ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Indian Olympic Association
জাতীয় অলিম্পিক কমিটি
দেশ ভারত
কোডIND
প্রতিষ্ঠাকাল১৯২৭; ৯২ বছর আগে (1927)
স্বীকৃতি১৯২৭
সদর দফতরনতুন দিল্লী, ভারত
সভাপতিনরিন্দর ধ্রুভ বাত্রা
মহাসচিবরাজীব মেহতা
ওয়েবসাইটwww.olympic.ind.in

ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন অলিম্পিক গেমস, এশিয়ান গেমস এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক অ্যাথলেটিক মিলনায়ন ও প্রতি্যোগিতায় ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ক্রীড়াবিদদের নির্বাচন করার জন্য এবং ইভেন্টগুলিতে ভারতীয় দলগুলির পরিচালনার জন্য দায়বদ্ধ। এছাড়া এটি কমনওয়েলথ গেমস এসোসিয়েশন হিসাবেও কাজ করে এবং কমনওয়েলথ গেমসে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ক্রীড়াবিদ নির্বাচন করার জন্য দায়ী [১]

প্রাথমিক ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯২০ এবং ১৯২৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারতের অলিম্পিকে অংশগ্রহণের পটভূমিকায় ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের জন্ম হয়। ১৯২০ গেমসের পর, যে কমিটি এই গেমসের জন্য দল পাঠিয়েছিল, তারা আলোচনায় বসে এবং স্যার দোরাবজি টাটার পরামর্শে ড. নোরেন (ওয়াইএমসিএ ভারত- এর শারীরিক শিক্ষা পরিচালক) কে আমন্ত্রণ জানানো হয় সম্পাদকের পদ অলঙ্কৃত করার জন্যে, অস্থায়ী ভারতীয় অলিম্পিক কমিটির এ এস ভাগওয়াত এর সাথে, তৎকালীন ভারতীয় অলিম্পিক কমিটি; স্থির হয় স্যার ডোরাব টাটা সংগঠনের সভাপতি হিসাবে কাজ করে যাবেন। এর পরে ১৯২৩ -২৪ সালে অস্থায়ী অলিম্পিক কমিটি গঠিত হয় এবং ১৯২৪ এর ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হয় অল ইন্ডিয়া অলিম্পিক গেমস যা পরবর্তী কালে ন্যাশনাল গেমস অফ ইন্ডিয়া নামে পরিচিত হয়। এই গেমগুলি থেকে আটজন ক্রীড়াবিদকে নির্বাচন করা হয় ১৯২৪ সালের প্যারিস অলিম্পিকে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য, ম্যানেজার হ্যারি ক্রো বাকের সাথে। এই ঘটনা ভারতের ক্রীড়া উন্নয়ন এবং প্রাতিষ্ঠানিকীকরণের জন্য উদ্দীপনা প্রদান করে। অবশেষে ১৯২৭ সালে ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (আইওএ) নির্মিত হয় হ্যারি ক্রো বাক এবং ড. এ. জি. নোরেনএর উদ্যোগে [২] । এই ক্রীড়া আন্দোলনের জন্যে অর্থসহায়তা এবং অন্যান্য কাজের পক্ষে স্যার দোরাবজি টাটা গুরুত্বপূর্ণ ছিলেন এবং তিনি ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম সভাপতি নির্বাচিত হন ১৯২৭ সালে। ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম সম্পাদক নির্বাচিত হন ড.নোরেন এবং জি. ডি. সোন্ধি নির্বাচিত হন প্রথম সহকারী সম্পাদক; ১৯৩৮ সালে ড.নোরেন পদত্যাগ করলে জি. ডি. সোন্ধি এবং এসএম. মঈনুল হক ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন সম্পাদক এবং যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত হন। ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের জন্ম হওয়ার পরে, বাক এবং ড. নোরেন সারা ভারত জুড়ে পরিভ্রমণ করেন এবং অনেক রাজ্যকে সাহায্য করেন তাদের অলিম্পিক সংগঠন সংগঠিত করার জন্যে। ১৯২৭ সালে ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন গঠনের বছর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এটি আইওসি। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি দ্বারা ভারতের জাতীয় অলিম্পিক সংস্থা হিসাবে স্বীকৃত হয় [১]। ১৯২৮ সালে, পাটিয়ালার মহারাজা মহারাজা ভূপেন্দ্র সিংহ ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত হন [৩]

আই ও এ সভাপতি দের তালিকা[সম্পাদনা]

S.No. Name Tenure
১. স্যার দোরাবিজি টাটা ১৯২৭-১৯২৮
২. মহারাজা ভূপিন্দার সিং ১৯২৮-১৯৩৮
৩. মহারাজা যাদবিন্দ্র সিং ১৯৩৮-১৯৬০
৪. শ্রী ভালিন্দ্র সিং ১৯৬০-১৯৭৫
৫. শ্রী ওম প্রকাশ মেহরা ১৯৭৫-১৯৮০
৬. শ্রী ভালিন্দ্র সিং ১৯৮০ -১৯৮৪
৭. শ্রী বিদ্যা চরণ শুক্লা ১৯৮৪ -১৯৮৭
৮. শ্রী শিবান্তি আদিঠান ১৯৮৭ – ১৯৯৬
৯. শ্রী সুরেশ কালমাডি ১৯৯৬ – ২০১১
শ্রী বিজয় কুমার মালহোত্রা ২৬ শে এপ্রিল, ২০১১ – ৫ ডিসেম্বর,২০১২ (কার্যনির্বাহী সভাপতি)
১০. শ্রী অভয় সিং চৌতালা ৫ ডিসেম্বর,২০১২ – ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪
১১. শ্রী নারায়ানা রামাচন্দ্রান ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪ – ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭
১২. ডঃ নরিন্দার ধ্রুভ বাত্রা ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ – বর্তমান

আই ও এ সাধারণ সম্পাদকদের তালিকা[সম্পাদনা]

S. No. Name Tenure
1. ড. এ জি নোহরেন ১৯৩৮ পর্যন্ত
2. প্রফেসর গুরু দত্ত সোন্ধি ১৯৩৮ -১৯৫২
3. প্রফেসর মঈন-উল-হক ১৯৫২ - ১৯৫৬
4. শ্রী অশ্বিনী কুমার
5. শ্রী পঙ্কজ গুপ্তা
6. শ্রী জে সি পালিওয়াল
7. এয়ার ভাইস মার্শাল সি এল মেহতা
8. ড. রোহণ লাল আনন্দ
9. রাজারণধীর সিং ১৯৮৭ - ২০১২
10. শ্রী ললিত ভানোট ২০১২ - ২০১৪
11. শ্রী রাজীব মেহতা ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৪ - বর্তমান

আই ও এ কার্যকরী সমিতি[সম্পাদনা]

২০১৭ থেকে ২০২১ সালের জন্য আইওএ নির্বাহী কমিটি নিম্নরূপঃ

পদ নাম জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ /
রাজ্য অলিম্পিক কমিটি
সভাপতি ডঃ নরিন্দার ধ্রুভ বাত্রা হকি (ভারত)
বরিষ্ঠ সহসভাপতি শ্রী আর কে আনন্দ ঝাড়খন্ড অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
সহ - সভাপতি শ্রী আদিল সুমারিওয়ালা ভারতীয় অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন
শ্রী বীরেন্দ্র প্রসাদ বৈশ্য ভারতীয় ওয়েটলিফটিং ফেডারেশন
শ্রী ভিরেন্দ্র ডি। নানাবতী সুইমিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী সুধাংশু মিত্তল খো খো ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রীমতী সুনয়না কুমারী বোলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী কে গোবিন্দরাজ বাস্কেটবল ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী কুলদীপ বতস দিল্লি অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী করণ চৌতলা লুগ ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
সধারণ সম্পাদক শ্রী রাজীব মেহতা ফেনসিং অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
কোষাধ্যক্ষ শ্রী আনন্দেশ্বর পাণ্ডে হ্যান্ডবল ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
যুগ্ম সম্পাদক গণ ডঃ সুরিন্দার মোহন বালি আইস হকি অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী রাকেশ গুপ্তা ইন্ডিয়ান ট্রায়াথলন ফেডারেশন
শ্রী নামদেব সম্পাত শিরগাঁওকার মডার্ন পেন্টাথেলন ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী ওংকার সিং সাইক্লিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী ডি ভি সীতারাম রাও ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী বিক্রম সিং সিসোদিয়া ছত্তিসগড় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
কারয নির্বাহী সদস্যবৃন্দ শ্রী অধীপ দাস ওড়িশা অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী অজিত ব্যানার্জী বেঙ্গল অলিম্পিক আসোসিয়েশন
শ্রী বলবীর সিং কুশওয়াহা কায়াকিং অ্যান্ড ক্যানোইং অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী দিগ্বিজয় সিং মধ্য প্রদেশ অলিম্পিক আসোসিয়েশন
শ্রী দুষ্যন্ত চৌতালা টেবিল টেনিস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী গুরুদত্ত ডি। ভক্ত গোয়া অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী হেমচন্দ্র সিং ইরেঙ্গাবাম মণিপুর অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী ভি এন প্রসুদ রেসলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
শ্রী রূপক দেবরায় ত্রিপুরা রাজ্য অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
শ্রী অভিজিৎ সরকার উত্তর প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
আই ও সি সদস্য শ্রীমতি নীতা আম্বানি

রাজ্য অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন সমূহ[সম্পাদনা]

  1. আন্দামান ও নিকোবর স্টেট অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  2. অন্ধ্র প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  3. অরুণাচল প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  4. আসাম অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  5. পশ্চিমবঙ্গ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  6. বিহার অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  7. চন্ডিগড় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  8. ছত্তিশগড় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  9. দিল্লি অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  10. দিউ-দমন অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  11. গোয়া অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  12. গুজরাট রাজ্য অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  13. হরিয়ানা অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  14. হিমাচল প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  15. জম্মু ও কাশ্মীর অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  16. ঝাড়খণ্ড অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  17. কর্ণাটক অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  18. কেরল অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  19. মধ্য প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  20. মহারাষ্ট্র অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  21. মণিপুর অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  22. মেঘালয় রাজ্য অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  23. মিজোরাম অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  24. নাগাল্যান্ড অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  25. ওড়িশা অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  26. পুদুচেরি অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  27. পাঞ্জাব অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  28. রাজস্থান অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  29. সিকিম অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  30. তামিল নাড়ু অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  31. অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন অফ তেলেঙ্গানা
  32. ত্রিপুরা রাজ্য অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  33. উত্তরাখন্ড অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  34. উত্তর প্রদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন
  35. সার্ভিসেস স্পোর্টস কন্ট্রোল বোর্ড

জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ[সম্পাদনা]

জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশনগুলিকে দুটি শ্রেণিতে শ্রেণীভুক্ত করা হয়েছে যেমন: অলিম্পিক ক্রীড়া এবং অন্যান্য স্বীকৃত ক্রীড়া

আই ও সি চিরস্থায়ী ক্রীড়া সমূহ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া জাতীয় পরিষদ
আকোয়াটিক্স/ জলক্রীড়া সুইমিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
আরচারি/তীরন্দাজি আরচারি অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
অ্যাথলেটিক্স অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ব্যাডমিন্টন ব্যাডমিন্টন অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
বাস্কেটবল বাস্কেটবলফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
বক্সিং / মুষ্টিযুদ্ধ ইন্ডিয়ান অ্যামেচার বক্সিং ফেডারেশন
ক্যানোইং ইন্ডিয়ান কায়াকিং অ্যান্ড ক্যানোইং অ্যাসোসিয়েশন
সাইক্লিং সাইক্লিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ইকুএস্ট্রিয়ান/ অশ্বক্রীড়া ইকুএস্ট্রিয়ান ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ফেনশিং ফেনশিং অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
ফুটবল অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারাশন
গলফ দ্য ইন্ডিয়ান গলফ ইউনিয়ন
জিমন্যাস্টিক জিমন্যাস্টিক ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
হ্যান্ডবল হ্যান্ডবল ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
হকি হকি ইন্ডিয়া
জুডো জুডো ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
মডার্ন পেন্টাথেলন মডার্ন পেন্টাথেলন ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
রোইং রোইং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
রাগবি ইন্ডিয়ান রাগবি ফুটবল ইউনিয়ন
সেলিং
শ্যুটিং ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
টেবিল টেনিস টেবিল টেনিস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
তাইকোন্ডু তাইকোন্ডু ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
টেনিস অল ইন্ডিয়া টেনিস অ্যাসোসিয়েশন
ট্রায়াথলন ইন্ডিয়ান ট্রায়াথলন ফেডারেশন
ভলিবল ভলিবল ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ওয়েটলিফটিং / ভারোত্তোলন ইন্ডিয়ান ওয়েটলিফটিং ফেডারেশন
রেসলিং/ কুস্তি রেসলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া

আই ও সি শীতকালীন অলিম্পিকের ক্রীড়া সমূহ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া জাতীয় পরিষদ
আইস হকি আইস হকি অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
আইস স্কেটিং আইস স্কেটিং অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
লুগ ইন্ডিয়ান আমেচার লুগ অ্যাসোসিয়েশন

আইওসি স্বীকৃত ক্রীড়া সমূহ[সম্পাদনা]

নিম্নলিখিত ক্রীড়া সমূহ আইওসি কর্তৃক স্বীকৃত জাতীয় ক্রীড়া ।

ক্রীড়া জাতীয় পরিষদ
বিলিয়ার্ড দ্য বিলিয়ার্ড অ্যান্ড স্নুকার ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
বোলিং বোলিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ক্যারাটে ক্যারাটে অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
নেটবল নেটবল ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
স্কোয়াশ স্কোয়াশ র‍্যাকেটস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
উশু উশু অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া
মুয়ায় মুয়ায় ইন্ডিয়া

অন্যান্য[সম্পাদনা]

নিম্নলিখিত ক্রীড়া সমূহ আই ও সি কর্তৃক স্বীকৃত নয় ক্রীড়া হিসেবে।

ক্রীড়া জাতীয় পরিষদ
আরম রেসলিং ইন্ডিয়ান আরম রেসলিং ফেডারেশন
কাবাডি অ্যামেচার কাবাডি ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
খো খো খো খো ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া
ইয়াচিং ইয়াচিং অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া

বিতর্ক[সম্পাদনা]

২৬ এপ্রিল ২০১১ তারিখে, সভাপতি সুরেশ কালমাডির গ্রেপ্তারের পর বিজয় কুমার মালহোত্রা ৫ ই ডিসেম্বর ২০১২ পর্যন্ত আইওএ'র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছিলেন [৪]। ললিত ভানোটের সেক্রেটারি জেনারেল হিসাবে নির্বাচন ছিল বিতর্কিত কারণ তার বিরুদ্ধে কমনওয়েলথ গেমস কেলেঙ্কারির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল [৫]

৪ই ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি আইওএর দুর্নীতি, সরকারি হস্তক্ষেপ এবং আইওসি নির্দেশিকা অনুসরণ না করার অভিযোগে আইওএকে নির্বাসিত করে।আইওএ'র বেশ কয়েকজন সদস্য কমনোয়েলথ গেমস কেলেঙ্কারি তে যুক্ত থাকার অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়[৬][৭]। আইওএ কে আনুষ্ঠানিকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল তাদের নির্বাচনে অলিম্পিক চার্টার অনুসরণ করার পরিবর্তে ভারতীয় সরকারের ক্রীড়া কোড অনুসরণ করার জন্যে। দিল্লি হাইকোর্টের নির্দেশের কারণে আইওএর নির্বাচন ভারতীয় ক্রীড়া কোডের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় [৮]

১৫ মে ২০১৩ তারিখে, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (আইওএ)এর উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কারণ ভারতীয় সরকার ও ক্রীড়া সংস্থার প্রতিনিধিরা আইওসি কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে একটি চুক্তিতে আসেন [৯]। তা সত্ত্বেও ২০১৪ সালের শীতকালীন অলিম্পিক। ২০১৪ অলিম্পিকে তিনজন ভারতীয় ক্রীড়াবিদ জাতীয় পতাকার অধীনে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারেননি। অবশেষে আইওএ'র প্রধান নির্বাচন করার জন্য একটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় 9 ফেব্রুয়ারি। অভয় সিং চৌতালা এবং ললিত ভানোট অযোগ্য বিবেচিত হন তাদের বিরুদ্ধে আদালতের অভিযোগ থাকার কারণে। পরিবর্তে, ওয়ার্ল্ড স্কোয়াশ ফেডারেশন এর তৎকালীন সভাপতি নারায়ণা রামচন্দ্রন আই ও এ র সভাপতি নির্বাচিত হন [১০]

১১ ই ফেব্রুয়ারী ২০১৪ তারিখে, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়। ফলস্বরূপ, ১৪ মাস পর ভারত অলিম্পিকে ফিরে আসে [১১]

অলিম্পিক পদকজয়ী[সম্পাদনা]

পদক নাম / দল গেমস খেলা ইভেন্ট
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯২৮ আমস্টারডাম ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৩২ লস এঞ্জেলস ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৩৬ বার্লিন ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৪৮ লন্ডন ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৫২ হেলসিঙ্কি ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 ব্রোঞ্জ খাসাবা দাদাসাহেব যাদব ১৯৫২ হেলসিঙ্কি কুস্তি কুস্তি পুরুষদের ফ্রিস্টাইল ব্যান্টামওয়েট
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৫৬ মেলবোর্ন ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 রৌপ্য ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৬০ রোম ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৬৪ টোকিও ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 ব্রোঞ্জ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৬৮ মেক্সিকো ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 ব্রোঞ্জ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৭২ মিউনিখ ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 স্বর্ণ ভারত জাতীয় ফিল্ড হকি দল ১৯৮০ মস্কো ফিল্ড হকি ফিল্ড হকি পুরুষদের প্রতিযোগিতা
 ব্রোঞ্জ লিয়েন্ডার পেজ ১৯৯৬ আটলান্টা টেনিস টেনিস পুরুষদের সিঙ্গলস
 ব্রোঞ্জ কর্ণম মালেশ্বরী ২০০০ সিডনি ভারোত্তোলন ভারোত্তোলন মহিলাদের ৬৯ কেজি
 রৌপ্য রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর ২০০৪ এথেন্স শ্যুটিং শ্যুটিং পুরুষদের ডাবল ট্র্যাপ
 স্বর্ণ অভিনব বিন্দ্রা ২০০৮ বেইজিং শ্যুটিং শ্যুটিং পুরুষদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল
 ব্রোঞ্জ বিজেন্দর সিং ২০০৮ বেইজিং বক্সিং বক্সিং পুরুষদের ৭৫ কেজি
 ব্রোঞ্জ সুশীল কুমার ২০০৮ বেইজিং কুস্তি কুস্তি পুরুষদের ৬৬ কেজি ফ্রিস্টাইল
 ব্রোঞ্জ গগন নারং ২০১২ লন্ডন শ্যুটিং শ্যুটিং পুরুষদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল
 রৌপ্য বিজয় কুমার ২০১২ লন্ডন শ্যুটিং শ্যুটিং পুরুষদের ২৫ র্যাপিড ফায়ার পিস্তল
 ব্রোঞ্জ সাইনা নেহওয়াল ২০১২ লন্ডন ব্যাডমিন্টন ব্যাডমিন্টন মহিলাদের সিঙ্গলস
 ব্রোঞ্জ মেরি কম ২০১২ লন্ডন বক্সিং বক্সিং মহিলাদের ফ্লাইওয়েট
 ব্রোঞ্জ যোগেশ্বর দত্ত ২০১২ লন্ডন কুস্তি কুস্তি পুরুষদের ৬০ কেজি ফ্রিস্টাইল
 রৌপ্য সুশীল কুমার ২০১২ লন্ডন কুস্তি কুস্তি পুরুষদের ৬৬ কেজি ফ্রিস্টাইল
 রৌপ্য পি ভি সিন্ধু ২০১৬ রিও ব্যাডমিন্টন ব্যাডমিন্টন মহিলাদের সিঙ্গলস
 ব্রোঞ্জ সাক্ষী মালিক ২০১৬ রিও কুস্তি কুস্তি মহিলাদের ৫৮ কেজি ফ্রিস্টাইল

আইওএ দ্বারা পরিচালিত মাল্টি-স্পোর্টস ইভেন্ট[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "India at the Commonwealth Games"Commonwealth Games Federation। ১৬ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১২ 
  2. Dr A G Noehren was National Physical Education Director of the YMCAs in India, and H C Buck was Principal of the National YMCA school of physical education in Madras
  3. Sharma, V. K.। Physical Education Class 12 (ইংরেজি ভাষায়)। Saraswati House Pvt Ltd। আইএসবিএন 9789350419212 
  4. "Kalmadi has not been removed: Malhotra"Deccan Herald। ২৭ এপ্রিল ২০১১। 
  5. "Abhay Chautala becomes IOA President, Lalit Bhanot named Secretary General"Webindia123.com। Suni System (Pvt) Ltd.। ৩০ নভেম্বর ২০১২। 
  6. "India outrage over IOA suspension from Olympics"। BBC News। ৫ ডিসেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১২-০৫ 
  7. "IOC wants fresh polls before it lifts ban on Indian Olympic Association"Yahoo! Sports CanadaThe Canadian Press। ১৫ জানুয়ারি ২০১৩। ১২ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. PTI (৪ ডিসেম্বর ২০১২)। "IOA suspension is an 'unfortunate decision', says Jitendra Singh"Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১২-০৫ 
  9. Srinivasan, Kamesh (১৬ মে ২০১৩)। "IOC agrees to take India back in Olympic fold"The Hindu। Chennai, India। 
  10. "IOA polls on Sunday, India likely to return to Olympic fold"The Times Of India 
  11. "India's Olympic exile ends as IOC revokes IOA's ban"timesofindia.indiatimes.comTimes Of India। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৪।