আলাপ:পানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

টেমপ্লেট:শান্ত থাকুন

পানি ও জল নিবন্ধ[সম্পাদনা]

প্রশাসকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। উইকিপিডিয়াতে একই বিষয়ে বিভিন্ন নামে নিবন্ধ লক্ষ করছি। একদিকে পানি নামক একটি নিবন্ধ দেখে তা সম্পাদনা করলাম। অপরদিকে জল বলে সার্চ করে দেখি আরেকটি নিবন্ধ। একইভাবে ইসলামি বর্ষপঞ্জি এবং হিজরী সাল নামেও দু'টি নিবন্ধ দেখতে পাচ্ছি। পাঠকের বিভ্রান্তি এড়ানোর স্বার্থে এই নিবন্ধগুলিকে অবিলম্বে একত্রিত করার প্রস্তাব করছি। -তৃণাঞ্জন (আলাপ) ১১:৫৯, ১৯ এপ্রিল ২০১২ (ইউটিসি)

পানি থেকে জলে স্থানান্তর[সম্পাদনা]

জল শব্দটি বাংলা শব্দ এবং সার্বজনীন ভাবে স্বীকৃত। অপর দিকে পানি শব্দটি এ পার বাংলা তে প্রচলিত নয়। যদিও বাংলাদেশের মানুষ পানি শব্দটি বেশি ব্যবহার করেন কিন্তু এটি শুদ্ধ বাংলা নয়, বাংলা ভাষায় অনুপ্রবিষ্ট উর্দু শব্দ। আমার অনুরোধ একে পানি থেকে জল এ স্থানান্তর করা হোক। বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ১৯:৪৮, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)

জোরালো ভাবে দ্বিমত। পাঠ্যপুস্তক থেকে একটি যুক্তি দেই: নবম-দশম শ্রেণীর "বাংলা ভাষার ব্যাকরণ" বইয়ের ৬নং পাতায় লেখা "বাংলা ভাষার শব্দসম্ভার দেশী, বিদেশী, সংস্কৃত - যে ভাষা থেকেই আসুক না কেন, এখন তা বাংলা ভাষার নিজস্ব সম্পদ।" এই দৃষ্টিকোণ থেকে উর্দু শব্দ হলেও তা সমস্যা নয়। সরকারি পর্যায়ে এটি ব্যবহারের ছোট্ট উদাহরণ দেই: বাংলাদেশ সরকারের একটি মন্ত্রণালয় আছে যার নামই হচ্ছে "পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়"। অন্যান্য পর্যায়ে এটি ব্যবহারের উদাহরণ নাই বা দিলাম। আমি এটা বলছি না, যে জল শব্দটি ব্যবহার হয় না। এটির ব্যবহার আছে বলেই জল থেকে পুনঃনির্দেশ করা আছে। অযথা, সার্বজনীন ভাবে স্বীকৃত(স্বীকৃত না হলে নিশ্চিয় কেউ পানি বলত না), অধিক প্রচলিত বা বহুল ব্যবহৃত শব্দ যাই বলেন সেটিকে "উর্দু শব্দ" বলে সরানোর মানে নেই। --Aftab1995 (আলাপ) ২২:৪৫, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
লিমন ভাই, আপনি যে কথা বলতে চেয়েছেন, সে কথা আমিও বলতে চেয়েছি। পানি শব্দটি বাংলাদেশে বেশি প্রচলিত, এমনকি মন্ত্রালয়ও পানি কথাটি আছে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে এই শব্দটি প্রচলিত নয়। পানির বদলে জল ই এখানে বলা হয়, যেমন এখানকার মন্ত্রালয়ের নাম জল সম্পদ মন্ত্রক। আবার জল শব্দটি তো বাংলাদেশেও ব্যবহৃত হয়, তাই নয় কি? আপনি আলাপ:তাকী উসমানী পাতায় এই নিয়ে একটা হালের বিতর্ক দেখতে পাবেন। সেটি দেখলেই বুঝতে পারবেন, সার্বজনীন বলতে কি বোঝাতে চেয়েছি। এপার ওপার দুপার বাংলার মানুষের কাছেই যা গ্রহণযোগ্য। পানি শব্দটিতে আমরা পশ্চিমবঙ্গে সত্যই অভ্যস্ত নই। বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ২৩:১৫, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
পানি / জল দুটিকেই সার্বজনীন ভাবে স্বীকৃত বলা যায় নাকি ভুল বললাম!! পক্ষে বিপক্ষে হাজারো যুক্তি দেয়া সম্ভব। সিদ্ধান্ত নিতে অন্যান্যদের মতামতের প্রয়োজন। --Aftab1995 (আলাপ) ২৩:৫২, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
জল এবং পানি নিয়ে বিবাদের কোনো অবকাশ নেই। এ ধরনের আলোচনা নতুন নয় বহু পুরনো। এবং এ ধরনের আলোচনা পরিহার করার অনুরোধ জানাচ্ছি। কারণ এ ধরনের আলোচনা উইকিপিডিয়ার সুন্দর পরিবেশকে নষ্ট করে। এ ধরনের বিবাদ বা আলোচনা এড়াতে বাংলা উইকিপিডিয়াতে আমরা যা অনুসরণ করি তা হল, নিবন্ধটি যে শব্দ বা বানানে শুরু হয় বা গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন ঘটে, তা বহাল রাখা। বাকি গুলো রিডাইরেক্ট এবং নিবন্ধে উল্লেখ করা। অন্যনায় উইকিপিডিয়াতেও, যেমন ইংরেজি উইকিপিডিয়াতে ব্রিটিশ ইংরেজি এবং আমেরিকান ইংরেজির বিভিন্ন বানানে বা শব্দের ক্ষেত্রে এমনটা অনুসরণ করা হয়। তাই অনুগ্রহ করে উইকিপিডিয়ার সহযোগিতামূলক পরিবেশ নষ্ট করবেন না। অযথা বিবাদ বা আলোচনা পরিহার করুন।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ০৭:৪৪, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
বেলায়েত ভাই, আপনার কথায় মর্মাহত হলাম। আমি একটা অলোচনা করছিলাম মাত্র। কোন বিবাদ বা ধ্বংসাত্মক কথা তো বলিনি। আমি কাউকে আঘাত দিয়ে বা আক্রমন করেও কোন কথা বলিনি। উইকিপিডিয়ার সুন্দর ও সহযোগিতার পরিবেশ নষ্ট করতেও আমি চাইনি। উইকির উন্নতি যতটা আপনারা সবাই চান, আমি তার থেকে কিছু কম চাই না। কিন্তু আমার তোলা এই আলোচনায় যদি আপনাদের সবার প্রাণে আঘাত লেগে থাকে, তাহলে আমার আর কিছু বলার নেই। এরপর থেকে আমি যত কম পারব ততই আলোচনায় আসব। একটা সামান্য আলোচনা কাউকে আঘাত দিয়ে থাকলে আমার পক্ষে কথা না বলাই বরং ভালো। তাতেই সবার ভালো হয়। বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ০৮:১৭, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
মর্মাহত হলেও, এটাই সত্যি। আমি আপনাকে আলোচনা থেকে বিরত রাখতে কথাগুলো বলিনি। বিভিন্ন বিষয়ে আপনার আগ্রহ বা কৌতুহল থাকবেই, কিন্তু বিদ্যমান কোনো কিছুর সাথে মানিয়ে নেওয়াটাও কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ। আমি বলেছিলাম এ বিষয়ে আলোচনা নতুন নয়। এবং আমার অভিজ্ঞতা থেকেই আমি উপরের কথাগুলো বলেছি এবং আপনাদের সতর্ক করেছি। ভাষাকে তার নিজের গতিমত চলতে দিন। উইকিপিডিয়ার কাজ হল জনমানুষের জন্য জ্ঞানের উপকরণ সংরক্ষণ করা। তা বাংলা ভাষার প্রচলিত রীতি এবং প্রাকৃতিক নিয়ম অনুসরণ করেই হবে। আমাদের কাজ সহযোগিতা এবং সমঝোতার মাধ্যমে বাংলা ভাষায় একটি উন্নতমানের বিশ্বকোষ পৃথিবীবাসীকে উপহার দেওয়া। সব বাঁধা বিপত্তি এড়িয়ে আমরা সে পথেই হাটবো।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ০৯:০৬, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
বেলায়েত ভাই, ভাষা নিজের নিয়মেই চলবে। কিন্তু প্রচলিত হিসেবে যে কথা গুলি বলা হচ্ছে, তা কি সত্যি প্রচলিত? রবীন্দ্রনাথ তার প্রথম ছড়াতে জল পড়ে পাতা নড়ে ই কিন্তু বলেছিলেন। আর বিদ্যাসাগরের বর্ণপরিচয়, রবীন্দ্রনাথের সহজ পাঠ সেখানে বাচ্চারা জল শব্দটিই শেখে। আমরা যেমন চট্টগ্রামের ভাষা বুঝতে পারি না, ঠিক তেমনি পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া, পুরুলিয়ার ভাষাও আপনাদের কাছে বেমানান ঠেকবে। কিন্তু দুটো ভাষাই বাংলা ভাষা। কিন্তু ভাষার গতিতেই তার স্থানের সাথে রকমফের হয়ে গেছে। বাংলাদেশে পানি যেমন অতি প্রচলিত শব্দ, পশ্চিমবঙ্গে কিন্তু একেবারেই তা চালু নয়। জল কিন্তু দু দেশেই চালু। তাই না? বাংলা যেমন বাংলাদেশের ঠিক তেমনি পশ্চিমবঙ্গেরও তো। উইকিও তো দু দেশের মানুষের জন্যই। তাই না? তাই এমন শব্দ নির্বাচন করা উচিৎ নয় কি যা, দু দেশের মানুষের কাছেই গ্রহণযোগ্য। আর, সত্যি বলব, আমি নিজে জানতাম না এই নিবন্ধের ব্যাপারটা, জয়ন্তদা উদাহরণ দিতে গিয়ে বললেন, তখন চোখে পড়ল। আপনি আলাপ:তাকী উসমানী পাতায় এই নিয়ে গতকাল রাতের একটা হালের বিতর্ক দেখতে পাবেন। আমার কথা ছেড়েই দিন, আপনি উইকিতে অনেক দিনের প্রশাসক জয়ন্তদার আশঙ্কা গুলি পড়ে দেখবেন। তাহলে আমি হয়তো বোঝাতে পারব, আমি কি বলতে চাইছি। দাদা, এত কিছু বলার পর আমি কাউকে আঘাত না দিয়ে শুধু একটা কথাই বলতে চাই, সেই শব্দই নির্বাচন করা হোক, যা দুই বাংলার মানুষের কাছে সমান ভাবে গ্রহণযোগ্য। আপনাকে অনুরোধ, দয়া করে আমার কথাগুলিকে ধ্বংসাত্মক হিসেবে দেখবেন না। উইকিতে আপনার অভিজ্ঞতা অনেক বেশি একথা অস্বীকার করা যায় না কখনোই, কিন্তু নতুনদেরও তো বক্তব্যে কিছু সার থাকতে পারে। আমি খোলা মনেই আলোচনা শুরু করেছিলাম, আপনিও খোলা মনেই এটিকে গ্রহণ করুন এই অনুরোধ করি। বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ০৯:৪৯, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
আমি এ আলোচনায় অংশ নিয়েছি একজন বাংলাদেশী হিসেবে নয়। একজন অভিজ্ঞ উইকিপিডিয়ান হিসেবেই এ আলোচনায় অংশগ্রহণকারীদের সতর্ক করেছি। আমি আগেও বলেছি, এ আলোচনা এর আগেও হয়েছে, এ ধরনের যুক্তি তর্ক আগেও হয়েছে। তাতে উইকিপিডিয়ার পরিবেশ উত্তপ্ত হয়েছে, উইকিপিডিয়ানদের উদ্দিপনা বা উৎসাহ নষ্ট করে, এতে উইকিপিডিয়ার কোনো লাভ হয় নাই। আমার যতটুকু মনে পরে জয়ন্তদার নিজেরও এ ধরনের অভিজ্ঞতা রয়েছে। এ ক্ষেত্রে আমরা কি করি, তা আমি উপরে বলেছি। আবারও বলছি এ ধরনের বিবাদ তৈরি হতে পারে এমন বিষয়ে নিবন্ধে যা দিয়ে শুরু হয় বা যা দিয়ে নিবন্ধে গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন ঘটে তাই বহাল থাকবে। অন্য মতের ব্যবহারকারীদের অনুরোধ করবো, বাকিগুলো নিবন্ধে উল্লেখ করুন। প্রয়োজনে শব্দের উৎপত্তি নিয়ে আলাদা অনুচ্ছেদ থাকতে পারে নিবন্ধে। সেখানে জল বা পানি ছাড়াও অন্য সমার্থক শব্দ নিয়েও আলোচনা থাকতে পারে। আমাদের উচিত যথাসম্ভব বিবাদ, উত্তপ্ত পরিবেশ তৈরি হওয়ার পরিস্থিত এড়িয়ে চলা। আমি সেটাই চেষ্টা করছি। শুধু জল/পানি নয় এমন আরও হাজারো শব্দ পাবেন যা নিয়ে আলোচনায় বিবাদের সম্ভবনা থাকে। এ ধরনের বিষয় ছাড়াও, আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা বাংলা উইকিপিডিয়ায় হচ্ছে, উইকিপিডিয়া:প্রশাসকদের_আলোচনাসভা পাতায় দেখুন। সেখানেও উইকিপিডিয়ার নীতিমালা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, যেখানে আপনি গঠনমূলক আলোচনায় অংশ নিতে পারবেন। আপনাদেরকে আবারও অনুরোধ জানাচ্ছি বিবাদের সম্ভবনা থাকে এমন আলোচনা এড়িয়ে চলুন, উইকিপিডিয়ার উপকারে আসে এমন কর্মকান্ডে অংশ নিন।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১০:২৯, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ (ইউটিসি)
FYI, the word "Pani" is NOT of Urdu origin, but rather of Prakrit origin, and is very common in many Indian languages. As opposed to "Jal" (pronounced "Jol" in Western Bangla), which is of a direct Sanskrit origin. So, the distinction between "Jol" and "Pani" is not that between "pure Bangla" and "Urdu-mixed Bangla", but rather that between "elitist Bangla" and "street - or common man's - Bangla". Both should be considered Bangla nevertheless, and equally "standard". (Just so happens that one is more prevalent on one side of the international/intercommunal divide, whereas the other is more prevalent on the other side. Both are Bangla's own variants, though.) -वेडा मुलगा (আলাপ) ০৪:১৩, ২৭ অক্টোবর ২০১৫ (ইউটিসি)
(A very strange and audacious claim of an "Urdu"-origin word being preferred over the Bangladesh side, when the very basis of the Bengali Language Movement (an important pillar of Bangladeshi nationalism) was opposition to the imposition of Urdu!) -वेडा मुलगा (আলাপ) ০৪:১৭, ২৭ অক্টোবর ২০১৫ (ইউটিসি)
(Kkhoma korun, ami Bangali nei, oto amar Bangla oto bhalo noy, o ekhane Bangla-y type kemon kora hoy, eta jani na, eijonne Ingrajite kotha lekhchhi / Roman lipite Bangla lekhar cheshta korchhi. -वेडा मुलगा (আলাপ) ০৪:২২, ২৭ অক্টোবর ২০১৫ (ইউটিসি))
Shamim Sarker, আপনার সাথে আমি একমত হতে পারলাম না। প্রথমত আপনি বলেছেন যে ভারতীয় চলচ্চিত্রতেই নাকি শুধু ""'জল""' শব্দটি ব্যবহৃত হয় । যা সম্পূর্ণ অর্বাচীন তথ্য। ভারতের নাগরিক হিসাবে আমি "জল" শুনতেই অভ্যস্ত। বাংলায় পানি শুনতে বড্ড কানে লাগে। দ্বিতীয়ত, আমার জানা নেই আপনি water vapour এর বাংলায় তর্জমা করে কি বলেন? পানীয় বাস্প না জলীয় বাস্প? জানার কৌতূহল রইলো। ভাগ্য বসত কিছু পূর্ববঙ্গের মানুষের সাথে কথা হয়। তারা আমার কাছে "'জল"' শব্দটাই ব্যবহার করেছেন। আমি.বাঙালি
Gnome-edit-redo.svgShamim Sarker:, যদিও আমি এই বিতর্কে আর অংশ নেব না বলেই ঠিক করেছিলাম, কারণ এই বিতর্কে যুক্তির থেকে আবেগই বেশি কাজ করেছে। তবে আপনার একটা বক্তব্য পড়ে মন্তব্য করার লোভ সামলাতে পারলাম না। আপনি বলছেন যে, জল শব্দটি গেওদের ভাষা, যাদের নিকট এখনো শিক্ষা ও সংস্কৃতি আলো পৌঁছায়নি তারাই এখনো জল ব্যবহার করে থাকে। আপনি উদহারণ চাইলে অনেক প্রথিতযশা সাহিত্যিকদের লেখা থেকে উদহারণ দিতে পারি, কিন্তু অতদূর আমি যাচ্ছি না, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জল পড়ে পাতা নড়ে ছড়াটি নিশ্চয় আপনার জানা আছে। আশা করি রবীন্দ্রনাথ আপনার চোখে একজন গেও বা অশিক্ষিত নন। নাকি তাই? আপনি শব্দটি ব্যবহার করেন না মানেই যে শব্দটি অপ্রচলিত বা অশিক্ষিতরা ব্যবহার করে থাকেন, এই যুক্তিটা কিন্তু যথেষ্ট অপমানজনক। পশ্চিমবঙ্গের মানুষদেরও আপনি একই ভাবে অপমান করলেন, কারণ তাঁরা প্রতিদিনই জল শব্দটাই ব্যবহার করে থাকেন, পশ্চিমবঙ্গে থাকি বলে আমি এটা ভালো করেই জানি। -- বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ২১:২১, ৩ জুন ২০১৬ (ইউটিসি)
Gnome-edit-redo.svgShamin Sarker: অন্যকে অপমান করে কথা বলা নিজেকে বড় করে না বরং ছোট করে। আপনি একমত না হতে পারেন, কিন্তু এখানে আপনি অপমানজনক কথা বলতে পারেন না। এটি আপনার মত শিক্ষিত লোকের কাছ থেকে কাম্য নয়। আপনি যদি আপনার মন্তব্য প্রত্যাহার করে নেন তাহলে খুশি হব। আফতাব (আলাপ) ২২:১৭, ৩ জুন ২০১৬ (ইউটিসি)
বোধিসত্ত্বদার প্রস্তাবটা একতরফা লাগছে। পশ্চিমবঙ্গের একজন সাহিত্যিক নাকি হুমায়ূন আহমেদকে এরকম একটা প্রশ্ন করেছিলেন। হুমায়ূন তখন পাল্টা প্রশ্ন করেন- "পানিফলকে কি আপনি জলফল বলবেন?"
জল ও পানি শব্দদুটো দুপারের লোকেরাই জানেন। ওপারে জল বেশি চলে, এপারে বেশি চলে পানি। পশ্চিমবঙ্গীয়রা পানি চেনেন কিন্তু ব্যবহার করেন না; বাংলাদেশীরা জল চিনি কিন্তু ব্যবহার করি না। সুতরাং শব্দদুটো সার্বজনীনভাবে স্বীকৃত হলেও সার্বজনীন প্রচলিত নয়। তাই প্রস্তাবটা চলবে না।
পানি শব্দটার মূল উৎস সংস্কৃত পানীয় (√পা+অনীয়=পানীয়)[বাংলা একাডেমী, সংসদ বাংলা অভিধান]। হিন্দুস্তানি (হিন্দি ও উর্দু) ভাষায়ও পানি শব্দটা সংস্কৃত থেকেই গিয়েছে। পান, পানাহার, পানাসক্ত শব্দগুলোও একইভাবে উদ্ভূত। সুতরাং আপনি পানীয় জল বা কোমল পানীয় যা-ই পান করুন না কেন, পানির ছোঁয়া এড়াতে পারবেন না। সুকুমারের অবাক জলপান, সত্যেন্দ্রের পানকৌড়ি/পানিকৌড়, চণ্ডীচরণের পানিফল, মুজতবার পানতোয়া/পান্তুয়া আর বাঙালির চিরকেলে পান্তাভাত (পানি+তা=পানিতা> পান্তা)- পানি বইছেই।
"জল পড়ে পাতা নড়ে" ছড়াটা কবিগুরুর নয় বলেই জানি। জলপানি (জল+পানি; ছাত্রবৃত্তি) শব্দটা তাঁর লেখাতেই পাচ্ছি- "এবার সে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হইয়া জলপানি পাচ্ছে" (বাএ)। তিনি শব্দের উপযোগিতা দেখতেন, জাতপাত নয়। তবে বাংলা ভাষায় সংস্কৃতের অপপ্রভাব নিয়ে কিন্তু তিনি যথেষ্টই সোচ্চার ছিলেন।
জল শব্দটা সংস্কৃত ভাষার শব্দ; বাংলাতে অবিকৃতভাবে গ্রহণ করা হয়েছে, অর্থাৎ তৎসম। আর সংস্কৃত পানীয় প্রাকৃতে চেহারা বদলে পানি হয়েছে, যাকে বলি তদ্ভব। এই তদ্ভব শব্দগুলোই "খাঁটি বাংলা", এবং এদের অস্বীকার করা কোনো কাজের কথা নয়।
বিবর্তনমূলক বাংলা অভিধানে দেখলাম, বাংলা ভাষায় পানি-জল দুটো শব্দেরই প্রথম লিখিত ব্যবহার করেছিলেন বড়ু চণ্ডীদাস, সে-ই ১৪৫০ সালে।
জল-পানি নিয়ে আগেও অনেক জল/পানি ঘোলা করা হয়েছে, সেসবের তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণেই বোধহয় বেলায়েত ভাইয়া বিতর্ক পরিহার করতে বলেছিলেন। যাইহোক, এই আলাপটি দেখতে পারেন। - রেজওয়ান (আলাপ) ১২:৩৬, ৭ অক্টোবর ২০১৭ (ইউটিসি)