রাজনীতি (২০১৭-এর চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রাজনীতি
রাজনীতি পোস্টার.jpg
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত পোস্টার
পরিচালকবুলবুল বিশ্বাস
প্রযোজকআশফাক আহমেদ
রচয়িতাবুলবুল বিশ্বাস
সংলাপ:
দেলোয়ার হোসেন দিল
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকার
চিত্রগ্রাহকআসাদুজ্জামান মজনু
সম্পাদকতৌহিদ হোসেন চৌধুরী
প্রযোজনা
কোম্পানি
অ্যারো মোশন আর্টস
পরিবেশকঅ্যারো মোশন আর্টস
মুক্তি
  • ২৬ জুন ২০১৭ (2017-06-26)
দৈর্ঘ্য১৩০ মিনিট[১]
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা
আয়১.৬৩ কোটি[২]

রাজনীতি হচ্ছে ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী রাজনৈতিক-নাট্য চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন বুলবুল বিশ্বাস ও অ্যারো মোশন আর্টসের ব্যানারে প্রযোজনা করেছেন আশফাক আহমেদ।[৩] চলচ্চিত্রটির কাহিনী ও চিত্রনাট্য লিখেছেন বুলবুল বিশ্বাস নিজেই এবং সংলাপ লিখেছেন দেলোয়ার হোসেন দিল।[৪] এতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান, অপু বিশ্বাস, আনিসুর রহমান মিলন, সাদেক বাচ্চু, অমিত হাসান প্রমুখ।[৫]

চলচ্চিত্রটির সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন হাবিব ওয়াহিদ, ফুয়াদ আল মুক্তাদির ও প্রিতম হাসান। এটি ২০১৭ সালের ২৬ জুন বাংলাদেশে মুক্তি পায়।[৬]

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

অয়ন (শাকিব খান) একজন প্রবাসী বাংলাদেশী। দক্ষিণ আফ্রিকায় পড়াশোনা শেষ করে দেশে ফিরে একটি আইটি ফার্ম খোলার স্বপ্ন দেখেন। তাঁর বাবা (আলীরাজ) একজন বিখ্যাত রাজনীতিবিদ। তিনি অয়নকে কোনোভাবেই রাজনীতিতে জড়াতে চান না।

অয়ন যখন মাইক্রোসফটের চাকরি ছেড়ে বাংলাদেশে ফেরত আসেন, তখন তাঁর বাবা এবং মা (সাবেরি আলম) খুবই চিন্তিত হন। বড়ভাই শাকিল (আনিসুর রহমান মিলন) অয়নের ভীষণ ভালোবাসে এবং তাঁকে আপন করে নেয়। অয়ন যখন এলাকা ভ্রমণে বের হয় তখন সে অর্ষাকে (অপু বিশ্বাস) দেখে প্রেমে পড়ে যায়, অর্ষাও তাঁকে ভালোবেসে ফেলে। অর্ষার বাবা (সাদেক বাচ্চু) বিরোধী দলীয় চেয়ারম্যান। ফলে অর্ষার ভাই পাপ্পুর (ডি জে সোহেল) সঙ্গে তাঁর মারামারি হয় এবং এর প্রতিশোধ নিতে শাকিল পাপ্পুকে মারধর করে। এর ফলে শাকিলও অর্ষার প্রেমে পড়ে যায়। দুর্ঘটনাবশত শাকিলকে পাপ্পুর বন্দুকের আঘাত থেকে বাঁচানোর জন্য অয়ন পাপ্পুকে খুন করে ফেলে। শাকিল এর ফায়দা লুটে অয়নকে খুনি হিসেবে চিহ্নিত করে যাতে সে অর্ষাকে পেতে পারে। এ খবর শুনে অয়নের বাবার হার্ট অ্যাটাক হয়। ফলে অয়ন তাঁর বাবার জায়গায় রাজনীতিতে নামতে বাধ্য হন। অয়নের উন্নতি দেখে শাকিল রাগে দল ছেড়ে দিয়ে বিরোধীদের দলে যোগ দেন। [১]

অভিনয়[সম্পাদনা]

[৭]

প্রযোজনা[সম্পাদনা]

সঙ্গীত[সম্পাদনা]

রাজনীতি (অরিজিনাল মোশন পিকচার সাউন্ডট্র‍্যাক)
হাবিব ওয়াহিদ, ফুয়াদ আল মুক্তাদির, প্রীতম হাসান কর্তৃক সাউন্ডট্র্যাক অ্যালবাম
মুক্তির তারিখ২০১৭
শব্দধারণের সময়২০১৬
শব্দধারণকেন্দ্রঅ্যারোও মোশন আর্টস
ঘরানাপূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সঙ্গীত
দৈর্ঘ্য১৩:৩০
ভাষাবাংলা
সঙ্গীত প্রকাশনীসনি ডেডসি বেঙ্গলি
প্রযোজকহাবিব ওয়াহিদ, ফুয়াদ আল মুক্তাদির
রাজনীতি থেকে একক গান
  1. "ও আকাশ বলে দেনা রে"
    মুক্তির তারিখ: ১৪ জুন ২০১৭
  2. "ঘরে ফিরে এলো রে"
    মুক্তির তারিখ: ১৯ জুন ২০১৭
  3. "রঙে রঙে মনের রঙে"
    মুক্তির তারিখ: ২২ জুন ২০১৭
  4. "প্রেমের মাঝে"
    মুক্তির তারিখ: ২৫ জুন ২০১৭
হাবিব ওয়াহিদ কালক্রম
ভালবাসা এমনই হয়
(২০১৭)
রাজনীতি
(২০১৭)
ফুয়াদ আল মুক্তাদির কালক্রম
আইসক্রিম
(২০১৬)
রাজনীতি
(২০১৭)
প্রিতম হাসান কালক্রম
লোকাল বাস
(২০১৬)
রাজনীতি
(২০১৭)
দেবী
(২০১৮)

রাজনীতি চলচ্চিত্রের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন হাবিব ওয়াহিদ, ফুয়াদ আল মুক্তাদির ও প্রিতম হাসান।[৮] চলচ্চিত্রটিতে সর্বমোট চারটি গান ব্যবহার করা হয়েছে। "ও আকাশ বলে দেনা রে" শিরোনামের চলচ্চিত্রের প্রথম গানটি গেয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী খেয়া এবং অতিরিক্ত সংযোজন হিসাবে এর র‍্যাপ গেয়েছেন শাফায়াত (জালালি সেট)। এই গানের সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন হাবিব ওয়াহিদ এবং গীত রচনা করেছেন কবির বকুল। এটি ২০১৭ সালের ১৪ জুন ইউটিউব প্রকাশ করা হয়। এরপর এটির দ্বিতীয় গান "ঘরে ফিরে এলো রে", যা দ্বৈত ভাবে গেয়েছেন পারভেজ সাজ্জাদ ও প্রিতম হাসান। গানটির সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন প্রিতম হাসান নিজেই এবং গীত রচনা করেছেন মেহেদী হাসান লিমন। যা ২০১৭ সালের ১৯ জুন ইউটিউবে মুক্তি পায়। " রঙে রঙে মনের রঙে" শিরোনামের এর তৃতীয় গান মুক্তি ২০১৭ সালের ২২ জুন। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন ফুয়াদ আল মুক্তাদির, কোনাল ও তাহসিন। এর সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন ফুয়াদ আল মুক্তাদির এবং গীত রচনা করেছেন (?)। "প্রেমের মাঝে" শিরোনামের চলচ্চিত্রটির চতুর্থ ও শেষ গানটি গেয়ে গেয়েছেন দিনাত জাহান মুন্নী। এটির সুর ও সঙ্গীতায়োজন করেছেন প্রিতম হাসান ও গীত লিখেছেন কবির বকুল। গানটি ২০১৭ সালের ২৫ জুন ইউটিউবে প্রকাশ করা হয়। চলচ্চিত্রের সবগুলো গান সনি ডেডসির ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়।

গানের তালিকা
নং.শিরোনামগীতিকারসুরকারসঙ্গীতশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."ও আকাশ বলে দেনা রে"কবির বকুলহাবিব ওয়াহিদখেয়া, র‍্যাপ: শাফায়াত (জালালি সেট)২:২৫
২."ঘরে ফিরে এলো রে"মেহেদী হাসান লিমনপ্রিতম হাসানপারভেজ সাজ্জাদ, প্রিতম হাসান২:২৫
৩."রঙে রঙে মনের রঙে"?ফুয়াদ আল মুক্তাদিরকোনাল, ফুয়াদ আল মুক্তাদির, তাহসিন৩:৫৪
৪."প্রেমের মাঝে"কবির বকুলপ্রিতম হাসানদিনাত জাহান মুন্নি৪:৪৬
মোট দৈর্ঘ্য:১৩:৩০

বাজারজাতকরণ ও মুক্তি[সম্পাদনা]

২০১৭ সালের ৩ এপ্রিল চলচ্চিত্রটির ফার্স্ট লুক পোস্টার প্রকাশ করা হয়।[৯] ২০১৭ সালের ২৪ মে রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এটির ফার্স্ট লুক টিজার প্রকাশ করা হয়।[১০] ২০১৭ সালের ২৯ মে সনি ডিএডিসির ইউটিউব চ্যানেলে চলচ্চিত্রটির আনুষ্ঠানিক ট্রেইলার প্রকাশিত হয়।[১১]

প্রচারণা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রের প্রচারণায় অংশ অংশগ্রহণ এর প্রধান চরিত্রের অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। তিনি তার শিশু সন্তান আব্রাহাম খান জয়কে নিয়ে চলচ্চিত্রটির প্রচারণায় অংশগ্রহণ করেন। ২০১৭ সালের ২৪ মে রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রচারণা শুরু করা চলচ্চিত্রটির।[১০] অন্যদিকে প্রধান চরিত্রে অভিনেতা শাকিব খান তার অন্য চলচ্চিত্র নিয়ে ব্যস্ত থাকায় প্রচারণায় সময় দিতে পারেননি।[১২]

মুক্তি[সম্পাদনা]

রাজনীতি ২০১৭ সালের ২৬ জুন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশের ৪০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।[১৩] পরবর্তীতে আরো ৪০টি সহ মোট ৮০ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।

অভ্যর্থনা[সম্পাদনা]

সমালোচনামূলক প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

বাংলা ট্রিবিউনের চলচ্চিত্র সমালোচক রায়ান খান চলচ্চিত্রটিকে দিয়েছেন ৩.৫/৫। তিনি এটির পরিচালনা, চিত্রনাট্য ও প্রধান শিল্পীদের অভিনয়ের প্রশংসা করেন। তবে তিনি একই চলচ্চিত্রতে শাকিব খানের দুই ধরনের লুকের নেতিবাচক সমালোচনা করেছেন।[১৪]

বাংলা মুভি ডেটাবেজে চিত্রসমালোচক ও লেখক হিমেল হিমু লিখেন, তিনি পরিপূর্ণ তৃপ্ত নন এবং চলচ্চিত্রটিকে ৩/৫ দিয়েছেন। তিনি এই চলচ্চিত্র সম্পর্কে লিখেন, "পেয়েছি একটি মৌলিক ও ভিন্ন স্বাদের গল্পের স্বাদ, আনিসুর রহমান মিলনের মনে রাখার মত অভিনয় আর সর্বোপরি বুলবুল বিশ্বাসের মত একজন সম্ভাবনাময় পরিচালক।"[১৫]

দ্য ডেইলি স্টারের চলচ্চিত্র সমালোচক জাহিদ আকবর চলচ্চিত্রটির প্রধান অভিনেতাদের অভিনয়ের প্রশংসা করেন, বিশেষ করে আনিসুর রহমান মিলনের। তিনি লিখেন "ছবির মূল আকর্ষণ ছিল আনিসুর রহমান মিলনের অভিনয়। ছবির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত তিনি ভীষণ মনোযোগী ছিলেন অভিনয়ে। শাকিল হয়ে উঠেছিলেন ছবি জুড়ে। সিনেমার অভিনয় জীবনে সেরা অভিনয় শাকিল চরিত্রটি। আদরের বড় ভাই থেকে হিংসাত্মক খলনায়ক হয়ে ওঠাটা খুবই নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি।" তবে তিনি শাকিব খানের চুলের শৈলীর সমালোচনা করেছেন। তিনি রাজনীতি চলচ্চিত্রটিকে একটি ভালো প্রচেষ্টা বলে উল্লেখ করেছেন।[১]

বক্স অফিস[সম্পাদনা]

রাজনীতি মুক্তির প্রথম পাঁচ দিনে ১ কোটি ৬৩ লাখ টাকা আয় করে।[১৬]

সমালোচনা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রটির একটি সংলাপে বাংলাদেশের হবিগঞ্জের ইজাজুল মিয়া নামের এক ব্যক্তির ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর ব্যবহার করায় এর প্রধান অভিনেতা শাকিব খানের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও ৫০ লাখ টাকার মানহানির মামলা দায়ের করেন ইজাজুল মিয়া। একই মামলায় এই চলচ্চিত্রের পরিচালক বুলবুল বিশ্বাস, প্রযোজক আশফাক আহমেদকেও অভিযুক্ত করা হয়। ২০১৭ সালের ২৯ অক্টোবর হবিগঞ্জের একটি আদালতে মামলাটি করেন অটোরিকশা চালক ইজাজুল মিয়া।

ইজাজুল মিয়া মামলার অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন, ‘রাজনীতি’ সিনেমার একটি অংশে (সিনেমার ২৬ মিনিট ১২ সেকেন্ডর সময়) সংলাপ দিতে গিয়ে নায়িকা অপু বিশ্বাস বলেন, ‘এভাবে বারবার আর কোনো দিন চলে যেতে দেব না আমার স্বপ্নের রাজকুমার।’ জবাবে নায়ক শাকিব খান বলেন, ‘আমিও তোমাকে আর ছেড়ে যাব না আমার রাজকুমারী।’ অপু বিশ্বাস আবার বলেন, ‘আমার ফেসবুক আইডি যে “রাজকুমারী” তুমি তা জানলে কী করে?’ জবাবে শাকিব খান বলেন, ‘যেভাবে তুমি জানো, আমার মোবাইল নম্বর...।’[১৭][১৮][১৯][২০][২১][২২][২৩]

মামলার ব্যাপারে শাকিব খান বলেন, ‘‘একজন শিল্পী হিসেবে আমি শুধু আমার সংলাপ বলেছি। সেটা কার মোবাইল ফোনের নম্বর, নম্বরটা সঠিক কি না, এটা আমার দেখার বিষয় নয়। তা আমার এখতিয়ারের মধ্যে পড়ে না। এটা আসলে ছবির প্রযোজক, পরিচালক আর স্ক্রিপ্ট রাইটারের ব্যাপার। এটা তাঁদের ওপর বর্তায়। আমার জায়গায় যদি অন্য কোনো হিরোর মুখ দিয়ে সংলাপটা যেত, তার তো কিছু করার ছিল না।’’[২৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. আকবর, জাহিদ (১৩ জুলাই ২০১৭)। "শাকিব খান 'রাজনীতি'-তে নামতে বাধ্য হলেন"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২০ 
  2. "সাফল্যের শীর্ষে দেশী এবং যৌথ প্রযোজনার দুই ছবি"চ্যানেল আই অনলাইন। ২০১৭-১২-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-২১ 
  3. "অপুর কামব্যাক ছবি রাজনীতির এক ঝলক"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ৩০ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  4. সামিরাহ, শেখ (২৬ মে ২০১৭)। "'রাজনীতি' খাঁটি বাংলাদেশি ছবি"যায়যায়দিন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  5. "ঈদে আসছে শাকিব-অপুর ছবি"দৈনিক প্রথম আলো। ১ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  6. "ঈদে মুক্তি পেল নবাব, রাজনীতি ও বস-২"দৈনিক ইত্তেফাক। ২৬ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  7. "হলে গিয়ে 'রাজনীতি' দেখুন"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  8. "'রাজনীতি'র দৈর্ঘ্য সাড়ে ৩ ঘণ্টা!"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "শাকিব খান রাজনীতিতে?"চ্যানেল আই অনলাইন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৪-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  10. "প্রচারে নামলেন অপু বিশ্বাস"প্রথম আলো। ২৬ মে ২০১৭। ২০২০-০৩-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  11. বাবু, মাজহার (৩১ মে ২০১৭)। "ইউটিউবে 'রাজনীতি'র প্রথম ট্রেইলার"এনটিভি অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  12. "অপুর রাজনীতি"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ১৫ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৭ 
  13. "শাকিব-অপুর 'রাজনীতি'কে গ্রহণ করেছে দর্শকরা"দৈনিক ইত্তেফাক। ২৭ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  14. খান, রায়ান (৫ জুলাই ২০১৭)। "রাজনীতি: শাকিব নয়, গল্পই এ ছবির হিরো"বাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  15. হিমু, হিমেল (৩ জুলাই ২০১৭)। "ঈদের তিন ছবির রিভিউ"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৭ 
  16. "Shakib's 'Nabab' on the top in Box office with record"The Independent (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৯ 
  17. "Bangladeshi auto driver sues over movie mobile mix-up"www.yahoo.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  18. "Rickshaw driver sues star over phone calls"BBC News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১১-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  19. "Auto Driver's Phone Number Was Used In Film. He's Now Suing For Damages"NDTV.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  20. "Gulftimes : Auto-rickshaw driver sues over movie mobile mix-up"m.gulf-times.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  21. Afp (২০১৭-১১-০১)। "Bangladeshi auto driver sues over movie mobile mix-up"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  22. "নায়কের বিরুদ্ধে অটোরিকশার চালকের মামলা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  23. "শাকিবের নামে মামলার খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে!"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 
  24. "মামলার খবর শুনে হেসেছেন শাকিব খান"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]