১৬ ফাল্গুন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

১৬ ফাল্গুন বাংলা বর্ষপঞ্জী অনুসারে বছরের ৩২২ তম দিন। বছর শেষ হতে আরো ৪৩ দিন (অধিবর্ষে ৪৪ দিন) বাকি রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঘটনাবলী[সম্পাদনা]

  • ১০৬৬ইং - ওয়েস্টমিনিস্টার অ্যাবি চালু হয়।
  • ১৫২২ইং - ডেনমাকের্র রাজা দ্বিতীয় ক্রিস্টিয়ানের বিরুদ্ধে সুইডেনের জনগণের গণঅভ্যুত্থান শুরু হয়।
  • ১৫৬৮ইং - সম্রাট আকবরের কাছে রানা উদয় সিংয়ের আসমর্পণ।
  • ১৭০৮ইং - নিউইয়র্কে ক্রীতদাসদের বিদ্রোহে ১১ জন নিহত।
  • ১৭২৮ইং - লন্ডনে জর্জ এফ হ্যান্ডেলের অপেরা প্রদর্শনী হয়।
  • ১৮১৩ইং - তৎকালীন ইউরোপের দুই বড় শক্তি প্রুশিয়া ও রাশিয়ার মধ্যে রাজনৈতিক এবং সামরিক জোট গঠিত হয়।
  • ১৮২০ইং - চতুর্থ জর্জ ইংল্যান্ডের রাজা হিসেবে অভিষিক্ত হন।
  • ১৮২৭ইং - আমেরিকায় প্রথম বাণিজ্যিক রেলপথ চালু হয়।
  • ১৮৭৭ইং - তুরস্ক ও সার্বিয়ার মধ্যে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর।
  • ১৮৮৩ইং - ভারতে প্রথম টেলিগ্রাফ চালু হয়।
  • ১৯১৯ইং - স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আফগানিস্তানের অভ্যুদয়।
  • ১৯২২ইং - মিশর স্বাধীনতা লাভ করে।
  • ১৯৪৮ইং - ব্রিটিশ সৈন্যদের শেষ দল ভারত ত্যাগ করে।
  • ১৯৫১ইং - জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে কাশ্মীর প্রসঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়।
  • ১৯৭৪ইং - বাংলাদেশে ১ম আদমশুমারীর কাজ সম্পন্ন।
  • ১৯৭৯ইং - ইরানের ইসলামী বিপ্লবের রূপকার মরহুম ইমাম খোমেনী ধর্মীয় শহর কোমে ফিরে আসেন।
  • ১৯৮২ইং - বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ ভবনের উদ্বোধন হয়।
  • ১৯৮৪ইং - স্বৈরশাসনবিরোধী আন্দোলনে পুলিশের ট্রাকের তলায় পিষ্ট হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সেলিম ও দেলোয়ার শহীদ হন।
  • ১৯৮৮ইং - ইরাকের আগ্রাসী সাদ্দামের সেনারা ইরানের মুজাহিদদের হাতে বিভিন্ন রণাঙ্গনে উপর্যুপরি পরাজয়ে দিশেহারা হয়ে রাজধানী তেহরানসহ ইরানের বিভিন্ন শহরের আবাসিক এলাকায় চতুর্থ পর্যায়ে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে।
  • ১৯৯১ইং - তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট সিনিয়র জর্জ বুশ ইরাকের বিরুদ্ধে ৪০ দিনের যুদ্ধের পর যুদ্ধ-বিরতি ঘোষণা করেন।
  • ২০১৩ইং - দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় প্রদান করে আন্তর্জাতিক আপরাধ ট্রাইবুনাল।

জন্ম[সম্পাদনা]

  • ১২৬১ইং - নরওয়ের রাণী মার্গারেট।
  • ১৮৪৪ইং - বিখ্যাত নাট্যব্যক্তিত্ব গিরিশচন্দ্র ঘোষ।
  • ১৯৫০ইং - আজম খান, জনপ্রিয় বাংলাদেশী গায়ক।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

  • ১৩২৬ইং - অস্ট্রিয়ার ডিউক প্রথম লিওপল্ড।
  • ১৭১২ইং - প্রথম বাহাদুর শাহ।
  • ১৮৯০ইং - রাশিয়ার জগদ্বিখ্যাত সুরকার আরেকজান্ডার বরোদিন।
  • ১৯১৬ইং - মার্কিন কথাসাহিত্যিক হেনরি জেমস।
  • ১৯৭০ইং - সাহিত্য সমালোচক শ্রীকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়।

ছুটি এবং অন্যান্য[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]