নবায়নযোগ্য শক্তি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
উত্তর-পশ্চিম ইংল্যান্ডে মার্সে নদীর প্রবেশমুখে 'বার্বো ব্যাঙ্ক অফশোর উইন্ড ফার্ম'-এর বায়ুকল

নবায়নযোগ্য শক্তি হলো এমন শক্তি যা নানা প্রাকৃতিক উৎস যেমন: সূর্যের আলো, বাতাস, বৃষ্টি ইত্যাদি থেকে পাওয়া যায় এবং এগুলোকে বারবার ব্যবহার করা যায়। ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে মোট বার্ষিক শক্তির ১৯% এসেছিলো বায়োগ্যাস থেকে, যা প্রধানত ব্যবহৃত হয় তাপের জন্য, এবং ৩.২% আসে জলবিদ্যুৎ থেকে।[১]

নবায়নযোগ্য জৈব জ্বালানি[সম্পাদনা]

সম্প্রতি (২০১০ খ্রিস্টাব্দে) পাকিস্তানের কায়দে আজম বিশ্ববিদ্যালয়ের ন্যানোবিজ্ঞানীরা ব্যবহৃত চা-পাতা থেকে জৈব জ্বালানি তৈরির একটি উপায় বের করেছেন। তাঁরা এ থেকে বিকল্প পদ্ধতিতে ব্যবহৃত ফেলে দেয়া চা পাতা থেকে গ্যাসিফিকেশন পদ্ধতিতে ২৮% হাইড্রোকার্বন গ্যাস উৎপাদন করা সম্ভব। এই গ্যাস কয়লার মতোই সরাসরি জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। তবে অন্যান্য গবেষকদের মতে এ উপায়ে জৈব জ্বালানি তৈরির খরচ অনেক বেশি।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.ren21.net/globalstatusreport/REN21_GSR_2010_full.pdf
  2. "বাতিল চা-পাতা থেকে জৈব জ্বালানি", নুরুন্নবী চৌধুরী; বিজ্ঞান প্রজন্ম, দৈনিক প্রথম আলো, ঢাকা; জুলাই ৩, ২০১০। তথ্যসূত্র: Science & Development Network।