আগা জাহিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আগা জাহিদ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামআগা জাহিদ
জন্ম (1953-01-07) ৭ জানুয়ারি ১৯৫৩ (বয়স ৬৮)
লাহোর, পাঞ্জাব, পাকিস্তান
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৬৯)
১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৫ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২২৭
রানের সংখ্যা ১৫ ১৩৪৮৪
ব্যাটিং গড় ৭.৫০ ৩৬.৮৪
১০০/৫০ -/- ২৯/৬৬
সর্বোচ্চ রান ১৪ ১৮৩*
বল করেছে - ৭৬২১
উইকেট - ১০৮
বোলিং গড় - ৩২.১৮
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ৫/২৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১৩৬/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০

আগা জাহিদ (উর্দু: آغا زاہد‎‎; জন্ম: ৭ জানুয়ারি, ১৯৫৩) পাঞ্জাবের লাহোর এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক পাকিস্তানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৭০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়কালে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে পাকিস্তানের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর পাকিস্তানি ক্রিকেটে হাবিব ব্যাংক লিমিটেড, লাহোর, পাকিস্তান ইউনিভার্সিটিজ ও পাঞ্জাব এবং ইংরেজ ক্রিকেটে ডেভন দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৭০-৭১ মৌসুম থেকে ১৯৯২-৯৩ মৌসুম পর্যন্ত আগা জাহিদের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। বেশ দক্ষ ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও মাঝে-মধ্যে মিডিয়াম পেস বোলিং করতেন আগা জাহিদ। দীর্ঘদিন বর্ণাঢ্যময় ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ২২৭ খেলায় অংশ নিয়ে তেরো হাজারের অধিক রান তুলেছেন।[১]

১৯৮২ থেকে ১৯৮৬ সাল পর্যন্ত ইংরেজ ক্রিকেটে ডেভন ও বারটন ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। এছাড়াও, প্রথম প্রচেষ্টার পর পরপর দুইবার ১৯৮৩-৮৪ মৌসুমে প্রথম বিভাগ চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন আগা জাহিদ। ১৫ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭৫ তারিখে লাহোরে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি। তাকে কোন ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অংশ নেয়া একমাত্র টেস্টে ১৪ ও ১ রান তুলেন।

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) পক্ষ থেকে প্রধান মাঠ তদারককারীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। ২০২০ সালে তিনি এ দায়িত্ব থেকে অবসর গ্রহণ করেন।[২]

এছাড়াও, এ দায়িত্বে থাকাকালীন পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯পাকিস্তান মহিলা দলের প্রশিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন। ১৯৯৬ সালে ল্যাম্বোর্ড ওয়ার্ল্ড কাপ ইংল্যান্ডে অনূর্ধ্ব-১৫ দলসহ ১৯৯৭ সালে নিজদেশে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলার জন্যে পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেন। একই বছর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত সার্ক চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা বিজয়ী পাকিস্তান এ দলের কোচ হিসেবে গমন করেন। এরপর তিনি দলকে নিয়ে ইংল্যান্ড যান। ১৯৯৫ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ রেফারির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৯ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তরুণ খেলোয়াড়দের নির্বাচনে সভাপতিত্ব করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Agha Zahid"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-১০ 
  2. Sarfraz Ahmed (১ মে ২০২০)। "Chief Curator Agha Zahid quits PCB after a brilliant knock"The News International (ইংরেজি ভাষায়)। Karachi। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-১০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]