স্কাইপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্কাইপ
স্কাইপ লোগো
উইন্ডোজ ৮.১ এর উইন্ডোজ ডেস্কটপের স্কাইপ ৭ স্ক্রীনশট
উইন্ডোজ ৮.১ এর উইন্ডোজ ডেস্কটপের স্কাইপ ৭ স্ক্রীনশট
মূল উদ্ভাবকপ্রিত কাসিসেলু এবং জন টালিন
উন্নয়নকারীস্কাইপ প্রযুক্তি
(মাইক্রোসফট কর্পোরেশন)
প্রাথমিক সংস্করণআগস্ট ২০০৩; ১৫ বছর আগে (2003-08)
উন্নয়ন অবস্থাসক্রিয়
লেখা হয়েছেডেলফি, সি এবং সি++
অপারেটিং সিস্টেমউইন্ডোজ, ম্যাক, লিনাক্স, এনড্রয়েড, আইওএস, উইন্ডোজ ফোন, ব্ল্যাকবেরি, নোকিয়া এক্স, ফায়ার ওএস, এক্সবক্স ওয়ান, প্লেস্টেশন ভিতা এবং প্লেস্টেশন পোর্টেবল
উপলব্ধ৩৮ ভাষা
ধরণভিডিও কনফারেন্সিং, ভিওআইপি এবং তাৎক্ষণিক বার্তা প্রেরক
লাইসেন্সফ্রিমিয়াম (অ্যাডওয়ার)
আলেক্সা স্থানnegative increase২৪৪ (মার্চ ২০১৫)[১]
ওয়েবসাইটskype.com/en/

স্কাইপ (/[অসমর্থিত ইনপুট: 'icon']ˈskp/; ইংরেজি: Skype) একটি ভিওআইপি সেবা এবং সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন। এই সেবার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ইন্টারনেটে যুক্ত হয়ে পরস্পরের সাথে ভয়েস, ভিডিও এবং তাৎক্ষণিক বার্তার মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারে। একজন স্কাইপ ব্যবহারকারী অন্য স্কাইপ ব্যবহারকারীকে বিনামূল্যে কল করতে পারে। ২০১১ সালে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন ৮·৫ বিলিয়ন ডলারে স্কাইপ লিমিটেডকে কিনে নেয়।

বৈশিষ্ট্যসমূহ[সম্পাদনা]

নিবন্ধিত স্কাইপ ব্যবহারকারীদের স্কাইপ আইডি থাকে, যার মাধ্যমে তারা যোগাযোগ করে। এই আইডিসমূহ স্কাইপ ডিরেক্টরিতে তালিকাভুক্ত থাকে। ২০০৬ সালের জানুয়ারিতে উইন্ডোজ এবং ম্যাকিনটোশ অপারেটিং সিস্টেমের জন্য স্কাইপ ভিডিও কনফারেন্সিং চালু করে। ২০০৮ সালের ১৩ মার্চ লিনাক্সের জন্যও এই সুবিধা চালু করা হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০০৩ সালে ডেনমার্কের ধমিজা, জানুজ ফ্রিজ এবং সুইডেনের নিকলাস জেনস্ট্রম স্কাইপ প্রতিষ্ঠা করেন।[২] পরবর্তীতে এস্তোনিয়ার আহতি হেইলা, প্রীত কাসেসালু এবং জান তালিন তাদের সাথে স্কাইপ সফটওয়্যারের উন্নতি সাধন করেন। পিয়ার-টু-পিয়ার ফাইল শেয়ারিং সফটওয়্যার কাজা'র মাধ্যমে নেপথ্যে থেকে কাজ করেন তারা।[৩] ২০০৩ সালের আগস্ট মাসে জনসমক্ষে স্কাইপ সফটওয়্যারের প্রথম বেটা সংস্করণ প্রকাশ করা হয়।

প্রতিদ্বন্দ্বী[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Skype.com Site Info"Alexa Internet। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৩-৩১ 
  2. "About Skype: What is Skype?"। ১১ মে ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১০ 
  3. "Skype — A Baltic Success Story"। credit-suisse.com। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]