সিকিম ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিকিম ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট
প্রেসিডেন্টপবন কুমার চামলিং
লোকসভায় নেতাকেউই নয়
রাজ্যসভায় নেতাহিশে লাচুংপা
প্রতিষ্ঠা৪ মার্চ ১৯৯৩ (২৯ বছর আগে) (1993-03-04)
সদর দপ্তরএসডিএফ ভবন, ইন্দিরা বাইপাস গ্যাংটক, সিকিম
মতাদর্শগণতান্ত্রিক সমাজতন্ত্র
রাজনৈতিক অবস্থানমধ্য-বাম থেকে বামপন্থী
স্বীকৃতিরাজ্য দল[১]
জোটজাতীয় গণতান্ত্রিক জোট (২০১৪-২০১৯)
লোকসভায় আসন
০ / ৫৪৩
রাজ্যসভায় আসন
১ / ২৪৫
সিকিম বিধানসভা-এ আসন
১ / ৩২
নির্বাচনী প্রতীক
Indian Election Symbol Umberlla.png
ভারতের রাজনীতি
রাজনৈতিক দল

সিকিম ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (এসডিএফ) হলো ভারতের সিকিম রাজ্যের একটি আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল। এটি ১২ ডিসেম্বর ১৯৯৪ থেকে ২৩ মে ২০১৯ পর্যন্ত সিকিমে শাসক দল ছিল।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

দলটি ১৯৯৩ সালে পবন কুমার চামলিং দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এটি ১৯৯৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত পবন কুমার চামলিংকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে সিকিম রাজ্য শাসন করেছে। ১৯৯৯ এবং ২০০৪ সালের রাজ্য নির্বাচনে দলটি তার অবস্থান সুসংহত করে। এটি ২০০৪ সালের নির্বাচনে ৩২ টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ৩১ টি জিতেছিল।[২] ২০০৯ সালের বিধানসভা নির্বাচনে, দলটি ৩২টি আসনের সবকটিতে জয়লাভ করে। এটি একমাত্র লোকসভা আসনটিও ধরে রেখেছে।[৩] ২০১৪ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এসডিএফ ২২টি আসন জিতেছে এবং ক্ষমতা ধরে রেখেছে।

২০১৬ সালের মে মাসে, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ আসামে তার প্রথম সরকার গঠন করার পরে বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মাকে এর আহ্বায়ক হিসাবে উত্তর-পূর্ব গণতান্ত্রিক জোট (এনইডিএ) নামে একটি নতুন জোট গঠন করা হয়েছিল।[৪] উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য সিকিম, আসাম, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ এবং নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রীরাও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত। এইভাবে, সিকিম ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট এনডিএ নেতৃত্বাধীন এনইডিএ-তে যোগ দেয়।[৫]

পবন কুমার চামলিং ২০১৯ সালের সিকিম বিধানসভা নির্বাচনের পরে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন কারণ প্রাক্তন সদস্য প্রেম সিং তামাং-এর সিকিম ক্রান্তিকারী মোর্চা দল ৩২টির মধ্যে ১৭টি আসনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেছিল। এসডিএফ দল বাকি ১৫টি আসনে জিতেছে। কিন্তু ২০১৯ সালের আগস্টে, ১০ জন বিধায়ক ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগদানের জন্য তার দল ত্যাগ করেন এবং একই মাসে আরও দুইজন বিধায়ক সিকিম ক্রান্তিকারী মোর্চায় যোগ দেন। এইভাবে পবন কুমার চামলিংকে তার দলের একমাত্র বিধায়ক বানিয়েছেন।[৬][৭][৮]

সম্মুখ সংগঠন[সম্পাদনা]

  • যুব শাখা
  • ছাত্র শাখা
  • মহিলা শাখা
  • শ্রমিক শাখা
  • চাষি এবং জৈব কৃষক শাখা
  • প্রাক্তন সৈনিক শাখা
  • তফসিলি উপজাতি কল্যাণ শাখা
  • তফসিলি জাতি কল্যাণ শাখা
  • চালক শাখা
  • ব্যবসায়ী শাখা

মুখ্যমন্ত্রীর তালিকা[সম্পাদনা]

ক্রম নাম
(কেন্দ্র)
মেয়াদ দিন
পবন কুমার চামলিং

(নামচি-সিংহিথাং)
১২ ডিসেম্বর ১৯৯৪ ২৩ মে ২০১৯ ২৪ বছর, ১৬২ দিন

নির্বাচনী রেকর্ড[সম্পাদনা]

সিকিম বিধানসভা নির্বাচন
বছর মোট আসন আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আসন জিতেছে বাজেয়াপ্ত আমানত % ভোট প্রতিদ্বন্দ্বিতা সূত্র
১৯৯৪ ৩২ ৩২ ১৯ ৪২.০০ [৯]
১৯৯৯ ৩২ ৩১ ২৪ ৫২.৮৩ [১০]
২০০৪ ৩২ ৩২ ৩১ ৭১.০৯ [১১]
২০০৯ ৩২ ৩২ ৩২ ৬৭.৫২ [১২]
২০০৯ (উপনির্বাচন) ৮০.৭৭
২০১৪ ৩২ ৩২ ২২ ৫৬.৭৪ [১৩]
২০১৪ (উপনির্বাচন) ৪৩.৬৮ [১৪]
২০১৭ (উপনির্বাচন) ৯০.১৫ [১৫]
২০১৯ ৩২ ৩২ ১৫ ৪৭.৬৩ [১৬]
২০১৯ (উপনির্বাচন) ১৫.১৮ [১৭] [১৮] [১৯]
লোকসভা নির্বাচন, সিকিম
বছর মোট আসন আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আসন জিতেছে বাজেয়াপ্ত আমানত % ভোট প্রতিদ্বন্দ্বিতা সূত্র
১৯৯৬ ৭২.১৫ [২০]
১৯৯৮ ৬৫.৭২ [২১]
১৯৯৯ ৫২.৫৬ [২২]
২০০৪ ৬৯.৮৪ [২৩]
২০০৯ ৬৩.৩০ [২৪]
২০১৪ ৫২.৯৮ [২৫]
২০১৯ ৪৩.৯২ [২৬]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

  • সিকিমে নির্বাচন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "List of Political Parties and Election Symbols main Notification Dated 18.01.2013" (পিডিএফ)। India: Election Commission of India। ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৩ 
  2. "Archived copy"। ৫ অক্টোবর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-১০-০১ 
  3. http://ceosikkim.nic.in/Index.htm Election Results 2009
  4. "Sikkim CM wants BJP chief to step in"The Times of India 
  5. "Amit Shah holds meeting with northeast CMS, forms alliance"। ২৫ মে ২০১৬। 
  6. BJP now main opposition party in Sikkim even without winning a single seat[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ] [permanent dead link]
  7. 10 SDF legislators switch over to BJP
  8. Ten SDF MLAs join BJP: Sikkim may be headed towards Arunachal Pradesh route, as mass crossovers leave ex-CM in the lurch
  9. "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 1994 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM"। ECI। ১৯৯৪। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৯ "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 1994 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM".
  10. "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 1999 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM"। ECI। ১৯৯৯। সংগ্রহের তারিখ ২৫ নভেম্বর ২০১৯ "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 1999 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM".
  11. "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2004 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM"। ECI। ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৯ "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2004 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM".
  12. "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2009 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM"। ECI। ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৯ "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2009 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM".
  13. "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2014 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM"। ECI। ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৫ নভেম্বর ২০১৯ "STATISTICAL REPORT ON GENERAL ELECTION, 2014 TO THE LEGISLATIVE ASSEMBLY OF SIKKIM".
  14. "Bye Election Result 2014: Sikkim Rangang-Yangang-15"। ECI। ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৯ "Bye Election Result 2014: Sikkim Rangang-Yangang-15".
  15. "Bye Election Result 2017: Sikkim 28- Upper Burtuk (AC)"। ECI। ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৮ নভেম্বর ২০১৯ "Bye Election Result 2017: Sikkim 28- Upper Burtuk (AC)".
  16. "SKM ends Chamling's 25-year rule"FRONTLINE। ৭ জুন ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৯ "SKM ends Chamling's 25-year rule".
  17. "Final result of Poklok-Kamrang bye-poll"Sikkim Express (Facebook)। ২৫ অক্টোবর ২০১৯। ২০২২-০২-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৯ "Final result of Poklok-Kamrang bye-poll".
  18. "Final result of Martam-Rumtek bye-poll"Sikkim Express (Facebook)। ২৫ অক্টোবর ২০১৯। ২০২২-০২-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০১৯ "Final result of Martam-Rumtek bye-poll".
  19. "Final result of Gangtok bye-poll"Sikkim Express (Facebook)। ২৫ অক্টোবর ২০১৯। ২০২২-০২-২৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ নভেম্বর ২০১৯ "Final result of Gangtok bye-poll".
  20. "Statistical Report on General Elections, 1996 to the Eleventh Lok Sabha" (পিডিএফ)। Election Commission of India। পৃষ্ঠা 385। Archived from the original on ১৮ জুলাই ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৪  (PDF).
  21. "Statistical Report on General Elections, 1998 to the Twelfth Lok Sabha" (পিডিএফ)। Election Commission of India। পৃষ্ঠা 233। Archived from the original on ২০ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৪  (PDF).
  22. "Statistical Report on General Elections, 1999 to the Thirteenth Lok Sabha" (পিডিএফ)। Election Commission of India। পৃষ্ঠা 224। Archived from the original on ১৮ জুলাই ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৪  (PDF).
  23. "Statistical Report on General Elections, 2004 to the Fourteenth Lok Sabha" (পিডিএফ)। Election Commission of India। পৃষ্ঠা 281। Archived from the original on ১৮ জুলাই ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৪  (PDF).
  24. "Constituency Wise Detailed Results" (পিডিএফ)। Election Commission of India। পৃষ্ঠা 122। Archived from the original on ২ আগস্ট ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৪  (PDF).
  25. "Constituencywise-All Candidates"। Election Commission of India। ১৭ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  26. "Sikkim Lok Sabha Election Results 2019 Live"News 18। ২৭ মে ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১৯ "Sikkim Lok Sabha Election Results 2019 Live".

বহিস্থ সংযোগ[সম্পাদনা]