জো বাইডেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জো বাইডেন
Joe Biden
Joe Biden official portrait 2013.jpg
দাপ্তরিক পোট্রেট, ২০১৩
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২০ জানুয়ারি ২০২১
উপরাষ্ট্রপতিকমলা হ্যারিস (নির্বাচিত)
উত্তরসূরীডোনাল্ড ট্রাম্প
৪৭তম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপরাষ্ট্রপতি
কাজের মেয়াদ
২০ জানুয়ারি ২০০৯ – ২০ জানুয়ারি ২০১৭
রাষ্ট্রপতিবারাক ওবামা
পূর্বসূরীডিক চেনি
উত্তরসূরীমাইক পেন্স
ডেলাওয়্যার থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট
কাজের মেয়াদ
১৩ জানুয়ারি ১৯৭৩ – ১৫ জানুয়ারি ২০০৯
পূর্বসূরীজে. ক্যালেব বগস
উত্তরসূরীটেড কফম্যান
বৈদেশিক সম্পর্ক বিষয়ক সিনেট কমিটির প্রধান
কাজের মেয়াদ
৩ জানুয়ারি ২০০৭ – ৩ জানুয়ারি ২০০৯
পূর্বসূরীরিচার্ড লুগার
উত্তরসূরীজন কেরি
কাজের মেয়াদ
৬ জুন ২০০১ – ৩ জানুয়ারি ২০০৩
পূর্বসূরীজেসি হেমস
উত্তরসূরীরিচার্ড লুগার
কাজের মেয়াদ
৩ জানুয়ারি ২০০১ – ২০ জানুয়ারি ২০০১
পূর্বসূরীজেসি হেমস
উত্তরসূরীজেসি হেমস
আন্তর্জাতিক মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কাউকাসের প্রধান
কাজের মেয়াদ
৩ জানুয়ারি ২০০৭ – ৩ জানুয়ারি ২০০৯
পূর্বসূরীচাক গ্র্যাসলি
উত্তরসূরীডায়ান ফেইনস্টেইন
সিনেট জুডিশিয়ারি কমিটির প্রধান
কাজের মেয়াদ
৩ জানুয়ারি ১৯৮৭ – ৩ জানুয়ারি ১৯৯৫
পূর্বসূরীস্ট্রম থারমন্ড
উত্তরসূরীওরিন হ্যাচ
৪৬ তম
কাজের মেয়াদ
৪ নভেম্বর ১৯৭০ – ৮ নভেম্বর ১৯৭২
পূর্বসূরীহেনরি ফলসম
উত্তরসূরীফ্রান্সিস সুইফট
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মজোসেফ রবিনেট বাইডেন জুনিয়র
(1942-11-20) ২০ নভেম্বর ১৯৪২ (বয়স ৭৮)
স্ক্র্যান্টন, পেন্সিলভেনিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
রাজনৈতিক দলডেমোক্র্যাটিক
দাম্পত্য সঙ্গীনেইলিয়া হান্টার
(বি. ১৯৬৬; মৃ. ১৯৭২)

জিল জ্যাকবস (বি. ১৯৭৭)
সন্তান
পিতামাতা
  • জোসেফ আর. বাইডেন সিনিয়র
  • ক্যাথরিন ইউজেনিয়া ফিনেগান
আত্মীয়স্বজনএডওয়ার্ড ফ্রান্সিস ব্লেউইট
(প্র-পিতামহ)
শিক্ষাডেলাওয়্যার বিশ্ববিদ্যালয় (বিএ)
সিরাকিউজ বিশ্ববিদ্যালয় (জেডি)
পেশা
  • রাজনীতিবিদ
  • আইনজীবী
  • লেখক
পুরস্কারসম্মাননাসহ প্রেসিডেনশিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম (২০১৭)
স্বাক্ষর
ওয়েবসাইটপ্রচারণার ওয়েবসাইট

জোসেফ রবিনেট বাইডেন জুনিয়র ( জন্ম ২০ নভেম্বর , ১৯৪২) একজন মার্কিন রাজনীতিবিদ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি । ২০২০সালের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরাজিত করার পর ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে তিনি ৪৬তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে উদ্বোধন করবেন। ডেমোক্রেটিক পার্টির একজন সদস্য বাইডেন এর আগে ২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ৪৭তম ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং ১৯৭৩ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ডেলাওয়্যারের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

স্ক্র্যানটন, পেনসিলভানিয়া এবং নিউ ক্যাসেল কাউন্টি, ডেলাওয়্যারে বেড়ে ওঠা বাইডেন ১৯৬৮ সালে সিরাকিউজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন ডিগ্রী অর্জন করার আগে ডেলাওয়্যার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তিনি ১৯৭০ সালে নিউ ক্যাসেল কাউন্টি কাউন্সিলর নির্বাচিত হন । তিনি ১৯৭২ সালে মাত্র ২৯ বছর বয়সে আমেরিকার ইতিহাসে ষষ্ঠ সর্বকনিষ্ঠ সিনেটর ডেলাওয়্যার থেকে মার্কিন সিনেটে নির্বাচিত হন । বাইডেন সিনেটের বৈদেশিক সম্পর্ক কমিটির দীর্ঘদিনের সদস্য ছিলেন এবং অবশেষে এর চেয়ারম্যান ও নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি ১৯৯১ সালে উপসাগরীয় যুদ্ধের বিরোধিতা করেন, কিন্তু পূর্ব ইউরোপে ন্যাটো জোট সম্প্রসারণ এবং ১৯৯০ সালে যুগোস্লাভ যুদ্ধে হস্তক্ষেপ সমর্থন করেন। তিনি ২০০২ সালে ইরাক যুদ্ধ অনুমোদন প্রস্তাব সমর্থন করেন, কিন্তু ২০০৭ সালে মার্কিন সৈন্য বৃদ্ধির বিরোধিতা করেন। তিনি ১৯৮৭ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত সিনেটের বিচার বিভাগীয় কমিটির সভাপতিত্ব করেন, মাদক নীতি, অপরাধ প্রতিরোধ এবং নাগরিক স্বাধীনতা বিষয়ক বিষয় নিয়ে কাজ করেন; তিনি সহিংস অপরাধ নিয়ন্ত্রণ এবং আইন প্রয়োগকারী আইন এবং নারী নির্যাতন আইনপাস করার প্রচেষ্টার নেতৃত্ব দেন । তিনি ছয়টি মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের নিশ্চিতকরণ শুনানি তত্ত্বাবধান করেন, যার মধ্যে রবার্ট বোর্ক এবং ক্লারেন্স থমাসের বিতর্কিত শুনানি রয়েছে । তিনি ১৯৮৮ ও ২০০৮ সালে রাষ্ট্রপতি মনোনয়ন চাইলেও পাননি ।

বাইডেন ছয়বার সিনেটে পুনর্নির্বাচিত হন, এবং চতুর্থ সর্বোচ্চ সিনেটর ছিলেন । তিনি ২০০৮ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়লাভের পর বারাক ওবামার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ওবামা এবং বাইডেন ২০১২ সালে পুনর্নির্বাচিত হন। ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে, বাইডেন মহা মন্দা প্রতিরোধে 2009 সালে অবকাঠামো ব্যয় তত্ত্বাবধান করেন। কংগ্রেশনাল রিপাবলিকানদের সাথে তার সমঝোতা ২০১০ সালের কর ত্রাণ আইন সহ আইন পাশ করতে সাহায্য করেছে, যা কর অচলাবস্থার সমাধান করেছে; ২০১১ সালের বাজেট নিয়ন্ত্রণ আইন,যা ঋণের ঊর্ধ্বসীমা সংকটের সমাধান করেছে। । তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া নতুন সূচনা চুক্তিপাস করার প্রচেষ্টা, লিবিয়ায় সামরিক হস্তক্ষেপসমর্থন, এবং ২০১১ সালে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের মাধ্যমে ইরাকের প্রতি মার্কিন নীতি প্রণয়নে সহায়তা করেন। স্যান্ডি হুক প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলি করার পর তিনি বন্দুক সহিংসতা টাস্ক ফোর্স নেতৃত্ব দেন। ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে ওবামা বাইডেনকে স্বাধীনতার রাষ্ট্রপতি পদক প্রদান করেন।

২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে বাইডেন ২০২০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের[১] প্রার্থীতা ঘোষণা করেন এবং তিনি ২০২০ সালের জুন দলের মনোনয়ন নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিনিধির সীমায় পৌঁছান। ১১ আগস্ট তিনি ক্যালিফোর্নিয়ার মার্কিন সিনেটর কমলা হ্যারিসকে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেন। বাইডেন ৩ নভেম্বর [২] প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়লাভ করেন। তিনি শুধুমাত্র দ্বিতীয় অ-ক্ষমতাসীন উপরাষ্ট্রপতি যিনি ১৯৬৮ সালে রিচার্ড নিক্সন[৩] ছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।


২০২০-এর রাষ্ট্রপতিত্বের প্রচারাভিযান[সম্পাদনা]

অনুমান ও ঘোষণা[সম্পাদনা]

২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যম বাইডেনকে ২০২০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে উল্লেখ করে।[৪] তাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বিবিধ ও বিপরীতার্থক উত্তর প্রদান করতেন এবং বলতেন, "কখনোই কখনো না বলবেন না"।[৫] একবার তিনি বলেন তিনি পুনরায় নির্বাচন করবেন এমন সম্ভাবনা দেখছেন না,[৬][৭] কিন্তু কিছুদিন পর তিনি বলেন, "আমি যদি হাটতে পারি তাহলে নির্বাচন করবো।"[৮] ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে এই নির্বাচনে বাইডেনের অংশগ্রহণ চেয়ে টাইম ফর বাইডেন নামে একটি রাজনৈতিক কর্মসূচি কমিটি গঠিত হয়।[৯]

প্রচারাভিযান[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১৫ই জুলাই অমুনাফাভোগী বাইডেন ক্যানসার ইনিশিয়েটিভ পূর্বপরিজ্ঞেয় ভবিষ্যতের জন্য তাদের কার্যক্রম স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয়। রাষ্ট্রপতিত্বের প্রচারাভিযানের পূর্বে নৈতিক পূর্বসতর্কতা হিসেবে বাইডেন ও তার স্ত্রী এপ্রিলে এই ইনিশিয়েটিভের বোর্ড সদস্যের পদ ছেড়ে দেন।[১০]

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয় যে রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলদিমির জেলেন্‌স্কিকে বাইডেন ও তার পুত্র হান্টার বাইডেনের অপকর্মের বিরুদ্ধে তদন্ত করার জন্য চাপ দেন।[১১] ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর নাগাদ অভিযোগ সত্ত্বেও তাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার অপকর্মের প্রমাণ পাওয়া যায় নি।[১২] গণমাধ্যম তাদের কাজের তদন্তের জন্য চাপ দেওয়াকে বাইডেনের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন জয়ের সুযোগকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা বলে উল্লেখ করে, যার ফলে রাজনৈতিক কেলেঙ্কারির সূত্রপাত হয়[১৩][১৪] এবং হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভ ট্রাম্পকে অভিশংসিত করে।

২০২০ সালের ১৮ই আগস্ট ২০২০-এর ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কনভেনশনে বাইডেন দাপ্তরিকভাবে ২০২০-এর রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনীত হন।[১৫][১৬][১৭]

২০শে আগস্ট ৭০ জন সাবেক রিপাবলিকান সিনিয়র জাতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তা "ট্রাম্প জাতীয় সংকটকালে নেতৃত্ব দিতে অনুপযুক্ত ছিলেন" এই মর্মে বাইডেনকে ভোট দেওয়ার ঘোষণা দেন।[১৮]

সর্বোচ্চ ভোটারপ্রিয় প্রার্থী[সম্পাদনা]

২০০৮ সালের নির্বাচনে ডেমোক্র‌্যাট প্রার্থী বারাক ওবামা ৬ কোটি ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার ৫শ’র বেশী ভোট[১৯][২০][২১] পেয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী ভোটারপ্রিয় প্রার্থী ছিলেন। এবারের ২০২০ সালের নির্বাচনে একই দলের প্রার্থী জো বাইডেন ৭ কোটি ২১ লাখ ৫৭ হাজারেরও বেশী ভোট পেয়ে  সর্বোচ্চ ভোটারপ্রিয়তার স্বাক্ষর রাখলেন।[২২] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে শুন্য ভোট পাওয়ার রেকর্ড থাকলেও এখন পর্যন্ত এত বেশি ভোট পেয়ে কোনো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হননি। তবে জনপ্রিয়তার বিবেচনায়, ১৭৮৮ সাল এবং ১৭৯২ সালের উভয় নির্বাচনে ইলেক্টোরাল ও পপুলার, উভয় ভোটেই নির্দলীয় প্রার্থী জর্জ ওয়াশিংটনের শতভাগ ভোটপ্রাপ্তিই একমাত্র বিরল ঘটনা। পরবর্তীতে কোন প্রার্থী কোন ভোটের কোন পদ্ধতিতেই শতভাগ ভোট পাননি।[২৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Biden closes on US Democratic 2020 nomination"Emerald Expert Briefings। ২০২০-০৩-১৮। আইএসএসএন 2633-304Xডিওআই:10.1108/oxan-es251415 
  2. "Why Nature supports Joe Biden for US president"Nature586 (7829): 335–335। ২০২০-১০-১৪। আইএসএসএন 0028-0836ডিওআই:10.1038/d41586-020-02852-x 
  3. Tollefson, Jeff (২০২০-১১-০৭)। "Scientists relieved as Joe Biden wins tight US presidential election"Natureআইএসএসএন 0028-0836ডিওআই:10.1038/d41586-020-03158-8 
  4. মেমোলি, মাইকেল (ডিসেম্বর ৫, ২০১৬)। "Joe Biden wouldn't count out a 2020 run for president. But he was asked in an emotional moment"লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  5. রাইট, ডেভিড (ডিসেম্বর ৭, ২০১৬)। "Biden stokes 2020 buzz on Colbert: 'Never say never'"সিএনএন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  6. ল্যাং, ক্যাডি (ডিসেম্বর ৭, ২০১৬)। "Joe Biden Discussed Running in 2020 With Stephen Colbert: 'Never Say Never'"টাইম (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  7. Revesz, Rachael (জানুয়ারি ১৩, ২০১৭)। "Joe Biden: I will not run for president in 2020 but I am working to cure cancer"দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  8. অল্টার, জোনাথন (জানুয়ারি ১৭, ২০১৭)। "Joe Biden: 'I Wish to Hell I'd Just Kept Saying the Exact Same Thing'"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  9. শার্নেৎস্কি, তোরি (জানুয়ারি ১০, ২০১৮)। "New Quad City Super PAC: "Time for Biden"" (ইংরেজি ভাষায়)। ডব্লিউভিআইকে। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  10. ব্রাউন, স্টিফেন (জুলাই ১৫, ২০১৯)। "Biden cancer nonprofit suspends operations indefinitely"অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (ইংরেজি ভাষায়)। জুলাই ১৫, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  11. ক্র্যামার, অ্যান্ড্রু ই. (সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯)। "Ukraine Pressured on U.S. Political Investigations"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  12. একাধিক সূত্র:
    • ইসাচেনকভ, ভ্লাদিমির (সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯)। "Ukraine's prosecutor says there is no probe into Biden" (ইংরেজি ভাষায়)। অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০Though the timing raised concerns among anti-corruption advocates, there has been no evidence of wrongdoing by either the former vice president or his son. 
    • "White House 'tried to cover up details of Trump-Ukraine call'"বিবিসি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০There is no evidence of any wrongdoing by the Bidens. 
    • টিম, জেন (সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯)। "There's no evidence for Trump's Biden-Ukraine accusations. What really happened?"এনবিসি নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০But despite Trump's continued claims, there's no evidence of wrongdoing on the part of either Biden. 
  13. কালিসন, অ্যালান; বলহাউস, রেবেকা; ভলজ, ডাস্টিন (সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৯)। "Trump Repeatedly Pressed Ukraine President to Investigate Biden's Son"দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  14. ম্যাকিনন, অ্যামি (সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯)। "Is Trump Trying to Get Ukraine to Take Out Biden for Him?"ফরেন পলিসি (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  15. "DNC Nominates Joe Biden to Lead Nation Through Pandemic"দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল (ইংরেজি ভাষায়)। আগস্ট ১৮, ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  16. "Joe Biden officially becomes the Democratic Party's nominee on convention's second night"দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট (ইংরেজি ভাষায়)। আগস্ট ১৯, ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  17. শুলৎজ, মারিসা (আগস্ট ১৮, ২০২০)। "Democrats formally nominate Joe Biden for president in virtual roll call"ফক্স নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  18. স্যাঙ্গার, ডেভিড ই. (আগস্ট ২০, ২০২০)। "Top Republican National Security Officials Say They Will Vote for Biden"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২০ 
  19. "2008 United States presidential election"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৫। 
  20. "United States presidential election"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৫। 
  21. "Presidential Election of 2008"270toWin.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৫ 
  22. "List of United States presidential elections by popular vote margin"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৫। 
  23. "List of United States presidential elections by popular vote margin"Wikipedia (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১১-০৫। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]