মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিংপুল

স্থানাঙ্ক: ২২°৫৯′৫৭″ উত্তর ৯১°২৪′২৪″ পূর্ব / ২২.৯৯৯২২৪° উত্তর ৯১.৪০৬৫৫০° পূর্ব / 22.999224; 91.406550
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিংপুল
২২°৫৯′৫৭″ উত্তর ৯১°২৪′২৪″ পূর্ব / ২২.৯৯৯২২৪° উত্তর ৯১.৪০৬৫৫০° পূর্ব / 22.999224; 91.406550
ঠিকানাদাউদপুর, ফেনী
ডাককোডফেনী সদর - ৩৯০০
পরিচালনায়ফেনী জেলা ক্রীড়া সংস্থা
মালিকানাধীনজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ
পূর্বতন নামফেনী জেলা সুইমিংপুল
খরচ ৩.৫০ কোটি
বৈশিষ্ট্য
৮ লেনের সুইমিংপুল

মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিংপুল ২০০১ সালে নির্মিত বাংলাদেশের জেলা পর্যায়ের একটি সাঁতার ক্রীড়া আয়োজন ও প্রশিক্ষণ সুইমিংপুল। এটির অবস্থান ফেনী জেলার ফেনী পৌরসভার দাউদপুর এলাকায়। এটি জেলার একমাত্র সুইমিংপুল।[১][২] বাংলাদেশের সকল সাঁতার ক্রীড়া আয়োজনের সরকারি ভেন্যুর মতই এটি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অধিভূক্ত এবং স্থানীয় ফেনী জেলা ক্রীড়া সংস্থার তত্বাবধায়নে রয়েছে।[২][৩][৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০০০ সালে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের উদ্যোগে ফেনীর দাউদপুরে ৩ একর ভূমির উপর সুইমিংপুলটির নির্মাণ শুরু হয়।[২] ২০০১ সালে নির্মাণ শেষ হয়।[১] প্রকল্পটির নির্মাণ সম্পন্ন করতে ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয় হয়।[২] রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কারণে নির্মাণের পরেও এটি চালু করা যায়নি।[১] ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে স্থাপনাটি সাংবাদিক মাহবুবুল হক পেয়ারার নামে নামকরণ করা হয়।[৫][৬]

কাঠামো[সম্পাদনা]

এটি খোলা আকাশের নীচে উম্মুক্ত ৮ লেন বিশিষ্ট সুইমিংপুল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নতুন স্টেডিয়াম পাচ্ছে ফেনী"কালের কণ্ঠ। ২০১৫-০৮-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০২-০৩ 
  2. "অযত্ন অবহেলায় ফেনী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সুইমিংপুল পরিণত হয়েছে মাদকাসক্তদের আখড়ায়"এসএ টিভি। ২০১৯-১২-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০২-০৩ 
  3. "জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের নিয়ন্ত্রণাধীন ক্রীড়া স্থাপনা" (PDF)যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)। ৭ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০১-০৭ 
  4. "ফেনীতে অরক্ষিত সুইমিং পুল"ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন। ২০২০-০২-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০২-০৩ 
  5. "ফেনীর সুইমিংপুল পেয়ারা দাদার নামে নামকরণ চূড়ান্ত"নতুন ফেনী। ২০১৪-০৯-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০২-০৩ 
  6. "Feni swimming pool not operational even after 15 years! Muhammad Abu Taher Bhuiyan"দ্য ডেইলি অবজার্ভার (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-০৫-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০২-১৭