জিন্দ জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জিন্দ জেলা
হরিয়ানার জেলা
হরিয়ানায় জিন্দ জেলার অবস্থান
হরিয়ানায় জিন্দ জেলার অবস্থান
দেশভারত
রাজ্যহরিয়ানা
বিভাগহিসার
সদর দপ্তরজিন্দ
তহশিল১. জিন্দ ২. জুলানা ৩. নারওয়ানা ৪. সাফিদন
আয়তন
 • মোট২৭০২ কিমি (১০৪৩ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট১৩,৩৪,১৫২
 • জনঘনত্ব৪৯০/কিমি (১৩০০/বর্গমাইল)
জনসংখ্যার উপাত্ত
 • সাক্ষরতা৭২.৭%
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত৪৩৪ মিমি
লোকসভা কেন্দ্রগুলি১. সোনিপথ (সোনিপথ জেলা র সাথে), ২. হিসার (হিসার জেলার সাথে), ৩. সিরসা (সিরসা জেলার সাথে)
বিধানসভা কেন্দ্র
ওয়েবসাইটhttp://jind.nic.in/

জিন্দ জেলা হল উত্তর ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের ২২টি জেলার মধ্যে একটি। জিন্দ শহরটি জেলার প্রশাসনিক সদর দফতর। এটি হিসার বিভাগের অংশ এবং এটি ১৯৬৬ সালে নির্মিত হয়েছিল। শিখ শাসনকালে, জিন্দ হরিয়ানার কেন্দ্রে অবস্থিত ছিল এবং জাঠ বলয়ের চতুর্থ জেলা ছিল। বাকি অঞ্চলগুলি হল - সোনিপাত, রোহতক এবং হিসার

নামের উৎপত্তি[সম্পাদনা]

জেলাটির সদর শহর জিন্দ থেকে এই নামটি পাওয়া যা আবার জৈন্তাপুরী থেকে উদ্ভূত বলে জানা যায়। আরও বলা হয় যে এই শহরটি মহাভারতের যুগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। জনশ্রুতি অনুসারে, পাণ্ডবেরা জৈন্তি দেবী (বিজয়ের দেবী)র সম্মানে একটি মন্দির নির্মাণ করেছিলেন, সাফল্যের জন্য প্রার্থনা করেছিলেন এবং তারপরে কৌরবদের সাথে যুদ্ধ শুরু করেছিলেন। শহরটি মন্দিরের চারপাশে বেড়ে ওঠে এবং এর নাম জৈন্তাপুরি (জৈন্তি দেবীর আবাস) ছিল যা পরবর্তীকালে জিন্দ নামে পরিচিতি লাভ করে।

বিভাগ সমূহ[সম্পাদনা]

জেলাটি তিনটি মহকুমা নিয়ে গঠিত: জিন্দ, নারওয়ানা ও সাফিদন। জিন্দ মহকুমা আরও তিনটি তহশিলে বিভক্ত: জিন্ড, জুলানা এবং আলেওয়া (উপ-তহশিল)। নারওয়ানা মহকুমা আরও দুটি তহশিলে বিভক্ত: নারওয়ানা ও উচানা (উপ-তহশিল), এবং সাফিদন মহকুমাকে দুটি তহসিলে বিভক্ত করা হয়েছে: সাফিদন এবং পিলু-খেড়া (উপ-তহশিল)। এই জেলায় পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্র রয়েছে: জিন্দ, জুলানা, সাফিদন, উচানা কালান এবং নারওয়ানা। জিন্দ, জুলানা এবং সাফিদন সোনিপথ লোকসভা কেন্দ্রের অংশ। নারওয়ানা এবং উচানা কালান যথাক্রমে সিরসা এবং হিসার লোকসভা কেন্দ্রের অংশ।[১]

প্রশাসনিক সদর দফতর জিন্দ শহরে একটি অর্জুন স্টেডিয়াম, দুগ্ধ কারখানা, গবাদি পশুখাদ্য কারখানা এবং একটি বড় শস্যবাজার রয়েছে। এখানকার পিডব্লিউডি রেস্ট হাউস, ক্যানাল রেস্ট হাউস এবং বাজার কমিটির রেস্ট হাউসে থাকার সুযোগ রয়েছে। শহরটিতে বিদ্যালয়, কলেজ, হাসপাতাল এবং অন্যান্য সমস্ত প্রাথমিক সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। শিবের উপাসনার জন্য অসংখ্য পুণ্য মন্দিরের জন্য জিন্দ বিখ্যাত। ঐতিহ্যময় মহাভারতের সময়কাল থেকে এই শহরটিতে বসতি স্থাপিত হয়েছে। এখানকার পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ রানী তালাও। মূলত অমাবস্যায় পবিত্র স্নানের জন্য, পান্ডু-পিদারা এবং রামরাই, ভক্তদের আকর্ষণ করে।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে জিন্দ জেলার জনসংখ্যা ১,৩৩৪,১৫২।[২] এটি মরিশাস[৩] বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মেইনের জনসংখ্যার প্রায় সমান।[৪] জনসংখ্যার ভিত্তিতে এটি ভারতে ৩৬৪তম স্থানে (মোট ৬৪০ জেলার মধ্যে) আছে।[২] জেলার জনসংখ্যার ঘনত্ব ৪৯৩ জন প্রতি বর্গকিলোমিটার (১,২৮০ জন/বর্গমাইল)।[২] এর জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ২০০১ - ২০১১ এর দশকে ১১.৯৫% ছিল।[২] জিন্দে প্রতি ১০০০ পুরুষের জন্য ৮৭০ জন মহিলা (যৌন অনুপাত) রয়েছে,[২] এবং এখানে সাক্ষরতার হার এর ৭২.৭%।[২]

২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী, জেলার জনসংখ্যার ৯৬.৯৭% তাদের প্রথম ভাষা হিসাবে হিন্দিতে এবং ২.৮১% পাঞ্জাবিতে কথা বলে।[৫]

জিন্দ জেলায় ধর্ম (২০১১)[৬]
ধর্ম শতাংশ
হিন্দুধর্ম
  
৯৫.৬৯%
শিখধর্ম
  
২.১৮%
ইসলাম
  
১.৭৩%
জৈন ধর্ম
  
০.১৯%
খ্রিস্ট ধর্ম
  
০.০৭%
বৌদ্ধ ধর্ম
  
০.০১%
বলেনি
  
০.১২%

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Delimitation of Parliamentary and Assembly Constituencies Order, 2008" (PDF)। The Election Commission of India। পৃষ্ঠা 151, 157। 
  2. "District Census 2011"। Census2011.co.in। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০ 
  3. US Directorate of Intelligence। "Country Comparison:Population"। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-০১Mauritius 1,303,717 July 2011 est. 
  4. "2010 Resident Population Data"। U. S. Census Bureau। ২০১৩-১০-১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-৩০Maine 1,328,361 
  5. 2011 Census of India, Population By Mother Tongue
  6. http://www.census2011.co.in/census/district/216-jind.html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Forts of Haryana

টেমপ্লেট:Districts of Haryana টেমপ্লেট:Hindu temples in Haryana

স্থানাঙ্ক: ২৯°১৮′৩৬″ উত্তর ৭৬°১৯′১২″ পূর্ব / ২৯.৩১০০০° উত্তর ৭৬.৩২০০০° পূর্ব / 29.31000; 76.32000