guard। ১৯ জুন ১৯৮৩। সংগৃহীত ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  11. "Sultana, wife of Riyadh Emir, passes away"Saudi Gazette। ৩ আগস্ট ২০১১। সংগৃহীত ২৬ মে ২০১২ 
  12. "Sultana bint Ahmad bin Muhammad al Sudairi"Datarabia। সংগৃহীত ৮ মে ২০১২ 
  13. "Kingdom mourns loss of princess"The Siasat Daily। ৩ আগস্ট ২০১১। সংগৃহীত ২৬ মে ২০১২