ব্যাসিল র‍্যাথবোন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ব্যাসিল র‍্যাথবোন
Basil Rathbone
Basil Rathbone in Tovarich trailer.jpg
টোভারিচ (১৯৩৭)-এর ট্রেইলারে র‍্যাথবোন
জন্ম
ফিলিপ সেন্ট জন ব্যাসিল র‍্যাথবোন

(১৮৯২-০৬-১৩)১৩ জুন ১৮৯২
মৃত্যু২১ জুলাই ১৯৬৭(1967-07-21) (বয়স ৭৫)
সমাধিফার্নক্লিফ সেমেটারি শ্রাইন অব মেমোরিজ, হার্টসডেল, নিউ ইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
পেশাঅভিনেতা
কর্মজীবন১৯১১-১৯৬৭
দাম্পত্য সঙ্গীইথেল ম্যারিয়ান ফোরম্যান
(বি. ১৯১৪; বিচ্ছেদ. ১৯২৬)

ওইডা বেরগের
(বি. ১৯২৬; মৃ. ১৯৬৭)
সন্তান
আত্মীয়স্যার ফ্রাঙ্ক বেনসন (cousin)

ফিলিপ সেন্ট জন ব্যাসিল র‍্যাথবোন এমসি (ইংরেজি: Philip St. John Basil Rathbonel ১৩ জুন ১৮৯২ - ২১ জুলাই ১৯৬৭) ছিলেন একজন ইংরেজ অভিনেতা। তিনি শেকসপিয়ারীয় মঞ্চ অভিনেতা হিসেবে যুক্তরাজ্যে প্রসিদ্ধি অর্জন করেন এবং সত্তরের অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তার সবচেয়ে বিখ্যাত চরিত্র হল ১৯৩৯ থেকে ১৯৪৬ সালে নির্মিত ১৪টি চলচ্চিত্র ও একটি বেতার ধারাবাহিকে শার্লক হোমস চরিত্র।

র‍্যাথবোন ডেভিড কপারফিল্ড (১৯৩৫)-এ মিস্টার মার্ডস্টোন, রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট (১৯৩৬)-এ টাইবাল্ট এবং দি অ্যাডভেঞ্চার অব রবিন হুড (১৯৩৮)-এ গিসবোর্নের স্যার গাই-সহ একাধিক খলচরিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট (১৯৩৬) ও ইফ আই অয়ার কিং (১৯৩৮) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। পরবর্তীকালে তিনি ব্রডওয়ে মঞ্চে এবং টেলিভিশনেও অভিনয় করেছেন। তিনি ১৯৪৮ সালে দি এয়ারেস নাটকে অভিনয়ের জন্য মঞ্চনাটকে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে টনি পুরস্কার অর্জন করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

র‍্যাথবোন ১৮৯২ সালের ১৩ই জুন দক্ষিণ আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রের জোহানেসবার্গে জন্মগ্রহণ করেন।[১] তার পিতা এডগার ফিলিপ র‍্যাথবোন লিভারপুলের র‍্যাথবোন পরিবারের সদস্য ও একজন খনিজ প্রকৌশলী ছিলেন এবং মাতা অ্যানা বারবারা (জন্ম: জর্জ) একজন বেহালাবাদক ছিলেন। তার দুই সৎ বড় ভাই হ্যারল্ড ও হোরাস এবং দুই ছোট ভাইবোন বিয়াত্রিচ ও জন। ব্যাসিল প্রখ্যাত ভিক্টোরীয় মানবহিতৈষী পঞ্চম উইলিয়াম র‍্যাথবোনের প্র-পৌত্র এবং দ্বিতীয় উইলিয়াম র‍্যাথবোনের বংশধর।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

র‍্যাথবোন ১৯২১ সালে নির্বাক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে আগমন করেন। ১৯৩০-এর দশকে র‍্যাথবোন ডেভিড কপারফিল্ড (১৯৩৫)-এ নাম চরিত্রের সৎবাবা মিস্টার মার্ডস্টোন, আন্না কারেনিনা (১৯৩৫)-এ আন্নার স্বামী কারেনিন, দ্য লাস্ট ডেজ অব পম্পেই (১৯৩৫)-এ পন্তিউস পিলাতে, ক্যাপ্টেন ব্লাড (১৯৩৫), আ টেল অব টু সিটিজ (১৯৩৫)-এ মার্কেস সেন্ট এভ্রমঁদ, দি অ্যাডভেঞ্চার অব রবিন হুড (১৯৩৮)-এ গিসবোর্নের স্যার গাই, দি অ্যাডভেঞ্চার অব মার্কো পোলো (১৯৩৮) এবং দ্য মার্ক অব জরো (১৯৪০)-এ ক্যাপ্টেন এস্তেবান পাস্কেল-সহ অসংখ্য খল চরিত্রে অভিনয় করেন। এছাড়া তিনি হলিউডের শুরুর দিকের ভীতিপ্রদ চলচ্চিত্র টাওয়ার অব লন্ডন (১৯৩৯)-এ রাজা তৃতীয় রিচার্ড এবং সন অব ফ্রাঙ্কেনস্টাইন (১৯৩৯)-এ ব্যারন উল্‌ফ ভন ফ্রাঙ্কেনস্টাইন চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

তিনি রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট (১৯৩৬) চলচ্চিত্র টাইবাল্ট চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি ইফ আই অয়ার কিং (১৯৩৮) চলচ্চিত্রে রাজা একাদশ লুই চরিত্রে হাস্যরসাত্মক অভিনয়ের জন্য দ্বিতীয়বার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

তিনি দি এয়ারেস নাটকে অভিনয়ের জন্য মঞ্চনাটকে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে টনি পুরস্কার অর্জন করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "South Africa, Church of the Province of South Africa, Parish Registers, 1801-2004," database with images, FamilySearch (https://familysearch.org/ark:/61903/1:1:QVSH-SB15 : 16 August 2019), Philip St John Basil Rathbone, 26 March 1894; citing Baptism, Transvaal, South Africa, p. , William Cullen Library, Wits University, Johannesburg.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]