গামলা ব্রোন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গামলা ব্রোন
Gamla bron Umeå 2007-06-24.jpg
উত্তর দিক থেকে পুরাতন সেতু।
বাহকপথচারী এবং মোটরবাইক[১]
ক্রসউমে আলভ
স্থানউমিয়া, সুইডেন
উপাদানস্টিল
স্থানাঙ্ক৬৩°৪৯′৩০″ উত্তর ২০°১৪′৫৭″ পূর্ব / ৬৩.৮২৫০০° উত্তর ২০.২৪৯১৭° পূর্ব / 63.82500; 20.24917স্থানাঙ্ক: ৬৩°৪৯′৩০″ উত্তর ২০°১৪′৫৭″ পূর্ব / ৬৩.৮২৫০০° উত্তর ২০.২৪৯১৭° পূর্ব / 63.82500; 20.24917

গামলা ব্রোন (সুয়েডীয়: Gamla bron; বাংলা অর্থ: পুরাতন সেতু) হল উমে আলভ নদীর ওপরে নির্মিত উমিয়া, সুইডেনের প্রাচীনতম সেতু। সেতুটি প্রায় ৩০১ মিটার দীর্ঘ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

উমিয়া একটি সেতু লাভের পূর্বে এর অধিবাসীরা বরফ রাস্তা ব্যবহার করে নদী পার হত (শীতকালে) এবং অনান্য ঋতুতে ফেরীতে করেই নদী অতিক্রম করত।[২]

ফিনীয় যুদ্ধকালীন সময়ে উমিয়া দ্বিতীয় রাশিয় দখলদারিত্বকালীন সময়ে ১৮০৯ সালে রাশিয়রা ভাসমান সেতু নির্মাণ করে তাদের নদী অতিক্রমের জন্য। তবে এরপরেই বসন্ত বন্যার সময়ে এটি ধ্বংস হয়।[৩]

উমে নদীর ওপর দিয়ে একটি সেতু নির্মাণের পরিকল্পনাটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল মনে হলেও গভর্ণর গুস্তফ মুনঠে এই বিষয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন এবং তিনি ১৮৫৬ থেকে ১৮৫৮ সালের মধ্যে এই দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তিনি এক আদেশপত্র জারি করেন এই বিষয়ে তদন্ত করতে যে সেতুটির জন্য কোনরূপ প্রস্তাব শ্রেষ্ঠ হবে এবং এর অঙ্কন ও গণনার জন্য কত খরচ হবে। তদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী শহরের ঠিক বাইরেই নদীর ওপরে সেতুটি নির্মাণ করাটাই ভাল হবে কারণ ঐ স্থানে নদীর নদীর ভিত্তি সেতুর ভারবহনের জন্য উপযুক্ত। এর খরচ ঠিক করা হয় আনুমানিক ৮৬,০০০ ক্রোনার[৩]

১৮৬৩ সালে সেতুটিকে উন্মুক্ত করে দেয়া হয় এবং এরপরে বহুদিন পর্যন্ত পর্যটকদের বা ভ্রমণকারীদের সেতুর টোল দিতে হত। প্রায় এক যুগ পর প্রকৃত কাঠের কাজটির পরিবর্তনের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় এবং ১৮৯৪-৯৫ সালে একে পরিবর্তন করা হয় স্টিলের সাথে। এর পরেই সেতুটি বর্তমান রূপ লাভ করে।

বর্তমানের সেতু[সম্পাদনা]

বর্তমানে সেতুটি শুধুমাত্র পথচারী এবং মোটরবাইক আরোহীদের জন্যই উন্মুক্ত[১] ২০১৩-এ কিছু ত্রুটি মেরামতের দিকে লক্ষ্য করা হয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Göransson, Håkan (৯ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "Umeås historia 1810—1896"Umeå Municipality। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৪ 
  2. Olsson Lars Gunnar, Haugen Susanne, Edlund Lars-Erik, Tedebrand Lars-Göran, সম্পাদক (২০১৩)। Umeå 1314-2014: 100 berättelser om 700 år। Skrifter / utgivna av Johan Nordlander-sällskapet, 0348-6664 ; 30। Skellefteå: Artos & Norma। পৃষ্ঠা 103। আইএসবিএন 9789175806686। libris=14803107। 
  3. Steckzén, Birger (1981[1922])। Umeå stads historia 1588-1888। Norrländska skrifter, 0349-3202 ; 6 (Facs.-utg. /personreg. har utarbetats av Saga Edstedt och ortreg. av Gun och Kurt Boberg ; med en efterskrift av Erik Thelaus সংস্করণ)। Umeå: Två förläggare। পৃষ্ঠা 339 & 439–441। আইএসবিএন 91-85920-05-3। libris=7753338।  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  4. "Bro i Umeå måste förstärkas" (Swedish ভাষায়)। Västerbottens-Kuriren। ২১ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৪ 


টেমপ্লেট:Bridge-struct-stub