গোলাপ বরবরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

গোলাপ বরবরা
Golap Borbora

অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী
Golap Borbora.jpg
মুখ্যমন্ত্রী[১]
কাজের মেয়াদ
১২ মার্চ, ১৯৭৮ – ৪ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৯[১]
নেতাজনতা দল
পূর্বসূরীশরৎ চন্দ্র সিংহ
উত্তরসূরীযোগেন্দ্রনাথ হাজরিকা[১]
বিধায়কতিনিসুকীয়া সমষ্টি[২]
কাজের মেয়াদ
১৯৭৮ – ১৯৮৩
পূর্বসূরীপরমানন্দ গগৈ[৩]
উত্তরসূরীরাজেন্দ্র নাথ ফুকন[৪]
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1925-08-29) ২৯ আগস্ট ১৯২৫ (বয়স ৯৪)
গোলাঘাট জেলা
মৃত্যু১৯ মার্চ, ২০০৬
গুয়াহাটি
রাজনৈতিক দলজনতা দল
জীবিকারাজনীতি
ধর্মহিন্দু

গোলাপ বরবরা (ইংরেজি: Golap Borbora; অসমীয়া: গোলাপ বরবরা) অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।।[১] ১৯৭৮ সনে তার নেতৃত্বে গঠিত সরকারটিই ছিল অসমে প্রথম কংগ্রেস বিরোধী সরকার।[৫][৬]

জন্ম ও বংশ পরিচয়[সম্পাদনা]

১৯২৫ সনের ২৯ আগষ্ট তারিখে গোলাঘাটে গোলাপ বরবরা জন্মগ্রহণ করেন।[৫] তার পিতার নাম কমল বরবরা। তিনি ডিগবয় অইল কোম্পানীর কর্মচারী ছিলেন। গোলাপ বরবরা পিতা-মাতার প্রথম সন্তান ছিলেন।।[৭]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

গোলাপ বরবরা বাল্যকালের শিক্ষা তিনসুকিয়া থেকে গ্রহণ করেন।।[৬] ১৯৪৪ সনে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা পরিচালিত প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আই.এস.সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।[৭] কলকাতায় থাকাকালিন সময়ে তিনি সমাজবাদী আন্দোলনে অনুপ্রেনিত হয়ে কলেজের শিক্ষা অসমাপ্ত করে অসমে ফিরে আসেন।[৫]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

সেই সমবে অসমের কংগ্রেস দলের মধ্যে কংগ্রেস সোশিয়েলিষ্ট নামক একটী দল ছিল। কলকাতার থেকে ফিরে এসে তিনি সেই দলের অন্তর্ভুক্ত হন।[৭] ভারত স্বাধীন হওয়ার পর তিনি সেই দল ত্যাগ করে একতি নতুন দল গঠন করেন। ১৯৫২ সনের সাধারণ নির্বচনে গোলাপ বরবরা সোশিয়েলিষ্ট পার্টী ডিব্রুগড় জেলা শাখার সম্পাদক হয়। ১৯৬৫ সনে তিনি এক বৎসরের জন্য দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।[৭]

১৯৬৮ সনে গোলাপ বরবরা রাজ্যসভায় বিরোধী দলের সদস্যরুপে প্রথম নির্বাচিত হয়। ১৯৭৪ সন পর্যন্ত তিনি রাজভসভার সদস্য ছিলেন।।[৫] ভারতীয় উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের সহিত তিনি কিছুদিন জড়িত ছিলেন।[৫][৭]। ১৯৭৪ সনের শেষের দিকে লোকনায়ক জয়প্রকাশের নেতৃত্বে সমগ্র দেশজুড়ে আন্দোলনের সৃষ্টি হয়েছিল। গোলাপ বরবরা এই আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছিলেন। গোলাপ বরবরা এই আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা গ্রহণ করেছিলেন। ১৯৭৫ সনের ২৫ জুন তারিখে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করে জয়প্রকাশ, মোরারজী দেশাই ও তাকে করাবাস দেওয়া হয়।[৬] কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে তিনি নবগঠিত জনতা দলের সভাপতি পদ গ্রহণ করেন।[৬] ১৯৭৮ সনের অসম বিধানসভা নির্বাচনে দলটি সংখ্যাগরিষ্ঠ লাভ করে সরকার গঠন করে।[৭]

মুখ্যমন্ত্রী পদে[সম্পাদনা]

১৯৭৮ সনের নির্বাচনে জনতা পার্টী ৫৩ তি আসন লাভ করে। ফলে দলটি বিধানসভার বৃহত্তম দল হিসেবে গণ্য হয়।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Assam Legislative Assembly - Chief Ministers since 1937"। Assam Legislative Assembly, Dispur, Guwahati। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২০, ২০১২ 
  2. "Assam Legislative Assembly - MLA 1978-83"। Assam Legislative Assembly, Dispur, Guwahati। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২০, ২০১২ 
  3. "Assam Legislative Assembly - MLA 1972-78"। Assam Legislative Assembly, Dispur, Guwahati। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২০, ২০১২ 
  4. "Assam Legislative Assembly - MLA 1983-85"। Assam Legislative Assembly, Dispur, Guwahati। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২০, ২০১২ 
  5. "Former Assam CM Golap Borbora is no more"nenanews.com। North East News Agency। North East News Agency। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ February 02, 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ=, |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  6. "ABOUT GOLAP BORBORA"in.com। In.com India। সংগ্রহের তারিখ February 02, 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  7. সমীন কলিতা (ছেপ্টেম্বর, ২০০৭)। অসমর মুখ্যমন্ত্রীসকল, পঞ্চম প্রকাশ। রাজেন্দ্র মোহন শর্মা, চন্দ্র প্রকাশ পাণবজার। পৃষ্ঠা ৮১, ৮২, ৮৩।  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)