বদরপাশা ইউনিয়ন

স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′৩৬″ উত্তর ৯০°০২′২৮″ পূর্ব / ২৩.২০৯৯৯৯৪° উত্তর ৯০.০৪১২৪৫২° পূর্ব / 23.2099994; 90.0412452
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বদরপাশা
ইউনিয়ন
বদরপাশা ইউনিয়ন কার্যলয়
ডাকনাম: পরিষদ
বদরপাশা ঢাকা বিভাগ-এ অবস্থিত
বদরপাশা
বদরপাশা
বদরপাশা বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
বদরপাশা
বদরপাশা
বাংলাদেশে বদরপাশা ইউনিয়নের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৩°১২′৩৬″ উত্তর ৯০°০২′২৮″ পূর্ব / ২৩.২০৯৯৯৯৪° উত্তর ৯০.০৪১২৪৫২° পূর্ব / 23.2099994; 90.0412452
দেশবাংলাদেশ
বিভাগঢাকা বিভাগ
জেলামাদারীপুর জেলা
উপজেলারাজৈর উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সরকার
 • চেয়ারম্যানসাবিনা ইয়াসমিন (মিরু) [১]
আয়তন
 • মোট২৩.৭৯ বর্গকিমি (৯.১৯ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা
 • মোট২৫,১০১
 • জনঘনত্ব১,১০০/বর্গকিমি (২,৭০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৪৬.৫%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৭৯১১,৭৯১০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
মানচিত্র

বদরপাশা ইউনিয়ন বাংলাদেশর ঢাকা বিভাগের মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার একটি ইউনিয়ন যা ১৪টি গ্রাম নিয়ে গঠিত। শংকরদী, বদরপাশা , চর মস্তফাপুর, নয়ানগর, উমারখালি, কৃষ্টপুর,পাঠান কান্দি, ইশিবপুর,দাড়াদিয়া, দুর্গাবদ্দি,ও গোপালগঞ্জ [২]

ভৌগোলিক উপাত্ত[সম্পাদনা]

বদরপাশা ইউনিয়নের মোট আয়তন ৫,৮৭৮ একর বা ২৩.৭৯ বর্গ কিলোমিটার। গ্রামের সংখ্যা ১৪টি। ঘরবাড়ির সংখ্যা ৫,২৮৫টি। এই ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে বয়ে গেছে কুমার নদী।[১]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী বদরপাশা ইউনিয়নের ৫,২৮৫টি পরিবারে মোট জনসংখ্যা ২৫,১০১ জন এবং প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১১০০ জন লোক বাস করে। এদের মধ্যে ১২,২৫২ জন পুরুষ ও ১২,৮৪৯ জন মহিলা এবং লিঙ্গ অনুপাত ৯৫। মুসলিম ধর্মালম্বী ২৩,৯৪১ জন, হিন্দু ধর্মালম্বী ১,১৫৯ জন ও খ্রিস্টান ধর্মালম্বী ১ জন।[৩]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

২০১১ সালের হিসেব অনুযায়ী বদরপাশা ইউনিয়নের সাক্ষরতার হার ৪৬.৫% (পুরুষ ৪৭.৭%, মহিলা-৪৫.৩%)।[৩] শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাজৈর কে জি এস ইনিস্টিটিউট

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; :0 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. "বদরপাশা ইউনিয়ন"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-০৬ 
  3. COMMUNITY REPORT: MADARIPUR (ইংরেজি ভাষায়)। ঢাকা: বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো। ফেব্রুয়ারি ২০১৫। আইএসবিএন 978-984-33-8597-0