ফ্রেড গ্রেস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফ্রেড গ্রেস
Portrait of George Frederick Grace Wellcome L0001912.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজর্জ ফ্রেডেরিক গ্রেস
জন্ম(১৮৫০-১২-১৩)১৩ ডিসেম্বর ১৮৫০
ডাউনএন্ড, দক্ষিণ গ্লুচেস্টারশায়ার
মৃত্যু২২ সেপ্টেম্বর ১৮৮০(1880-09-22) (বয়স ২৯)
ব্যাসিংস্টোক, হ্যাম্পশায়ার
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট (রাউন্ডআর্ম)
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
সম্পর্কএইচ. গ্রেস, ই. এম. গ্রেস, ডব্লিউ. জি. গ্রেস (ভ্রাতৃত্রয়); ডব্লিউ. আর. গিলবার্ট (কাকাতো ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ২৩)
৬ সেপ্টেম্বর ১৮৮০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৮৭০-১৮৮০গ্লুচেস্টারশায়ার
১৮৭০-১৮৭৬ইউএসইই
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৯৫
রানের সংখ্যা ৬,৯০৬
ব্যাটিং গড় ০.০০ ২৫.০২
১০০/৫০ ০/০ ৮/৩২
সর্বোচ্চ রান ১৮৯*
বল করেছে ১৭,৬৪৯
উইকেট ৩২৯
বোলিং গড় ২০.০৬
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৭
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৮/৪৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/– ১৭০/৩
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ২১ ডিসেম্বর ২০১৬

জর্জ ফ্রেডেরিক ফ্রেড গ্রেস (ইংরেজি: Fred Grace; জন্ম: ১৩ ডিসেম্বর, ১৮৫০ - মৃত্যু: ২২ সেপ্টেম্বর, ১৮৮০) দক্ষিণ গ্লুচেস্টারশায়ারের ডাউনএন্ডে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ১৮৬৬ থেকে ১৮৮০ সময়কালে গ্লুচেস্টারশায়ার, ইউনাইটেড সাউথ অব ইংল্যান্ড ইলাভেন (ইউএসইই) দলের পক্ষে খেলেন। এছাড়াও ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষে একটিমাত্র টেস্টে অংশ নিয়েছিলেন ফ্রেড গ্রেস। ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ডানহাতে ফাস্ট রাউন্ডআর্ম বোলিংয়ে পারদর্শিতা দেখিয়েছেন। পরিসংখ্যানগতভাবে চিহ্নিত প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের ১৯৫ খেলায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি।[ফ ১] ঐ খেলাগুলোয় ৬,৯০৬ রান তোলেন। তন্মধ্যে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল অপরাজিত ১৮৯*। অসাধারণ ফিল্ডার হিসেবেও পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। এছাড়াও মাঝে-মধ্যে উইকেট-রক্ষণের দায়িত্বেও ছিলেন। ১৭০ ক্যাচ নেয়াসহ তিনটি স্ট্যাম্পিংয়ে জড়িত রয়েছেন তিনি। ৩২৯ উইকেট লাভ করেন। সেরা বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছেন ৮/৪৩।[১][২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ফ্রেড পরিবারের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য ছিলেন ফ্রেড গ্রেস। হেনরি, আলফ্রেড, ইএম এবং ডব্লিউজি - বড় চার ভাইদের সকলেই ক্রিকেটের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ইএম এবং ডব্লিউজি’র ন্যায় সমসাময়িককালে মুদ্রিত আকারে তিনি জি. এফ. গ্রেস নামে সংক্ষিপ্ত আকারে পরিচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে অবশ্য তিনি ফ্রেড নামেই পরিচিতি পান। তবে বড় দুই ভাই হেনরি ও আলফ্রেড তাঁদের নামের প্রথম অংশেই সর্বদা পরিচিত ছিলেন।[৩][৪][৫]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

ক্লাব ক্রিকেটেই তিনি সকলের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন। তাঁর বাবাও ওয়েস্ট গ্লুচেস্টারশায়ার ক্রিকেট ক্লাবে খেলেছিলেন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে ১৮৬৪ সালে ঐ ক্লাবেও তাঁর অংশগ্রহণ ঘটে। বলা হয়ে থাকে যে, ডব্লিউজি’র ন্যায় তিনি সোজা ব্যাটে খেলতে অনভ্যস্ত ছিলেন।[৬] কিন্তু, হিটিংয়ের মাধ্যমে ঠিকই তা পুষিয়ে নিয়েছিলেন। ফিল্ডিংয়ে তাঁর দাঁড়ানোর ভঙ্গীমা ছিল অসাধারণ। খেলায় সর্বক্ষণই অসাধারণ পরিচয় দিতেন ও বর্ণাঢ্যময় ফিল্ডিংয়ের মাধ্যমে প্রশংসা কুড়াতেন।[৭]

সেপ্টেম্বর, ১৮৮০ সালে ওভালে ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার খেলাটি টেস্টের মর্যাদা পায়। ঐ খেলায় প্রথমবারের মতো ইএম, ডব্লিউজি এবং ফ্রেড - এ তিন ভাই ইংল্যান্ড দলের পক্ষে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

প্রশ্নাতীতভাবেই ১৮৭০-এর দশকে ফ্রেড গ্রেস শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটার ছিলেন। কিন্তু অনেকেরই অভিমত যে ডব্লিউজি’র কারণে তাঁর সাফল্য অনেকাংশেই চোখে পড়েনি।

দেহাবসান[সম্পাদনা]

২২ সেপ্টেম্বর, ১৮৮০ তারিখে তাঁর দেহাবসান ঘটে। নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হন ও ফুসফুসের সংক্রমণে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর শবযাত্রায় প্রায় ৩,০০০ লোক উপস্থিত ছিল ও ডাউনএন্ডের সমাধিস্থলে তাঁকে সমাধিস্থ করা হয়। ঐ দিনই অস্ট্রেলীয়রা শেষ খেলায় অংশ নিয়েছিল ও বাহুতে কালো কাপড় ধারন করে তাঁকে নীরব শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে। দ্য টাইমস এ প্রসঙ্গে লিখে যে, তাঁর পুরুষসূলভ আচরণ ও সোজাসাপ্টা জবাবই তাঁকে জনপ্রিয়তায় নিয়ে আসেনি বরং আতিথেয়তা ও বন্ধুসূলভ আচরণও সকলকে বিমোহিত করে রেখেছিল।[৮]

তবে গ্রেসের অসুস্থতার বিষয়ে স্যাঁতস্যাঁতে হোটেলের বিছানায় অবস্থানের কারণে ঘটেছে বলে জানা যায়।[৪] কিন্তু তা সাময়িকভাবেই বিতর্কের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়। কেননা, ওভালে অনুষ্ঠিত খেলা চলাকালীনই তিনি ঠাণ্ডায় আক্রান্ত হন ও এ অবস্থাতেই তিনি ব্যাসিংস্টোকে এসেছিলেন।

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "First-class cricket" was officially defined in May 1894 by a meeting at Lord's of Marylebone Cricket Club (MCC) and the county clubs which were then competing in the County Championship. The ruling was effective from the beginning of the 1895 season. Pre-1895 matches of the same standard have no official definition of status because the ruling is not retrospective and the "unofficial first-class" designation, as applied to a given match, is based on the views of one or more substantial historical sources. For further information, see First-class cricket, Forms of cricket and History of cricket.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Fred Grace at CricketArchive
  2. Fred Grace at ESPNcricinfo
  3. Rae, pp. 15–16.
  4. Midwinter, pp. 86–87.
  5. Birley, p. 104.
  6. Rae, pp. 57–58.
  7. Barclays, p. 14.
  8. Rae, p. 257.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]