রণেশ মৈত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রণেশ মৈত্র
জন্ম(১৯৩৩-১০-০৪)৪ অক্টোবর ১৯৩৩
যেখানের শিক্ষার্থীএডওয়ার্ড কলেজ
পেশাসাংবাদিক, কলামিস্ট, রাজনীতিবিদ
পুরস্কারএকুশে পদক (২০১৮)

রণেশ মৈত্র (৪ অক্টোবর ১৯৩৩)[১] হলেন একজন বাংলাদেশী সাংবাদিক, কলামিস্ট, ও রাজনীতিবিদ। তিনি দৈনিক সত্যযুগ, দৈনিক সংবাদ, ডেইলি মর্নিং নিউজ এবং দৈনিক অবজারভারে সাংবাদিকতা করেন। তিনি দি নিউ নেশনের মফস্বল সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য তিনি ২০১৮ সালে বাংলাদেশ সরকার প্রদত্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত হন।[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মৈত্র ১৯৩৩ সালের ৪ঠা অক্টোবর রাজশাহী জেলায় তার নানার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা রমেশ মৈত্র ছিলেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। তিনি ১৯৫০ সালে জিসিআই স্কুল থেকে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করেন। পরে পাবনা এডওয়ার্ড কলেজ থেকে ১৯৫৫ সালে আইএ এবং ১৯৫৯ সালে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মৈত্র ১৯৫১ সালে সিলেট থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক নওবেলাল পত্রিকায় সাংবাদিকতার মধ্য দিয়ে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরে তিনি কলকাতা থেকে প্রকাশিত দৈনিক সত্যযুগে তিন বছর সাংবাদিকতা করার পর ১৯৫৫ সালে দৈনিক সংবাদে যোগ দেন। তিনি ১৯৬১ সালে ডেইলি মর্নিং নিউজ এবং ১৯৬৭ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত দৈনিক অবজারভারে পাবনা প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯২ সালে দি নিউ নেশনের মফস্বল সম্পাদকের দায়িত্ব পালনের পর ১৯৯৩ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তিনি দি ডেইলি স্টারের পাবনা প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে একজন ফ্রি-ল্যান্স সাংবাদিক হিসেবে দেশের শীর্ষ পত্রপত্রিকায় কলাম লিখেছেন।[১]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সাংবাদিক ও কলামিস্ট রণেশ মৈত্রর ৮৩তম জন্মদিন আজ"এনটিভি অনলাইন। ৪ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  2. "একুশে পদক পাচ্ছেন একুশ গুণী"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৯