রোশন গুণরত্নে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রোশন গুণরত্নে
රොෂාන් ගුණරත්න
রোশন গুণরত্নে.jpg
১৯৮২ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে রোশন গুণরত্নে
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরোশন পূণ্যজিৎ বিজেসিংহে গুণরত্নে
জন্ম(১৯৬২-০১-২৬)২৬ জানুয়ারি ১৯৬২
কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
মৃত্যু২১ জুলাই ২০০৫(2005-07-21) (বয়স ৪৩)
ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ২৪)
২২ এপ্রিল ১৯৮৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৩
রানের সংখ্যা - ৯৫
ব্যাটিং গড় - ৮.৬৩
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান - ২৯
বল করেছে ১০২ ১০৫৬
উইকেট - ১৭
বোলিং গড় - ৩৫.২৩
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ৪/৩৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১০/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৮ মার্চ, ২০২০

রোশন পূণ্যজিৎ বিজেসিংহে গুণরত্নে (সিংহলি: රොෂාන් ගුණරත්න; জন্ম: ২৬ জানুয়ারি, ১৯৬২ - মৃত্যু: ২১ জুলাই, ২০০৫) কলম্বো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮৩ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে শ্রীলঙ্কার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটে কলম্বো ক্রিকেট ক্লাব ও নোমাডস স্পোর্টস ক্লাব দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ লেগ ব্রেক বোলিং করতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন রোশন গুণরত্নে

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

কলম্বোর নালন্দা কলেজে অধ্যয়ন করেছেন। বিদ্যালয়ে থাকাকালে ১৯৮২ সালে কলেজ ক্রিকেট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ১৯৮২-৮৩ মৌসুম থেকে ১৯৮৮-৮৯ মৌসুম পর্যন্ত রোশন গুণরত্নে’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ঘরোয়া ক্রিকেটে এনসিসি, মুরস এসসি ও নোমাডস দলের সদস্যরূপে প্রথম বিভাগে খেলেন। প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ১৩ খেলায় অংশ নিয়ে মাত্র ১৭ উইকেট পেয়েছেন।

১৯৮২-৮৩ মৌসুমে সফররত অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে সভাপতি বোর্ড একাদশের সদস্যরূপে নিজস্ব প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের প্রথম খেলায় অংশ নেন। কেপলার ওয়েসেলসগ্রেগ চ্যাপেলের উইকেট নিয়ে খেলায় ৬৬ রান খরচায় ২ উইকেট পান। ফলশ্রুতিতে, ক্যান্ডিতে অনুষ্ঠিত সিরিজের একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ করেন তিনি। ইতোমধ্যে লেগ স্পিনার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ডিএস ডি সিলভা থাকা সত্ত্বেও দল নির্বাচকমণ্ডলী টেস্ট দলে তাকে রাখেন। কিন্তু, তার এ অন্তর্ভূক্তি ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন রোশন গুণরত্নে। ২২ এপ্রিল, ১৯৮৩ তারিখে ক্যান্ডিতে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৯৮২-৮৩ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া দল শ্রীলঙ্কা গমন করে। ক্যান্ডিতে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে শ্রীলঙ্কার ২৪তম ক্যাপধারী হন। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

অস্ট্রেলিয়া দল ৫১৪/৪ তুলে ইনিংস ঘোষণা করে। ১৭ ওভারে ০/৮৪ লাভ করেন। এছাড়াও, কোন রান সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হন। খেলায় তার দল ইনিংস ব্যবধানে পরাজয়বরণ করে। এরফলে, তাকে দলের বাইরে রাখা হয়।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

এরপর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত মাতা ও বোনের সাথে যোগ দিতে চলে যান। আকস্মিকভাবে হৃদযন্ত্রক্রীয়ায় আক্রান্ত হন।[১] অতঃপর ২১ জুলাই, ২০০৫ তারিখে মাত্র ৪৩ বছর বয়সে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া এলাকায় রোশন গুণরত্নে’র দেহাবসান ঘটে।

শ্রীধরন জগন্নাথনঅনূঢ়া রাণাসিংহের পর তৃতীয় শ্রীলঙ্কান টেস্ট খেলোয়াড় হিসেবে মৃত্যুবরণ করেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ক্যান্ডি টেস্টের প্রথম দিনে শ্রীলঙ্কা দল তার মৃত্যুতে বাহুতে কালো কাপড় পরিধান করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Roshan Guneratne passes away"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]