২০১৩ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
২০১৩ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ
Copa das Confederações da FIFA
Brasil 2013[১]
টুর্নামেন্টের বিবরণ
স্বাগতিক দেশ ব্রাজিল
তারিখসমূহ ১৫ জুন - ৩০ জুন
দলসমূহ  (৬টি কনফেডারেশন থেকে)
ভেন্যু(সমূহ) ৬ (৬টি আয়োজক শহরে)
শীর্ষস্থানীয় অবস্থান
চ্যাম্পিয়নসমূহ  ব্রাজিল (৪র্থ শিরোপা)
রানার-আপ  স্পেন
তৃতীয় স্থান  ইতালি
চতুর্থ স্থান  উরুগুয়ে
প্রতিযোগিতার পরিসংখ্যান
ম্যাচ খেলেছে ১৬
গোল সংখ্যা ৬৮ (ম্যাচ প্রতি ৪.২৫টি)
উপস্থিতি ৮,০৪,৬৫৯ (ম্যাচ প্রতি ৫০,২৯১ জন)
শীর্ষ গোলদাতা স্পেন ফার্নেন্দো তোরেস
ব্রাজিল ফ্রেড
(৫ গোল)
সেরা খেলোয়াড় ব্রাজিল নেইমার
সেরা গোলরক্ষক ব্রাজিল হুলিও সিজার

২০১৩ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ (ইংরেজি: 2013 FIFA Confederations Cup) ২০১৩ সালের ফিফা কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত আন্তর্জাতিক ফুটবল প্রতিযোগিতা২০১৪ সালের বিশ্বকাপের পূর্ব-প্রস্তুতিরূপে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত হয়।[২] ১৫ থেকে ৩০ জুন, ২০১৩ তারিখ পর্যন্ত এ প্রতিযোগিতাটি সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়। স্বাগতিক ব্রাজিল ফুটবল দলটি ফিফা কনফেডারেশন্স কাপের বর্তমান শিরোপাধারী দল।

অংশতঃ এ প্রতিযোগিতাটি ২০১৪ সালের এশীয় অঞ্চল থেকে ফিফা বিশ্বকাপ যোগ্যতা নির্ধারণী খেলার সাথে সাংঘর্ষিক হবার প্রেক্ষাপটে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) ফিফাকে তারিখ পরিবর্তনের জন্যে প্রস্তাবনা প্রেরণ করে।[৩] এছাড়াও, এশিয়া থেকে কনফেডারেশন্স কাপে প্রতিনিধিত্বকারী জাপান দলের সাথে আলোচনা করে খেলার দিন নির্ধারণের জন্যেও এএফসি সিদ্ধান্ত নেয়।[৪] আর্জেন্টিনা এবং ফ্রান্সের পর তৃতীয় দল হিসেবে উরুগুয়ে, ইতালিস্পেন দলের ফিফা কর্তৃক প্রধান ৩টি প্রতিযোগিতা - বিশ্বকাপ ফুটবল, অলিম্পিক এবং কনফেডারেশন্স কাপ জয়ের প্রবল সম্ভাবনা ছিল।

ড্র[সম্পাদনা]

১ ডিসেম্বর, ২০১২ তারিখে ব্রাজিলের সাঁউ পাউলু এলাকাধীন অ্যানহেম্বি কনভেনশন সেন্টারে প্রতিযোগিতার ড্র অনুষ্ঠিত হয়।[৫][৬] একই কনফেডারেশনের একাধিক দলকে একই গ্রুপে রাখা হয়নি। প্রত্যেক গ্রুপেই উয়েফা এবং কনমেবলের প্রতিনিধি দলকে রাখা হয়। ব্রাজিল ও স্পেন স্বয়ংক্রিয়ভাবে উভয় গ্রুপে শীর্ষে ঠাঁই পায় এবং ইতালি ও উরুগুয়েকে যথাক্রমে গ্রুপ এ এবং গ্রুপ বি’তে রাখা হয়।[৭]

খেলার বল[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার ড্র নির্ধারণী অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে খেলার বল উন্মোচন করা হয়। বলের নামকরণ করা হয় কাফুসা, যা [কা]র্নিভাল, [ফু]তবল এবং [সা]ম্বা থেকে নেয়া হয়েছে।[৮] আনুষ্ঠানিকভাবে খেলার বল উন্মোচনের দিনে ব্রাজিলের সাবেক অধিনায়ক কাফু-কে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।[৮]

গোল-লাইন প্রযুক্তি[সম্পাদনা]

২ এপ্রিল, ২০১৩ তারিখে ফিফা কর্তৃক প্রতিযোগিতাটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে গোল-লাইন প্রযুক্তি হিসেবে গোলকন্ট্রোল জিএমবিএইচ ব্যবহার করবে বলে ঘোষণা দেয়।[৯]

অংশগ্রহণকারী দল[সম্পাদনা]

দলের নাম কনফেডারেশন যোগ্যতা নির্ধারণ যোগ্যতা নির্ধারণের তারিখ অংশগ্রহণের সংখ্যা
 ব্রাজিল কনমেবল ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ স্বাগতিক ৩০ অক্টোবর, ২০০৭ ৭ম
 স্পেন উয়েফা ২০১০ ফিফা বিশ্বকাপ বিজয়ী ১১ জুলাই, ২০১০ ২য়
 জাপান এএফসি ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপ বিজয়ী ২৯ জানুয়ারি, ২০১১ ৫ম
 মেক্সিকো কনকাকাফ ২০১১ কনকাকাফ গোল্ড কাপ বিজয়ী ২৫ জুন, ২০১১ ৬ষ্ঠ
 উরুগুয়ে কনমেবল ২০১১ কোপা আমেরিকা বিজয়ী ২৪ জুলাই, ২০১১ ২য়
 তাহিতি ওএফসি ২০১২ ওএফসি নেশন্স কাপ বিজয়ী ২০ জুন, ২০১২ ১ম
 ইতালি উয়েফা উয়েফা ইউরো ২০১২ রানার্স-আপ ২৮ জুন, ২০১২ ২য়
 নাইজেরিয়া ক্যাফ ২০১৩ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স বিজয়ী ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ ২য়

দলের সদস্য[সম্পাদনা]

অংশগ্রহণকারী প্রত্যেকটি দলে ২৩ জন সদস্য থাকবে। প্রত্যেকটি দলকেই ফিফা কর্তৃক ঘোষিত ৭ জুন, ২০১৩ তারিখের মধ্যে সদস্যদের নাম ঘোষণা করতে হবে।

মাঠসমূহ[সম্পাদনা]

ব্রাজিলের বিভিন্ন শহরের ৬টি স্টেডিয়াম এ প্রতিযোগিতায় ব্যবহৃত হবে।[১০]

বেলু অরিজঁত হেসিফি
এস্তাদিও গভার্নাদর মাগাহায়েজ পিন্টো
(মাইনেইরাও)

সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৬২,৫৪৭
(মানোন্নয়ন)
200px
অ্যারিনা পার্নামবাকো
সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৪৪,২৪৮
(নতুন স্টেডিয়াম)
200px
ব্রাসিলিয়া রিউ দি জানেইরু
এস্তাদিও ন্যাশিওন্যাল দি ব্রাসিলিয়া
(এস্তাদিও ন্যাশিওন্যাল)

সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৭০,০৬৪
(পুণঃনির্মাণ)
Projeto do Estádio Nacional Brasília.jpg
এস্তাদিও মারিও ফিলহো
(মারাকানা)

সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৭৬,৮০৪
(মানোন্নয়ন)[১১]
New Maracana Stadium.jpg
ফর্তালিজা সালভাদোর
এস্তাদিও প্ল্যাসিডো আদেরাল্দো ক্যাসেলো
(ক্যাসেলাও)

সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৬৪,৮৪৬
(মানোন্নয়ন)
200px
অ্যারেনা ফন্তে নোভা
সম্ভাব্য দর্শক ধারণ সংখ্যা: ৪৮,৭৪৭
(পুণঃনির্মাণ)
200px

খেলা পরিচালনা[সম্পাদনা]

১৩ মে, ২০১৩ তারিখে দশজন রেফারি ও তাদের সহকারীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়।[১২][১৩]

কনফেডারেশন রেফারি সহকারী রেফারি
এএফসি ইউইচি নিশিমুরা (জাপান) তরু সাগারা (জাপান)
Toshiyuki Nagi (জাপান)
রাভশান ইরমাতভ (উজবেকিস্তান) আব্দুলখামিদুল্লো রসুলভ (উজবেকিস্তান)
বাহাদার কোচকারভ (কিরগিজস্তান)
ক্যাফ জামেল হাইমৌদি (আলজেরিয়া) আবদেলহাক ইচিআলী (আলজেরিয়া)
রেদোয়ান আচিক (মরক্কো)
কনকাকাফ জোয়েল আগুইলার (এল সালভাদর) উইলিয়াম তোরেস (এল সালভাদর)
জোয়ান জাম্বা (এল সালভাদর)
কনমেবল দিয়েগো আবাল (আর্জেন্টিনা) হারনান মাইদানা (আর্জেন্টিনা)
জোয়ান পাবলো বেলাত্তি (আর্জেন্টিনা)
এনরিক ওসেস (চিলি) সার্গিও রোমান (চিলি)
কার্লোস এস্ত্রোজা (চিলি)
উয়েফা হাওয়ার্ড ওয়েব (ইংল্যান্ড) মাইক মুলারকি (ইংল্যান্ড)
ড্যারেন কান (ইংল্যান্ড)
ফেলিক্স ব্রাইখ (জার্মানি) স্টিফান লাপ (জার্মানি)
মার্ক বরশ (জার্মানি)
জর্ন কুইপার্স (নেদারল্যান্ডস) সান্দার ভন রোকেল (নেদারল্যান্ডস)
আরউইন জেইনস্ত্রা (নেদারল্যান্ডস)
পেদ্রো প্রোয়েনকা (পর্তুগাল) বারটিনো মিরান্ডা (পর্তুগাল)
তিয়াগো ত্রিগো (পর্তুগাল)

গ্রুপ-পর্ব[সম্পাদনা]

৩০ মে, ২০১২ তারিখে রিউ দি জানেইরুতে আনুষ্ঠানিকভাবে সময়সূচী ঘোষণা করা হয়।[১৪][১৫]

প্রত্যেক গ্রুপের শীর্ষ দুই দল সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা লাভ করবে।[১৬] গ্রুপ থেকে প্রত্যেক দলের শীর্ষস্থান নিম্নরূপে প্রদান করা হবে:

  1. সর্বাধিক পয়েন্টপ্রাপ্তি;
  2. গোল পার্থক্য;
  3. সর্বাধিকসংখ্যক গোল।

সকল সময় ব্রাজিল সময় (ইউটিসি-০৩) অনুযায়ী হবে।

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

দলের নাম খেলা জয় ড্র পরাজয় গোল বিপক্ষ গোল পার্থক্য পয়েন্ট
 ব্রাজিল +৭
 ইতালি +০
 মেক্সিকো –২
 জাপান -৫


১৯ জুন, ২০১৩
১৬:০০
ব্রাজিল  ২-০  মেক্সিকো
নেইমার গোল ৯'
জো গোল ৯০+৩'
প্রতিবেদন



গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

দলের নাম খেলা জয় ড্র পরাজয় গোল বিপক্ষ গোল পার্থক্য পয়েন্ট
 স্পেন ১৫ +১৪
 উরুগুয়ে ১১ +৮
 নাইজেরিয়া +১
 তাহিতি ২৪ −২৩
১৬ জুন, ২০১৩
১৯:০০
স্পেন  ২–১  উরুগুয়ে
পেদ্রো গোল ২০'
সলদাদো গোল ৩২'
প্রতিবেদন সুয়ারেজ গোল ৮৮'


২০ জুন, ২০১৩
১৬:০০
স্পেন  ১০-০  তাহিতি
তোরেস গোল ৫'৩৩'৫৭'৭৮'
সিলভা গোল ৩১'৮৯'
ভিলা গোল ৩৯'৪৯'৬৪'
মাতা গোল ৬৬'
প্রতিবেদন


২৩ জুন, ২০১৩
১৬:০০
নাইজেরিয়া  ০-৩  স্পেন
প্রতিবেদন অ্যালবা গোল ৩'৮৮'
তোরেস গোল ৬২'

২৩ জুন, ২০১৩
১৬:০০
উরুগুয়ে  ৮-০  তাহিতি
হার্নান্দেজ গোল ২'২৪'৪৫+১'৬৭' (পেনাল্টি)
পেরেজ গোল ২৭'
লোদেইরো গোল ৬১'
সুয়ারেজ গোল ৮২'৯০'
প্রতিবেদন

নক-আউট পর্ব[সম্পাদনা]

যদি কোন কারণে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নক-আউট পর্বে খেলায় ফলাফল না হয়, তাহলে অতিরিক্ত আরো ৩০ মিনিট খেলা হবে। এরপরও খেলায় ফলাফল না আসলে পেনাল্টি শ্যুট আউটের মাধ্যমে খেলায় ফলাফল নির্ধারণ করা হবে।[১৬]

  সেমি-ফাইনাল ফাইনাল
২৬ জুন, ২০১৩ – বেলো হরাইজন্টে
   ব্রাজিল    
  উরুগুয়ে  ১  
 
৩০ জুন, ২০১৩ – রিউ দি জানেইরু
       ব্রাজিল  
    স্পেন  ০
তৃতীয় স্থান
২৭ জুন, ২০১৩ – ফর্তালিজা ৩০ জুন, ২০১৩ – সালভাদোর
   স্পেন (পেনাল্টি)  ০ (৭)    উরুগুয়ে  ২ (২)
  ইতালি  ০ (৬)     ইতালি (পেনাল্টি)  ২ (৩)

সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]

২৬ জুন, ২০১৩
১৬:০০
ব্রাজিল  ২-১  উরুগুয়ে
ফ্রেড গোল ৪১'
পলিনহো গোল ৮৬'
প্রতিবেদন কাভানি গোল ৪৮'


তৃতীয় স্থান নির্ধারণ[সম্পাদনা]

চূড়ান্ত খেলা[সম্পাদনা]

শীর্ষ গোলদাতা[সম্পাদনা]

৫ গোল
৪ গোল
৩ গোল

বিতর্ক[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. The Portuguese pronunciation is [ˈkɔpɐ dɐs kõfedɛɾɐˈsõjz dɐ ˈfifɐ bɾɐˈziw ˈdojz ˈmiw i ˈtɾezi] in Brazil's standard pronunciation.
  2. "Plenty to look forward to in 2011"। fifa.com। 2008-05-27। সংগৃহীত 6 February 2013। "The latter two events will provide the first two qualifiers for the FIFA Confederations Cup Brazil 2013. And while that competition and the FIFA World Cup the country will organise 12 months later may seem a long way off, it is sure to come into sharper focus in July, when the Preliminary Draw for Brazil 2014 takes place in Rio de Janeiro." 
  3. "AFC asks FIFA to change Confed Cup dates"। the-afc.com। 2011-01-31। সংগৃহীত 6 February 2013 
  4. "43 in the fray for 2014 FWC qualifiers"Asian Football Confederation। March 23, 2011। সংগৃহীত 5 April 2011 
  5. "Draw that will decide the calendar of the 2014 FIFA World Cup matches will take place in Bahia in 2013"। Copa2014.gov.br/en। 29 June 2012। 
  6. "Brazil drawn with Italy, Spain to meet Uruguay"। FIFA.com। 1 December 2012। 
  7. "Draw Procedures: FIFA Confederations Cup Brazil 2013"। FIFA.com। 
  8. ৮.০ ৮.১ "Adidas Cafusa launched at Brazil 2013 draw"Fifa.com। 1 December 2012। সংগৃহীত 1 December 2012 
  9. "FIFA appoints goal-line technology provider for Brazil 2013"। FIFA.com। 2 April 2013। 
  10. "Acorn Media Group: Press Releases"। FIFA.com। সংগৃহীত 6 February 2013 
  11. "Cadeiras sao retiradas do Maracanã para conclusao da primeira etapa das obras pra a Copa do Mundo - Chairs are removed from Maracanã concluding the upgrading first step" (Portuguese ভাষায়)। Noticias.r7.com। 1990-01-06। সংগৃহীত 6 February 2013 
  12. "Match officials appointed for FIFA Confederations Cup Brazil 2013"FIFA.com। Fédération Internationale de Football Association। 13 May 2013। 
  13. "Match officials for FIFA Confederations Cup 2013"FIFA.com। Fédération Internationale de Football Association। 
  14. "FIFA Confederations Cup Brazil 2013 match schedule presented in Rio de Janeiro"। FIFA.com। 30 May 2012। 
  15. "Match Schedule – FIFA Confederations Cup Brazil 2013"। FIFA.com। 
  16. ১৬.০ ১৬.১ "Regulations – FIFA Confederations Cup Brazil 2013"। FIFA.com। 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:2013 FIFA Confederations Cup