টমি স্কট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টমি স্কট
Tommy Scott.jpg
১৯৩০-৩১ মৌসুমের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে টমি স্কট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅস্কার চার্লস স্কট
জন্ম(১৮৯২-০৮-১৪)১৪ আগস্ট ১৮৯২
কিংস্টন, জ্যামাইকা
মৃত্যু১৫ জুন ১৯৬১(1961-06-15) (বয়স ৬৮)
কিংস্টন, জ্যামাইকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
ভূমিকাবোলার
সম্পর্কআলফ্রেড স্কট (পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৩)
২১ জুলাই ১৯২৮ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৩১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯১০ – ১৯৩৫জ্যামাইকা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪৫
রানের সংখ্যা ১৭১ ১,৩১৭
ব্যাটিং গড় ১৭.১০ ২৪.৩৮
১০০/৫০ ০/০ ০/৯
সর্বোচ্চ রান ৩৫ ৯৪
বল করেছে ১,৪০৫ ৯,৭০৬
উইকেট ২২ ১৮২
বোলিং গড় ৪২.০৪ ৩০.৫২
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৪
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৫/২৬৬ ৮/৬৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ১৪/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৭ জানুয়ারি ২০১৮

অস্কার চার্লস টমি স্কট (ইংরেজি: Tommy Scott; জন্ম: ১৪ আগস্ট, ১৮৯২ - মৃত্যু: ১৫ জুন, ১৯৬১) জ্যামাইকার কিংস্টনের ফ্রাঙ্কলিন টাউন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯২০-এর দশকের শেষার্ধ্ব থেকে ১৯৩০-এর দশকের সূচনাকাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে জ্যামাইকার প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ লেগ-ব্রেক বোলার ছিলেন। পাশাপাশি ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন টমি স্কট

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯১০ থেকে ১৯৩৫ সময়কালে জ্যামাইকার সদস্যরূপে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটের ইতিহাসের সর্বপ্রথম টেস্টে অংশগ্রহণ করার সৌভাগ্য অর্জন করেন। ২১ জুলাই, ১৯২৮ তারিখে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে টমি স্কটের।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আট টেস্টে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পান। তন্মধ্যে, ১৯৩০-৩১ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া সফরের পাঁচ টেস্ট সিরিজের প্রত্যেকটিতে অংশ নেন।

একটি টেস্টে সর্বাধিক রান দেয়ার বোলিং পরিসংখ্যান গড়ে অগৌরবজনক রেকর্ডের অধিকারী তিনি। ১৯২৯-৩০ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কিংস্টন টেস্টে ৩৭৪ রান দিয়ে ৯ উইকেট পান তিনি। তন্মধ্যে প্রথম ইনিংসে তার বোলিং পরিসংখ্যান ছিল ৮০.২ ওভার ১৩ মেইডেন ২৬৬ রান ৫ উইকেট। অসীম সময়ের ঐ টেস্টে ইংল্যান্ড দল ৮৪৯ রান তুলে। পরবর্তীতে ২০০৮-০৯ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া-ভারতের মধ্যকার চতুর্থ টেস্টে জেসন ক্রেজা ৩৫৮ রান দিয়ে তাকে দ্বিতীয় স্থানে পাঠিয়ে দেন।[১]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ছিলেন তিনি। তার সন্তান আলফ্রেড স্কট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৫ জুন, ১৯৬১ তারিখে ৬৯ বছর বয়সে জ্যামাইকার কিংস্টনে দেহাবসান ঘটে টমি স্কটের।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Frindall, Bill (২০০৯)। Ask BeardersBBC Books। পৃষ্ঠা 128–129। আইএসবিএন 978-1-84607-880-4 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]