নাও ছাড়িয়া দে পাল উড়াইয়া দে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
"নাও ছাড়িয়া দে পাল উড়াইয়া দে"
আব্বাস উদ্দিন আহমেদ কর্তৃক সঙ্গীত
ভাষাবাংলা
ধারাপল্লীগীতি
গান লেখকগিরীণ চক্রবর্তী
সঙ্গীত রচয়িতাগিরীণ চক্রবর্তী
বাংলাদেশ-এর সঙ্গীত
BD Dance.jpg
বাউল, বাংলার আধ্যাত্মিক গান
ধরন
নির্দিষ্ট ধরন
ধর্মীয় সঙ্গীত
জাতিগত সঙ্গীত
ঐতিহ্যবাহি সঙ্গীত
মিডিয়া এবং কর্মক্ষমতা
সঙ্গীত পুরস্কার
সঙ্গীত উৎসব
সঙ্গীত মিডিয়াবেতার

টেলিভিশন

ইন্টারনেট
জাতীয় এবং দেশাত্মবোধক গান
জাতীয় সঙ্গীতআমার সোনার বাংলা
অন্যান্যনতুনের গান (রণসঙ্গীত)
একুশের গান (ভাষা আন্দোলন গাথা)
আঞ্চলিক সঙ্গীত
সম্পর্কিত এলাকা
অন্যান্য এলাকা

নাও ছাড়িয়া দে পাল উড়াইয়া দে গিরীণ চক্রবর্তী রচিত এবং সুরারোপিত একটি জনপ্রিয় লোকসঙ্গীত।[১] গানটি গেয়েছেন আব্বাস উদ্দিন আহমেদ

গানের কথা[সম্পাদনা]

নাও ছাড়িয়া দে পাল উড়াইয়া দে

ছল ছলাইয়া চলুক রে নাও মাঝ দইরা দিয়া চলুক মাঝ দইরা দিয়া।।

উড়ালি বিড়ালি বাওয়ে নাওয়ের বাদাম নড়ে (আরে)।
আথালি পাথালি পানি ছলাৎ। ছলাৎ করে রে।

আরে খল খলাইয়া হাইসা উঠে
বৈঠার হাতল চাইয়া হাসে, বৌঠার হাতল চাইয়া।।

ঢেউয়ের তালে পাওয়ের ফালে নাওয়ের গলই কাঁপে
তির তিরাইয়া নাওয়ের খৈয়াই রোইদ তুফান মাপে,
মাপে রোইদ তুফান মাপে

চিরলি পিরলি পুলে ভ্রমর-ভ্রমরী খেলে রে (আরে)।
বাদল উদালি কায়ে পানিতে জমিতে হেলে রে

আরে তুর তুরাইয়া আইলো দেওয়া *** হাতে এলইয়া।

শালি ধানের শ্যামলা বনে হইলদা পঙ্খি ডাকে
চিকমিকাইয়া হাসে রে চান সইশা ক্ষেতের ফাকে
ফাকে সইশা ক্ষতের ফাকে

সোনালি রূপালি রঙে রাঙা হইলো নদী (আরে)।
মিতালী পাতাইতাম মুই মনের মিতা পাইতাম যদি রে

আরে ঝিলমিলাইয়া খালর পানি নাচে থৈইয়া থৈইয়া

পানি নাচে থৈইয়া থৈইয়া।।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নাও ছাড়িয়া দে পাল উড়াইয়া দে"http://banglasonglyrics.com। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ১৮, ২০১৩  |ওয়েবসাইট= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)