গ্রীন লাইন পরিবহন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গ্রীন লাইন পরিবহন
logo
স্লোগান"অল দ্য ওয়ে ফার্স্ট ক্লাস"
সংস্থাপিত১৯৯০; ৩০ বছর আগে (1990)
প্রধান কার্যালয়৯/২, আউটার সার্কুলার রোড, মোমেনবাগ, রাজারবাগ, ঢাকা-১২১৭
পরিসেবিত এলাকা
পরিসেবার ধরনযাত্রী পরিবহন
গন্তব্যস্থল
প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালকআলহাজ মোহাম্মদ আলাউদ্দিন[১]
ওয়েবসাইটwww.greenlinebd.com

গ্রীন লাইন পরিবহন বাংলাদেশের একটি অন্যতম আন্তঃজেলা পরিবহন সংস্থা। এটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনারাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন গন্তব্যস্থলে পরিবহন সেবার পাশাপাশি ভারতের কলকাতায়ও পরিবহন সুবিধা প্রদান করে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৯০ সালে আলহাজ মোহাম্মদ আলাউদ্দিন গ্রীন লাইন পরিবহন সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন।[১] ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে হিনো এসি বাস চালানোর মাধ্যমে পরিবহন ব্যবসা শুরু করে গ্রীন লাইন। এরপর পর্যায়ক্রমে কক্সবাজার, বেনাপোল, রংপুর, রাজশাহীসিলেট রুটে বাস চলচল শুরু করে।[২] গ্রীন লাইন পরিবহনই বাংলাদেশের সড়কপথে সর্বপ্রথম এসি বাস পরিসেবা চালু করে।[১] এরপর সুইডেন থেকে ২০০৩ সালে ভলভো ও ২০০৫ সালে স্ক্যানিয়ার এসি বাস আমদানী করে গ্রীন লাইন। ২০১৩ সালে যাত্রীদের স্লিপার কোচে পরিসেবা প্রদান শুরু করে। ২০১৪ সালে গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ নামে জলপথে যাত্রী পরিবহন শুরু করে।[২] সম্প্রতি ২০১৮ সালে গ্রীন লাইন ঢাকা থেকে সিলেট ও কক্সবাজার রুটে জার্মানি থেকে আমদানী করা ম্যান কোম্পানির ডাবল ডেকার বাস চালু করে।[৩][৪]

যাত্রী পরিসেবা[সম্পাদনা]

শুরুতে গ্রীন লাইন শুধুমাত্র ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাত্রী পরিবহন করলেও বর্তমানে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার, টেকনাফ, খুলনা, বেনাপোল ও রাজশাহী রুটে এবং চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি সিলেট ও বেনাপোলে যাত্রী পরিবহন করে।[১] এছাড়াও ঢাকা-খুলনা-কলকাতা রুটে "সৌহার্দ পরিবহন" পরিচালনা করে গ্রীন লাইন।[৫]

গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ[সম্পাদনা]

গ্রীন লাইন ২০১৪ সাল থেকে "গ্রীন লাইন ওয়াটারওয়েজ" নামে টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন জলপথে এমভি গ্রীন লাইন-১ নামে লঞ্চ ছাড়ে। পরবর্তীতে ২০১৫ সালে ঢাকা-বরিশাল নৌপথে এমভি গ্রীন লাইন-২ ও এমভি গ্রীন লাইন-৩ নামে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দুইটি জলযান যাত্রী পরিসেবায় যোগ করে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About us"গ্রীন লাইন পরিবহন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  2. "গ্রীন লাইন এবার ঢাকা-বরিশাল সড়ক পথে"দি বাংলাদেশ টুডে। ২০ মে ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  3. "গ্রীন লাইন পরিবহনের নতুন এসি ডাবল ডেকার বাস সার্ভিস উদ্বোধন"। বাংলাদেশ প্রতিদিন। ১৮ এপ্রিল ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  4. "ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে গ্রীন লাইনের এসি দ্বিতল বাস"। যুগান্তর। ২৭ আগস্ট ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. "New Dhaka and Kolkata bus service starts tomorrow" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য ডেইলি স্টার। ৭ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]