এ বি এম আব্দুল্লাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এ বি এম আবদুল্লাহ
Abm Abdullah000.jpg
জন্ম১৯৫৪
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পেশাঅধ্যাপক, চিকিৎসক
পুরস্কারএকুশে পদক

এ বি এম আবদুল্লাহ (জন্ম ১৯৫৪) একজন বাংলাদেশি মেডিসিন বিশেষজ্ঞ যিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এরপূর্বে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের চেয়ারম্যান ও ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালে তিনি একুশে পদক পান এবং ২০১৭ সালে বাংলা একাডেমি তাকে সম্মানসূচক ফেলোশিপ প্রদান করে।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

আবদুল্লাহ ১৯৫৪ সালে জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলার হাড়িয়াবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[২] তিনি হারিয়াবাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষাজীবন শুরু করেন। ১৯৬৯ সালে ইসলামপুর নেকজাহান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন।[২] ১৯৭২ সালে তিনি ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। ১৯৭৮ সালে তিনি এমবিবিএস ডিগ্রি লাভ করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আবদুল্লাহ এমবিবিএস পাশ করার পর কিছুদিন গ্রামে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। পরবর্তীতে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসক হিসেবে যোগদান করেন। এরপর পাঁচ বছর সৌদি আরবে চিকিৎসক হিসেবে কাজ করার পর ১৯৯২ সালে লন্ডনের রয়েল কলেজ অব ফিজিশিয়ানে ভর্তি হন। সেখান থেকে এমআরসিপি ডিগ্রি লাভ করে দেশে এসে হলিফ্যামিলি মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগে দুই বছর পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৫ সালে পিএসসি পরীক্ষার মাধ্যমে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (তৎকালীন পিজি হাসপাতাল) যোগদান করেন।[২] পরবর্তীতে এ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এবং মেডিসিন বিভাগের ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর ২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর তিনি সচিব পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক হিসেবে নিযোগ পান।[৩]

গ্রন্থ[সম্পাদনা]

অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ে বিভিন্ন নিয়মিত লেখালেখি করছেন। এছাড়াও তিনি মেডিকেল শিক্ষার্থীদের জন্য ছয়টির বেশি মেডিকেল পুস্তক রচনা করেছেন, তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল:

তার রচিত এ সকল মেডিকেল পুস্তক বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ব্রিটেনসহ আরব বিশ্বের বিভিন্ন মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো হয়।[৪] এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন জাতীয় সংবাদপত্রে নিয়মিত স্বাস্থ্য বিষয়ক কলাম লিখে থাকেন।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাংলা একাডেমির সম্মানসূচক ফেলোশিপ পেলেন যারা"দৈনিক যুগান্তর। ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. "দেরিতে হলেও যা চেয়েছি, পেয়েছি : ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ"এনটিভি। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  3. "প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক হলেন এ বি এম আব্দুল্লাহ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  4. http://www.bd-pratidin.com/home/printnews/180272/2016-10-28%7Cঅধ্যাপক এ বি এম আবদুল্লার সাক্ষাৎকার
  5. "ইউজিসি অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ১৫ মার্চ ২০১৫। 
  6. "একুশে পদক নিলেন ১৬ জন"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  7. "বাংলা একাডেমির ফেলোশিপ পেলেন সাত বিশিষ্টজন"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮