মেরিনা তাবাসসুম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মেরিনা তাবাসসুম
মেরিনা তাবাসসুম
জন্ম১৯৬৮ / ১৯৬৯ (বয়স ৫৩-৫৪)
জাতীয়তাবাংলাদেশ বাংলাদেশি
মাতৃশিক্ষায়তনবাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়
পুরস্কারআগা খান অ্যাওয়ার্ড ফর আর্কিটেকচার (২০১৬), অনন্যা শীর্ষ দশ পুরস্কার

মেরিনা তাবাসসুম বাংলাদেশের একজন স্থপতি। তিনি 'মেরিনা তাবাসসুম আর্কিটেক্টস' -এর প্রধান স্থপতি। তিনি ২০১৬ সালে আগা খান অ্যাওয়ার্ড ফর আর্কিটেকচার পুরস্কার পেয়েছেন।[১][২] ঢাকার উত্তরে দক্ষিণখান এলাকায় স্বীয় দাদীর দেয়া জমিতে স্থাপিত বায়তুর রউফ মসজিদের স্থাপত্যের জন্য মেরিনা তাবাসসুম এই পুরস্কার পান।[৩] এর আগে ২০০৪ খ্রিষ্টাব্দে প্রথমবার তিনি এ পুরস্কারের জন্য প্রাথমিকভাবে মনোনয়ন লাভ করেছেন। আগা খান ডেভেলপমেন্ট নেটওয়ার্ক প্রতি তিন বছরে একবার এই পুরস্কার প্রদান করে থাকে।

২০২০ সালে, স্থপতি মেরিনা তাবাসসুমকে কোভিড-১৯ যুগের তৃতীয়-বড় চিন্তাবিদ হিসাবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছিল। ম্যাগাজিনটি লিখেছিল, "তাদের প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বাড়ির নকশা তৈরির শীর্ষে, এই বাংলাদেশি স্থপতিও উত্থাপিত নকশার চ্যালেঞ্জগুলি গ্রহণ করছেন আমরা সম্মিলিতভাবে পৃথিবীতে যা করছি তা দ্বারা।"[৪]

মেরিনা তাবাসসুম ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নির্মিত ভূগর্ভস্থ স্বাধীনতা জাদুঘরের দু’জন নকশাবিদের অন্যতম।[৫][৬][৭] অন্যজন হলেন স্থপতি কাশেফ মাহবুব চৌধুরী

প্রারম্ভিক জীবন ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

একজন ক্যান্সার চিকিৎসকের কন্যা হিসেব তাবাসসুম জন্মগ্রহণ করেছিলেন বাংলাদেশের ঢাকা শহরে। ১৯৪৭ সালে, তার পরিবার বঙ্গভঙ্গের সময় ভারত থেকে বাংলাদেশের ঢাকায় পাড়ি জমান। তিনি হলি ক্রস উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় এবং কলেজে পড়েন। পরবর্তীতে তাবাসসুম ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থাপত্যে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।

পেশাগত জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৫ সালে স্থপতি তাবাসসুম, স্থপতি কাশেফ চৌধুরীর সাথে বাংলাদেশের ঢাকা শহরভিত্তিক একটি স্থাপত্য ফার্ম আরবানা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। [৮][৯] ফার্মটি প্রায় দশ বছর ধরে বেশ কয়েকটি প্রকল্প নকশা করেছিল।

২০০৫ সালে তাবাসসুম তার নিজস্ব ফার্ম, মেরিনা তাবাসসুম আর্কিটেক্টস প্রতিষ্ঠা করেছিলেন এবং তিনি এর প্রধান স্থপতি হিসাবে কাজ করা শুরু করেন।

২০০৫ সাল থেকে তাবাসসুম ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন পরিদর্শন অধ্যাপক, [১০] যেখানে তিনি সমসাময়িক দক্ষিণ এশিয়ার স্থাপত্যের উপর শিখিয়েছেন। তিনি এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক স্টুডিওগুলিও পরিচালনা করেন এবং অন্যান্য বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং সম্মেলনে বক্তৃতা ও উপস্থাপনা দিয়েছেন। তিনি ২০১৫ সাল থেকে স্থাপত্য, ভূদৃশ্য এবং বসতিগুলির জন্য বেঙ্গল ইনস্টিটিউটে একাডেমিক প্রোগ্রামের পরিচালক ছিলেন।[১১] তিনি বাংলাদেশে সিএএ ২০১৩ সালে ভারতের অন্যতম সেরা স্থপতি বিজয় জৈনের আমন্ত্রণ প্রস্তাব করেছিলেন।

তাবাসসুম ছিলেন ঢাকায় অবস্থিত বায়তুর রউফ মসজিদের স্থপতি, যা ২০১২ সালে বানানো শেষ হয়েছিল।[১২] ২০১৬ সালে প্রকল্পটি আগা খান পুরষ্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছিল।[১৩]

উল্লেখযোগ্য কাজসমূহ[সম্পাদনা]

স্বাধীনতা জাদুঘর
  • ১৯৯৭-২০০৬: স্বাধীনতা জাদুঘর, ঢাকা,বাংলাদেশ।
  • ২০০১: এ৫ বাসভবন, ঢাকা, বাংলাদেশ।
  • ২০০৬-২০১১: কমফোর্ট রিভেরি, ঢাকা, বাংলাদেশ।
  • ২০০৯: ফরিদাবাদের অবকাশ বাড়ি, ঢাকা, বাংলাদেশ।
  • ২০১২: বায়তুর রউফ মসজিদ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
  • ২০১৮: পানিগ্রাম ইকো রিসোর্ট ও স্পা, যশোর, বাংলাদেশ।
  • ২০২০: খুদি বাড়ি, বাংলাদেশের উপকূলবর্তী চরসমূহ।

পুরষ্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

বায়তুর রউফ মসজিদ

প্রদর্শনীসমূহ[সম্পাদনা]

  • মেরিনা তাবাসসুম আর্কিটেক্টস: বাংলাদেশে (২০২৩)[১৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "'আগা খান অ্যাওয়ার্ড' পেলেন মেরিনা ও কাশেফ"। ৬ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. "আগাখান পুরস্কার বিজয়ী কাসেফ মাহবুব চৌধুরী ও মেরিনা তাবাসসুম - শেষ পাতা - The Daily Ittefaq"। ৬ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০১৬ 
  3. "অনন্য স্থাপত্যের মসজিদ" 
  4. "The world's top 50 thinkers for the Covid-19 age" (পিডিএফ)Prospect। ২০২০। ২০২০-০৯-০৭ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-০৮ 
  5. "Marina Tabassum: An architect in search of roots"। ১৭ জুন ২০১৬। 
  6. "Architect Marina Tabassum on her Aga Khan Award-winning design for the Bait Ur Rouf mosque in Dhaka" 
  7. http://www.architectmagazine.com/firms/marina-tabassum-architects_o
  8. Hockin, Rowena (জুন ১৭, ২০১৪)। "Marina Tabassum: Ideas over gender"। Architecture AU। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১১, ২০১৬ 
  9. 'New styles of Architecture, a change of heart' ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে The Daily Stsr
  10. "MTA Profile"। mtarchitekts.com। ৯ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১১, ২০১৬ 
  11. "Marina Tabassum - Director, Academic Program, Bengal Institute". Bengal Institute profile, 3 February 2018
  12. Karim, Naimul (জুন ১৭, ২০১৬)। "Marina Tabassum: An architect in search of roots"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১১, ২০১৬ 
  13. "Zaha Hadid among architects shortlisted for 2016 Aga Khan Award". De Zeen, 9 May 2016
  14. "MTA Profile"। https://mtarchitekts.com/profile.php  |ওয়েবসাইট= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য);
  15. "Nishorgo Architectural Competition Winners awarded"। The Daily Star। অগাস্ট ১০, ২০০৬। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১১, ২০১৬ 
  16. "Marina Tabassum Awarded the Arnold W. Brunner Memorial Prize by The American Academy of Arts and Letters" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-১১ 
  17. "The Soane Medal 2021"। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১৬ 
  18. "Received the prestigious Lisbon Triennale Millennium bcp Lifetime Achievement Award"। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৮-১০ 
  19. "Marina Tabassum Architects: In Bangladesh"www.architekturmuseum.de। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩