বাগবোলে ম্যানর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বাগবোলে ম্যানর
Baggböle herrgård 2011-08-31.jpg
২০১১ সালের আগস্টে বাগবোলে ম্যানর।
সাধারণ তথ্য
শহরউমিয়া, ভ্যাস্টারবটেন
দেশসুইডেন
নির্মাণ শুরু হয়েছে১৮৪৬
নকশা এবং নির্মান
স্থপতিজোহান অ্যান্ডারস লিন্ডার

বাগবোলে ম্যানর (সুয়েডীয়: Baggböle herrgård) উত্তর সুইডেনের উমিয়ার উত্তর-পশ্চিম দিকে প্রায় ১০ কিলোমিটার (৬.২ মা) দূরে বাগবোলের উমে নদীতে অবস্থিত একটি জমিদারের খামার বাড়ি। [১] এটি ১৮৪৬ সালে নির্মিত হয় এবং বাগবোলে করাতকলের ম্যানেজারের বসতবাড়ি হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৮৪৬ সালে এই বিরাট বাড়িটির কাজ সমাপ্ত হয়। বাড়িটি বাগবোলে করাতকলের ম্যানেজারের বসতবাড়ি হিসেবে ব্যবহৃত হওয়া শুরু করে।[১] ভবনের স্থাপত্যের প্রকল্পটি উমিয়া প্যারিশ মন্ত্রী জোহান অ্যান্ডারস লিন্ডার করেন। তিনি একাধারে একজন লেখক ও মন্ত্রী ছিলেন এবং প্রায়শই স্থপতি ও নির্মাতা হিসেবে উমিয়ার আশেপাশে কাজ করতেন। তিনি রাজকীয় ধাঁচ বেছে নেন। লিন্ডারের রেকর্ড অনুযায়ী তিনি ৫০ সুইডীয় ক্রোনার লাভ করে। ১৮৪৭ সালে ভবনের উদ্বোধনের দিনই তিনি জেমস রবার্টসন ডিকসনের কাছ থেকে তাঁর টাকা পেয়ে যান। জেমস রবার্টসন জেমস ডিকসন এন্ড কোঃ ফার্মের মাধ্যমে গোথেনবার্গকে প্রতিনিধিত্ব করেন।[২] এই কোম্পানিই ১৮৪০ সালে করাতকলের মালিকানা লাভ করেন। ডিকসন সুইডেনে তৎকালীন প্রচলিত "বাগবোলেরি"র ফলে দুইবার আদালত দর্শন করেন। এই আইনে আটকের কারণ ছিল মূলত নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে জঙ্গল ধ্বংস করে কাঠ কাটা।[৩]

স্থাপত্য[সম্পাদনা]

পালিশ করা উড প্যানেল দিয়ে ঢাকা কাঠ দ্বারাই এই ভবনটি নির্মিত হয়েছে এবং একটি সাদা তিসি তেল ভিত্তিক রং দিয়ে রঙ করা হয়েছে যেন একটি সমসাময়িক অনুরূপ পাথর ঘরকে উপস্থাপন করতে পারে। এর দোতলা ভবনের প্রত্যেক তলার মেঝের আয়তন প্রায় ৫০০ মি (৫,৩৮২ ফু)। ভবনের সামনে ও অন্যান্য স্থানও ডোরিক আয়তাকার স্তম্ভদ্বারা সজ্জিত নব্যধ্রুপদী রূপ নিয়ে গঠিত এবং প্রাসাদের ভিতর ও বাইরের দিক অত্যন্ত সংরক্ষিত। প্রাসাদের দুই স্থানে বাগান রয়েছে। প্রাসাদে অনেক পৃথক ভবন আছে যা মূলত এই প্রাসাদেরই অন্তর্ভুক্ত। এখানে একটি স্কুল, একটি আস্তাবল, দুইটি গেজবস এবং একটি ডান্ডাগুলি এলি রয়েছে।[৪]

করাতকলের যুগ[সম্পাদনা]

এই বাড়িটি নদীতীরের সুউচ্চে অবস্থিত। এইন উচ্চতা ভবনটিকে পানির আরও কাছে নিয়ে এসেছে বলে মনে হয়। এখানেরই এক অঞ্চলে আরবোরেটুম রয়েছে, আরো রয়েছে কর্মচারীদের জন্য ব্যারাক, অফিস, ছাউনী, একটি কামার এর দোকান, একটি কয়লা ঘর এবং একটি বোটহাউজ। এই ভবনগুলো বা দুটো করাতকল - কোনটিই নয়, এর উপরের দিকগুলো ১৮৪২ সালে ও নিচের দিকগুলো ১৮৫০ সালের দিকে নির্মিত হয়। এখানে আটটি শক্তি-নির্ভর করাতকল আছে যা এখনও বর্তমান। এর একটির সংস্কার করা হয়েছে এবং উমিয়া এনার্জি ক্লাববোলে ক্র্যাফটভার্ক (ক্লাববোলে গ্রামে) এ দেখা যায় যা বাগবোলে থেকে উমে নদীর দিকে অবস্থিত।[৫]

বাগবোলের করাতকলের পূর্ণবিকাশের পর (১৮৫০ থেকে ১৮৮০) এর ১৭০ জন কর্মকর্তা নিয়ে[৬] - হলসুন্ডে স্থানান্তরিত হয়। এটি উমে নদীর উপকূলে অবস্থিত, যেখানে বাগবোলের করাতকল ও এর সহায়তাকারী ভবনসমূহকে পরিত্যক্ত করা হয় ও পচন ধরানোর জন্য রেখে দেয়া হয়েছিল।

আধুনিক যুগ[সম্পাদনা]

এই প্রাসাদ ও এর প্রায় ৩৪০ হেক্টর (৮৪০ একর) জমি উমিয়া মিশনসফোরসামলিংকে দান করা হয়। এটি ইউরোপের বৃহত্তম জঙ্গলভূমি সুভেনস্কা সেলুলোসা আক্টিয়েবোলাগেট-এর মালিকানাধীন মিশন কোভেনান্ট চার্চ অফ সুডেন-এর অঙ্গসংগঠন। ১৯৬৮ সালে, যে বছর প্রাসাদকে ঐতিহাসিক ভবন হিসেবে স্বীকৃত করা হয়, ঐ বছরে থেকে শুরু হয়ে ১৯৬৮-১৯৭১ সাল পর্যন্ত এর সংস্কার কাজ করা হয়।[১][৭] এর পরের ৩৫ বছর এটিকে ধর্মসভার জন্য ব্যবহৃত হয়, যেটি প্রাথমিকভাবে স্বেচ্ছাসেবী কাজের জন্যই ব্যবহৃত হয় এবং গ্রীষ্মের জনপ্রিয় কাফে হিসেবে চিহ্নিত হয়। শুধুমাত্র বার্ষিক ওয়ালপুর্গিস নাইট এর উৎসবের জন্যই নয়, এছাড়াও এটি বেশ জনপ্রিয় হয়। ২০০৬ সালে একজন বেসরকারি ব্যবসায়ী ভবনটি ক্রয়পূর্বক সংস্কার করেন এবং এখন এটি রেস্তঁরা ও সেইসাথে ব্যবসায় সম্মেলনের জন্যও ব্যবহৃত হয়।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Baggbole Mansion, Vasterbottens Museum, retrieved 26 May 2014
  2. Johan Anders Linder's diary
  3. Baggbole ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ মে ২০১৪ তারিখে, Umea.SE, retrieved 24 May 2014
  4. Baggböle mansion ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ মে ২০১৪ তারিখে, Umea.se, retrieved 26 May 2014
  5. Klabböle ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৯ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে, Umea.se, retrieved 26 May 2014
  6. Baggbole ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ মে ২০১৪ তারিখে, Umea.SE, retrieved 26 May 2014
  7. "Baggböle besöksområde" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ মে ২০১৪ তারিখে. www.umea.se, retrieved 24 May 2014
  8. "Baggböle Herrgård - Om oss". Retrieved 24 May 2014.

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৬৩°৫০′২৫″ উত্তর ২০°০৭′০১″ পূর্ব / ৬৩.৮৪০২৮° উত্তর ২০.১১৬৯৪° পূর্ব / 63.84028; 20.11694{{#coordinates:}}: প্রতি পাতায় একাধিক প্রাথমিক ট্যাগ থাকতে পারবে না