অমিত হাসান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অমিত হাসান
জন্ম
খন্দকার সাইফুর রহমান

৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৬৮[১]
আদালতপাড়া, টাঙ্গাইল, বাংলাদেশ
বাসস্থানঢাকা
জাতীয়তাবাংলাদেশি
পেশাঅভিনেতা, প্রযোজক
কার্যকাল১৯৮৬–বর্তমান
উল্লেখযোগ্য কর্ম
ভালোবাসার রঙ
উচ্চতা৫ ফু ৯ ইঞ্চি (১.৭৫ মি)
দাম্পত্য সঙ্গীঅনন্যা
সন্তানলামিসা (কন্যা)
সামান্তা (কন্যা)
পিতা-মাতামালিহা রহমান (মাতা)
পুরস্কারবাচসাস পুরস্কার (১ বার)

অমিত হাসান (জন্ম: ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৬৮) একজন জনপ্রিয় বাংলাদেশী অভিনেতা ও প্রযোজক। ১৯৯০ সালে ছটকু আহমেদ পরিচালিত চেতনা ছবিতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। একক নায়ক হিসেবে মনোয়ার খোকনের জ্যোতি ছবি দিয়ে শুরু হয় তার সফলতা। ২০১২ সালে ভালোবাসার রঙ ছবির মাধ্যমে তিনি খলনায়ক চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন।

তিনি ২০১৫ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।[২][৩] ২০১৭ সালে পুনরায় নির্বাচন করেন[৪] কিন্তু মিশা-জায়েদ পরিষদের কাছে হেরে যান।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

হাসান ১৯৬৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর থানার অন্তর্গত বানিয়ারা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার প্রকৃত নাম খন্দকার সাইফুর রহমান। তার মায়ের নাম মালিহা রহমান। কলেজে পড়াকালীন তার এক বান্ধবী তার 'অমিত হাসান' নাম দেন।[৫]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৬ সালে 'নতুন মুখের সন্ধানে' প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সম্পৃক্ত হন। ১৯৯০ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র চেতনা। ছবিটি পরিচালনা করেন ছটকু আহমেদ। একক নায়ক হিসেবে তিনি প্রথম অভিনয় করেন মনোয়ার খোকনের জ্যোতি চলচ্চিত্রে। এই দশকে তিনি শেষ ঠিকানা, জিদ্দী, আবিদ হাসান বাদলের বিদ্রোহী প্রেমিক (১৯৯৬) ও তুমি শুধু তুমি (১৯৯৭), রাজ্জাকের বাবা কেন চাকর (১৯৯৭), শিল্পী চক্রবর্তীর রঙিন উজান ভাটি (১৯৯৭), মোতালেব হোসেনের ভালবাসার ঘর (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।[৫]

২০০৮ সালে হাসান প্রযোজকের খাতায় নাম লেখান এবং টেলিভিউ নামে একটি প্রযোজনা সংস্থা চালু করেন। এই সংস্থা থেকে প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র কে আপন কে পর। শাহীন-সুমন পরিচালিত চলচ্চিত্রটি ২০১১ সালে মুক্তি পায়। এতে তিনি নিজেই প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন এবং তার বিপরীতে ছিলেন অপু বিশ্বাস। এছাড়া ছবিতে আরও অভিনয় করেন আলমগীর, ববিতা, মিজু আহমেদ, মিশা সওদাগর প্রমুখ।[৬] আলমগীর ও ববিতা এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা ও অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।[৭]

২০১২ সালে তিনি শাহীন-সুমন পরিচালিত ভালোবাসার রঙ ছবিতে প্রথমবারের মত খল চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিতে তুফান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন।[৮] ২০১৫ সালের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পায় তার অভিনীত ওয়াজেদ আলী সুমনের রক্ত ও শামীম আহমেদ রনির বসগিরি। ২০১৬ সালের শুরুতে মুক্তি পায় শফিক আচার্য্য পরিচালিত ভৌতিক চলচ্চিত্র মায়াবিনী। এতে তিনি মায়া চরিত্রে অভিনয় করেন।[৯] এই বছর ঈদুল ফিতরে মুক্তি পায় তার অভিনীত নবাব, বস ২রাজনীতি[১০] বাবা যাদব পরিচালিত বস ২ ছবিতে তাকে প্রথম কলকাতার অভিনেতা জিতের সাথে অভিনয় করতে দেখা যায়। এই ছবিতে তিনি বাংলাদেশী ব্যবসায়ী প্রিন্স শাহনেওয়াজ চরিত্রে অভিনয় করেন।[১১]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা পরিচালক টীকা
১৯৯০ চেতনা ছটকু আহমেদ
দাঙ্গা ফ্যাসাদ চাষী নজরুল ইসলাম
১৯৯৬ বিদ্রোহী প্রেমিক আবিদ হাসান বাদল
১৯৯৭ বাবা কেন চাকর রাজ্জাক
তুমি শুধু তুমি আবিদ হাসান বাদল
রঙিন উজান ভাটি শিল্পী চক্রবর্তী
১৯৯৮ ভালবাসার ঘর মোতালেব হোসেন
১৯৯৯ তোমার জন্য পাগল ডাক্তার হৃদয় শিল্পী চক্রবর্তী
২০০১ মেঘলা আকাশ মহি নারগিস আক্তার
রংবাজ বাদশা মনতাজুর রহমান আকবর
জামাই শ্বশুর মাসুদ খান দেবাশীষ বিশ্বাস
২০০৩ কঠিন সীমার মিঠুন মনতাজুর রহমান আকবর
২০০৪ ভাইয়ের শত্রু ভাই মনতাজুর রহমান আকবর
২০০৭ ডাক্তার বাড়ী ডাক্তার জহুর আলী আজিজুর রহমান
বউয়ের জ্বালা
বাদশা ভাই এলএলবি
২০০৮ তুমি স্বপ্ন তুমি সাধনা
সন্তান আমার অহংকার
২০০৯ অভিশপ্ত রাত
আইনের হাতে গ্রেফতার
চিরদিন আমি তোমার
ঠেকাও আন্দোলন
বাবা ঠাকুর
বিয়ে বাড়ী
ভণ্ড নায়ক
ভালবাসা দিবি কিনা বল
২০১১ কে আপন কে পর শাহীন-সুমন প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র
২০১২ ভালোবাসার রঙ তুফান শাহীন-সুমন খল চরিত্রে প্রথম অভিনয়
বিজয়ী: বাচসাস পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা[৮]
২০১৩ প্রেম প্রেম পাগলামি
অন্যরকম ভালোবাসা শাহীন-সুমন
ফুল এন্ড ফাইনাল বখতিয়ার মালেক আফসারী
তবুও ভালোবাসি লাল মনতাজুর রহমান আকবর
২০১৪ দাবাং আজাদ খান
জিরো থেকে টপ হিরো
মনের মধ্যে লেখা
ফাঁদ উসমান শফি উদ্দিন
হিরো: দ্যা সুপার স্টার বদিউল আলম খোকন শাকিব খান প্রযোজিত
২০১৫ এইতো প্রেম জাভেদ সোহেল আরমান মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র
বোঝেনা সে বোঝেনা মনতাজুর রহমান আকবর
অগ্নি ২ মিঠুন সরকার ইফতেখার চৌধুরী
পদ্ম পাতার জল রনবীর প্রতাপ তন্ময় তানসেন
মার্ডার ২
অন্তরঙ্গ
চিনি বিবি
২০১৬ অঙ্গার নেহাল দত্ত, ওয়াজেদ আলী সুমন
রক্ত ওয়াজেদ আলী সুমন
শিকারি জয়দীপ মুখার্জী
বসগিরি ডিকে শামীম আহমেদ রনি
ধূমকেতু শফিক হাসান
রাজা ৪২০
২০১৭ ক্রাইম রোড সাইমন তারিক
মায়াবিনী মায়া আকাশ আচার্য্য
সুলতানা বিবিয়ানা হিমেল আশরাফ
নবাব জয়দীপ মুখার্জী
বস ২ প্রিন্স শাহনেওয়াজ বাবা যাদব
রাজনীতি বুলবুল বিশ্বাস
রংবাজ অমিত চৌধুরী আব্দুল মান্নান
দুলাভাই জিন্দাবাদ মনতাজুর রহমান আকবর

পুরস্কার[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. আলম, আসিফ (২৫ জানুয়ারি ২০১৭)। "শুভ জন্মদিন অমিত হাসান"নিউজনেক্সটবিডি ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  2. "সভাপতি শাকিব খান সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসান"দৈনিক জনকণ্ঠ। ৩১ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. রহমান, পাভেল (এপ্রিল ১৭, ২০১৭)। "শাকিব প্রসঙ্গে বললেন অমিত হাসান"দ্য রিপোর্ট। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  4. "শিল্পী সমিতির নির্বাচনে আবারো প্রার্থী অমিত হাসান"দৈনিক ইনকিলাব। ১০ এপ্রিল ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  5. "শুভ জন্মদিন অমিত হাসান"প্রিয়.কম। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  6. "প্রযোজনায় অমিত হাসান"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। জানুয়ারি ২৮, ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  7. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার - ২০১১"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ১৩ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  8. সিদ্দিকা, মিথি (২৮ ডিসেম্বর ২০১৪)। "বাচসাস চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৪"সময়.২৪। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "'জানেমান'এ নতুনত্ব নিয়ে আসছি: অমিত হাসান"দৈনিক ইত্তেফাক। ২৫ জানুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  10. "ঈদের যে তিন ছবিতে অমিত হাসান"বলিউডলাইফ২৪। ১৪ জুন ২০১৭। ১৮ জুন ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  11. "একই ফ্রেমে অমিত-জিৎ"দৈনিক জনকণ্ঠ। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]