ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ঢাকা্ ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি
সংক্ষেপেডিইউডিএস (DUDS)
নীতিবাক্যপ্রকাশই প্রতিভা
গঠিত১৭ অক্টোবর ১৯৮২; ৩৭ বছর আগে (1982-10-17)
ধরণবিতর্কের জন্য স্বেচ্ছাসেবী ছাত্র সংগঠন
আইনি অবস্থানিবন্ধভুক্ত
উদ্দেশ্যবিতার্কিক তৈরি, বিতর্ক আন্দোলন, বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ ও আয়োজন
সদর দপ্তর২য় তলা, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৩°৪৩′৫২″ উত্তর ৯০°২৩′৪৬″ পশ্চিম / ২৩.৭৩১১১° উত্তর ৯০.৩৯৬১১° পশ্চিম / 23.73111; -90.39611
যে অঞ্চলে কাজ করে
বাংলাদেশ
সদস্যপদ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা, English
সভাপতি
এস এম রাকিব সিরাজি
প্রধান অঙ্গ
কার্যনির্বাহী পরিষদ (৩৩ সদস্য বিশিষ্ট)
প্রধান প্রতিষ্ঠান
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ
অনুমোদনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট
বাজেট
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক নির্ধারিত
স্টাফ
মূল কমিটি ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট, ৫০টির অধিক সহযোগী সংগঠন
স্বেচ্ছাকর্মী
প্রায় ৫০০
ওয়েবসাইটhttp://www.debate-duds.org

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি সংক্ষেপে DUDS (ডি.ইউ.ডি.এস.), বাংলাদেশের বিতর্ক আন্দোলনে সংযুক্ত একটি সংগঠন। [১][২] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের পূর্ণাংগ তত্ত্বাবধানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত এই সংগঠনটি বিতর্ককে ছড়িয়ে দিতে কাজ করে চলেছে। ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট কর্তৃক অর্থায়িত।[৩][৪] এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিতর্কের কেন্দ্রীয় সংগঠন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিতর্কের চর্চা শুরু হয় বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ারও আগে থেকে। পরবর্তীতে সত্তুরের দশকে বিতর্ক সাংগঠনিক রূপ পেতে শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৮২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় প্রগতিশীল শিক্ষকদের হাত ধরে তৈরি হয় ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি। গণতন্ত্রের উত্থানের পর, নব্বই এর দশকের শুরু থেকে এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত হয়ে আসছে। [৫]

কার্যক্রম[সম্পাদনা]

  • জাতীয় বিতর্ক উৎসব [৬]
  • নাফিয়া গাজী আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযগিতা [৭][৮]
  • আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বাংলা বিতর্ক প্রতিযোগিতা
  • আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা
  • আন্তঃকলেজ বাংলা/ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা
  • আন্তঃস্কুল বাংলা/ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা
  • আন্তঃহল বাংলা বিতর্ক প্রতিযোগিতা
  • আন্তঃহল ইংরেজি বিতর্ক প্রতিযোগিতা

মডারেটর প্যানেল[সম্পাদনা]

কার্যবর্ষ সভাপতি সাধারণ সম্পাদক/মহাসচিব
১৯৮২-১৯৯০ ড. বেগম জাহানারাসহ বিভিন্ন শিক্ষকবৃন্দ -
১৯৯০-১৯৯২ মোহাম্মদ নিয়ামত আলী ইলাহী হাসান আহমেদ চৌধুরী
১৯৯২-১৯৯৪ হাসান আহমেদ চৌধুরী এস.এম শামীম রেজা ও সৈয়দ আসিফুর রহমান
১৯৯৪-১৯৯৬ এ.কে.এম শোয়েব নেওয়াজ খালিদ আহমেদ
১৯৯৬-১৯৯৭ মোহাম্মাদ আনিস রথীন্দ্রনাথ দত্ত
১৯৯৭-১৯৯৮ তানজিবুল আলম মুনির উদ্দিন আহমেদ
১৯৯৮-১৯৯৯ হযরত খান সঞ্জয় মজুমদার
১৯৯৯-২০০০ এস.এম. তরিকুল ইসলাম শাইখ ইমতিয়াজ
২০০০-২০০১ আব্দুল ওহাব সেতু অমিত দাসগুপ্ত
২০০১-২০০২ বুলবুল হাসান খাদেমুল করিম ইকবাল
২০০২-২০০৩ খাদেমুল করিম ইকবাল নাজমুল হুদা সুমন
২০০৩-২০০৪ দেবাশীষ কুণ্ডু কাঁকন ও মাহমুদ আলম বাপ্পী খায়রুল বাশার সোহেল ও সঞ্জীব সাহা
২০০৪-২০০৫ মেহেদী হাসান তামিম আব্দুর রহিম
২০০৫-২০০৬ আরিফ আল মামুন ও আব্দুর রহিম রাশেদুল আলম রাসেল
২০০৬-২০০৭ রাশেদুল আলম রাসেল কামরুল ইসলাম
২০০৭-২০০৮ তাহমিদ আলম অমিত মো. জিয়াউল হক শেখ
২০০৮-২০০৯ মোফাজ্জল হোসেন সুমন মোজাম্মেল হোসেন সিক্ত
২০০৯-২০১০ আল-আমিন চৌধুরী সুমন মো. রকিবুল ইসলাম
২০১০-২০১১ সৈয়দ আরিফ হোসেন আশিক ও শাহাদাত হোসেন রনি আসাদ আজিম ও নাজমুল ইসলাম শোভন
২০১১-২০১২ রিয়াসাদ আজিম ইকবাল হোসেন
২০১২-২০১৩ তৌফিকুল ইসলাম রকিবুল হাসান
২০১৩-২০১৪ শামিমা আক্তার জাহান পপি মোহাম্মদ শোয়াইব
২০১৪-২০১৬ জি এম আরিফুজ্জামান আবু রায়হান
২০১৬-২০১৭ আবু রায়হান খান সানন মাজহারুল কবির শয়ন
২০১৭-২০১৮ মাহমুদ আব্দুল্লাহ বিন মুন্সি এবং

আবু বক্কর সিদ্দিক প্রিন্স

আবদুল্লাহ আল নোমান
২০১৮-২০১৯ এস এম রাকিব সিরাজি আবদুল্লাহ আল মুতি আসাদ

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

প্রতিবছর ‘প্রতিবাক’ ও ‘প্রত্যুষ’ নামে ডিইউডিএস বার্ষিক প্রকাশনা প্রকাশ করে এবং বিতার্কিকদের মধ্যে বিতরণ করে। জাতীয় বিতর্ক উৎসবের স্মারক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়। এছাড়াও বিভিন্ন বিশেষ প্রকাশনাও থাকে।

আন্তর্জাতিক অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিতর্কের ক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় World University Debate Championship এর সাত সদস্যের স্থায়ী কমিটির একজন গর্বিত সদস্য। এছাড়াও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগীতায় সক্রিয় অংশগ্রহণ রয়েছে সদস্যদের। [১১]

বিতর্ক দলসমূহ[সম্পাদনা]

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি যখন দেশে বা বাইরে বিতর্কে অংশগ্রহণের জন্য যায় তখন প্রতিটি দলের থাকে নির্দিষ্ট নাম। আর এই নামকরণগুলো করা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্যগুলোর নামে। যেমন-

সংগঠন[সম্পাদনা]

ডিইউডিএস এর ১৯ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী পরিষদ ১ বছরের জন্য দায়িত্ব পালন ও সামগ্রিক কার্যক্রম পরিচালনা করে। ডিইউডিএস’র নেতৃত্ব নির্ধারিত হয় নির্বাচনের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক উপায়ে। প্রতিবছর নির্বাচনী বিতর্ক অনুষ্ঠানের পর প্রতিটি হল ডিবেটিং ক্লাবের একজন করে প্রতিনিধি ভোটারের সরাসরি ভোটে এক বছরের জন্য সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.univdhaka.edu/duds.php#[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ] Dhaka University Debating Society (DUDS)
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২৪ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩০ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  4. "Bangladesh Debating Council"debatebangladesh.tripod.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৮ 
  5. "আমরা বিতর্কের সৈনিক"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৮ 
  6. "Dhaka University Debating Society (DUDS)"www.facebook.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৮ 
  7. "দৈনিক ইত্তেফাক | The Daily Ittefaq"ittefaq। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৮ 
  8. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২০ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  9. "সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম"উইকিপিডিয়া। ২০১৮-১২-২৪। 
  10. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  11. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  12. "বিতর্কে জয়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৮ 
  13. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৪