সাম্বা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাম্বা নৃত্যরত তরুণী

সাম্বা (পর্তুগিজ উচ্চারণ: [ˈsɐ̃bɐ] ( শুনুন)), (ইংরেজি: Samba) একধরণের ব্রাজিলীয় গান ও নৃত্য। আফ্রিকা মহাদেশের পশ্চিম আফ্রিকার দাস ব্যবসা ও আফ্রিকার ধর্মীয় সংস্কৃতি হয়ে এর উৎপত্তিগত বিকাশ লাভ ঘটেছে ব্রাজিলের বাহাই এবং রিও ডি জেনিরো প্রদেশে। ১৯২০-এর দশকে গান ও নৃত্যকলায় এটি সম্পৃক্ত হয়। এটি বিশ্বের সর্বত্র ব্রাজিলের প্রতীক এবং ব্রাজিলীয়ান উৎসবের স্বীকৃতি পায়। সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আবেগ-অনুভূতিসম্পন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে এটি ব্রাজিলের জাতীয় পরিচয় বহন করছে।[১][২][৩] সাম্বা কারিওকার প্রধান শাখা বাহাইয়ের সাম্বা ডি রোডা বা বৃত্তাকারে নৃত্য ২০০৫ সালে ইউনেস্কো কর্তৃক মানবধর্মী হেরিটেজের মর্যাদা পায়। সাম্বা কারিওকা রিও ডি জেনিরোতে প্রদর্শন ও নাচা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সাম্বা শব্দের উৎপত্তি নিয়ে কয়েকটি মতবাদ প্রচলিত আছে। আরবি শব্দ জুম্বা বা জাম্বা থেকে এর উৎপত্তি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। কিংবা অনেক আফ্রিকান ভাষার একটি কিমবুনদু থেকে শব্দের উৎপত্তি হয়েছে; যেখানে স্যাম অর্থ দাও এবং বা অর্থ গ্রহণ কর।

অষ্টাদশ শতকের শেষদিকে সাম্বার দ্বৈত নৃত্য শহরাভিমূখী অগ্রসর হয়। ১৯২০ ও ১৯৩০-এর দশকে আন্তর্জাতিকভাবে এটি অসম্ভব জনপ্রিয়তা লাভ করে। ১৯৬০-এর দশকে নতুন, কিঞ্চিৎ জাজ টাইপের বসা নোভা সঙ্গীতের সুর, স্বর, ছন্দ ব্রাজিলে গভীরভাবে প্রভাব বিস্তার করে।

সাম্বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বার্ষিক উৎসবে যোগদানের জন্য প্রতি বছর পাঁচ হাজারেরও বেশী ব্যক্তিকে প্রতিযোগিতা করার জন্য প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। বিংশ শতাব্দীর প্রথম দশকে সাম্বা নামে কয়েকটি গান রচনা করেছিল। কিন্তু কোনটিই তেমন জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারেনি। ১৯১৭ সালে পেলো টেলেফোনে রেকর্ড করে যা প্রথম সত্যিকারের সাম্বা নামে পরিচিতি পায়।[৪]

বিকাশ লাভ[সম্পাদনা]

সাম্বা উৎসবের শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণকারী নর্তকীগণ

আধুনিক সাম্বা নৃত্য কোরাস গান সহযোগে বিংশ শতকের শুরুতে বিকাশ লাভ করে। ঐতিহ্যগতভাবে সাম্বায় তার সহযোগে ক্যাভাকুইনহো, বিভিন্ন ধরণের গিটার ও নানাবিধ বাদ্যযন্ত্রের সংমিশ্রণ ঘটে। ২য় বিশ্বযুদ্ধকালীন সময়ে আমেরিকান অর্কেষ্ট্রায় এটি প্রভাব ফেলে। যুদ্ধ-পরবর্তীকালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাংস্কৃতিক অঙ্গন সমৃদ্ধিতে সাম্বা নৃত্যে ট্রমবোন, ট্রামপেট, বাঁশী, চোরো, বাদক ইত্যাদির ব্যবহার শুরু হয়।

ছন্দ ও তালের পাশাপাশি সাম্বা বিভিন্ন বিষয়াদি তুলে এনেছে। তন্মধ্যে - ঐতিহাসিক খাদ্যসম্ভার, নানাবিধ নৃত্য (মিউদিনহো, কোকো, সাম্বা ডি রোডা এবং পেরান্দা), আমোদ-প্রমোদ, পোষাক হিসেবে লিনেন শার্ট ইত্যাদি অন্যতম। পাশাপাশি প্রাচীন চিত্রকর্মে নেলসন সার্গেন্তো, গিলহার্ম ডি ব্রিটো, হিতোর দোস প্রাজেরেস প্রমূখ চিত্রকরদেরকে তুলে ধরা হয়েছে।

ক্রীড়াজগতে সংশ্লিষ্টতা[সম্পাদনা]

বৈশ্বিকভাবে জনপ্রিয়তা অর্জনের পাশাপাশি এটি ফুটবল ও উৎসবে জড়িয়ে পড়ে। এরি বারোসো'র একুয়ারেলা দো ব্রাজিলের পর গেতুলিও ভার্গাস সরকার এবং মার্কিন প্রশাসনের সৎ প্রতিবেশী নীতির আলোকে কারম্যান মিরান্ডা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সাম্বার গুণগান তুলে ধরেন। অবশেষে বোসা নোভা দেশে জনপ্রিয়তার সাথে সাথে বিশ্বে সাম্বা সঙ্গীতরূপে পরিচিতি পায়। ভাষাগত দূরত্ব থাকা স্বত্ত্বেও ইউরোপ ও জাপানে এর অগণিত সমর্থকদের মন জয় করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Samba – Dicionário Cravo Albin da Música Popular Brasileira – Google translation
  2. Samba – Cliquemusic – Google translation
  3. Samba – All Brazilian Music
  4. Pelo Telefone, o primeiro samba, CD reissue

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

, documentary on the history of samba in Brazil with particular emphasis on Rio de Janeiro. The film is in Portuguese with English subtitles and approaches the subject from an interesting perspective.

  • Nosso senhor do samba. by Edigar de Alencar. Rio de Janeiro: FUNARTE, 1988.
  • O Encontro Entre Bandeira e Sinhô. by André Gardel Rio de Janeiro: Secretaria Municipal de Cultura, 1996.
  • O Sol nasceu pra todos:a História Secreta do Samba. by Luis Carlos de Morais Junior. Rio de Janeiro: Litteris, 2011.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]