রেশমবাজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

রেশমবাজ
Black rajah
Close wing position of Charaxes solon, Fabricius, 1793 – Black Rajah WLB.jpg
ডানা বন্ধ অবস্থায়
Open wing position of Charaxes solon Fabricius, 1793 – Black Rajah.jpg
ডানা খোলা অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Nymphalidae
গোত্র: Charaxini
গণ: Charaxes
প্রজাতি: C. solon
দ্বিপদী নাম
Charaxes solon
(Fabricius) 1793
প্রতিশব্দ

রেশমবাজ(বৈজ্ঞানিক নাম: Charaxes solon (Fabricius)) এক প্রজাতির মাঝারী আকারের প্রজাপতি। এরা ‘নিমফ্যালিডি’ গোত্রের এবং চারাক্সিনি উপগোত্রের সদস্য।[১]

আকার[সম্পাদনা]

রেশমবাজ এর প্রসারিত অবস্থায় ডানার আকার ৭০-৮০ মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের হয়।[২]

উপপ্রজাতি[সম্পাদনা]

ভারতে প্রাপ্ত রেশমবাজ এর উপপ্রজাতি হল- [৩]

  • Charaxes solon solon Fabricius, 1793 – Pale Black Rajah
  • Charaxes solon sulphureus Rothschild, 1900 – Sulphur Black Rajah

বর্ণনা[সম্পাদনা]

প্রজাপতির দেহাংশের পরিচয় বিষদ জানার জন্য প্রজাপতির দেহ এবং ডানার অংশের নির্দেশিকা দেখুন:-

ডানার উপরিতল কালো এবং কালচে বাদামীর সংমিশ্রন। উভয় ডানায় ডিসকাল অংশে আড়াআড়ি ভাবে ঘন সন্নিভূত একসারি হলদে সবুজ অথবা সবজে সাদা ছোপ দেখা যায়। উক্ত ছোপগুলি এতই ঘনীভূত যে এদের একটি বন্ধনীর মত দেখায়। এই ডিসকাল ছোপগুলি বৃহৎ আকারের, তবে সামনের ডানার শীর্ষের দিকে এরা ক্রমশ ক্ষুদ্রতর আকারের হয় এবং এদের মধ্যেকারের দূরত্বও বেশী। সেই কারনে মনে হয় যে ঘনীভূত ছোপ দ্বারা গঠিত ডিসকাল বন্ধনীটি সামনের ডানার শীর্ষভাগে পৌঁছে কতকগুলি ক্ষুদ্রতর ছোপে খন্ডিত হয়েছে।

উক্ত ডিসকাল ছোপ গুলি কখনো সখনো সাদাটে হয়। সামনের ডানায় বিভিন্ন আকারের একসারি সাব-টার্মিনাল সবজে-হলুদ ছোপ দেখা যায় যা ডানার শীর্ষের দিকে ক্রমশ অস্পষ্ট হয়ে গেছে। পিছনের ডানায় একসারি সবজে-হলুদ লম্বাটে এবং অনিয়মিত আকারের সাব-টার্মিনাল ছোপ বিদ্যমান যা ডানার শীর্ষভাগ থেকে টর্নাস অবধি বিস্তৃত এবং টর্নাস এ অবস্থিত শেষ ছোপটি সবচাইতে লম্বাটে এবং তীর্যক। টার্মিনাল অথবা প্বার্শপ্রান্তিক অংশে একসারি অনিয়মিত আকারের সবজে-হলুদ ছোপ চোখে পড়ে।

ডানার নিম্নতল রূপালী এবং খয়েরী রঙের সংমিশ্রণ এবং উভয় ডানাতেই ছোট বড় ঢেউ খেলানো সরু কালো রেখার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। উভয় ডানাতে সাবটার্মিনাল এবং টার্মিনাল সবজে হলুদ ছোপ এর সারি বর্তমান। পিছনের ডানায় টার্মিনাল ছোপগুলি অর্ধচন্দ্রাকৃতি অথবা ক্ষীণচন্দ্রাকৃতি। সামনের ডানার সাবটার্মিনাল ছোপগুলি অপেক্ষাকৃত অস্পষ্ট।

পিছনের ডানায় ২ এবং ৪ নং শিরাস্থলে দুটি সমান আকৃতি বিশিষ্ট লেজ বিদ্যমান। পুরুষ নমুনা অপেক্ষা স্ত্রীদের লেজ দুটি অধিকতর লম্বা, তবে পুরুষদের লেজদুটি তীক্ষ্ণতর।

শুঙ্গ কালো এবং সূক্ষ্ম সাদা বলয় যুক্ত। মাথার উপরিতলে পাশের দিকে কয়েকটি সাদা সূক্ষ্ম ফোঁটা অথবা বিন্দু দেখা যায়। মাথা, বক্ষদেশ এবং উদর উপরিতলে কালচে এবং কালচে বাদামী এবং নিম্নতলে খয়েরী হয়।

আচরণ[সম্পাদনা]

এদের ওড়ার ভংগি খুব দ্রুত।[৪] এদের ২০০০মিটার উচ্চতা অবধি দেখা যায় আবার অনেক সময় মাটির কাছাকাছিও উড়তে দেখা যায়। পচা ফলের রস, প্রানীর বিষ্ঠা এবং ভেজা মাটি থেকে রস আহরণ করে। পুরুষ রেশমবাজরা অন্যান্য প্রজাতির রাজা দের সাথে একসাথে ভেজা মাটিতে বসে জলপান করতে দেখা যায়। এরা মাঝে মাঝে ডানা খোলা রেখে রোদ পোহায়। ফুলে এরা প্রায় বসেই না।[৫]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Pratap Singh, Arun (২০১১)। Butterflies of India (1st সংস্করণ)। Utter Pradesh: Om Books International। পৃষ্ঠা 116। আইএসবিএন 978-93-80069-60-9 
  2. Haider Chowdhury, Shafique; Hossain, Monwar (December,2011)। Butterflies of Bangladesh-A pictorial Handbook। Bangladesh: Prokriti O Jibon Foundation। পৃষ্ঠা 71। আইএসবিএন 978-984-33-4308-6  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  3. "Rapala pheretima Hewitson, 1863 – Copper Flash"। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মার্চ ২০১৭ 
  4. Kunte, Krushnamegh (২০১৩)। Butterflies of The Garo Hills। Dehradun: Samrakshan Trust, Titli Trust and Indian Foundation of Butterflies। পৃষ্ঠা ৭৫। 
  5. বসু রায়, অর্জন; বৈদ্য, সারিকা; রায়, লিপিকা। সুন্দরবনের কিছু পরিচিত প্রজাপতি (March 2014 সংস্করণ)। সুন্দরবন জীবপরিমণ্ডল,Department of Forest Government of West Bengal। পৃষ্ঠা 74।