গাসা জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

গাসা জেলা ভুটানের ২০টি জেলার একটি জেলা। গাসা জেলার রাজধানী গাসার কাছে গাসা জং অবস্থিত। এটি কাউন্টির সুদূর উত্তরে অবস্থিত এবং তিব্বতীয় হিমালয়ের মধ্য ও উচ্চ অঞ্চল জুড়ে রয়েছে। জেলার আধিপত্যপূর্ণ ভাষা হল জংখা, যা ভুটানের রাষ্ট্র ভাষা। জংখা ছাড়াও জেলার উত্তরে আধা যাযাবর সম্প্রদায়ের লোকেরা লায়াখা ও লুনানা ভাষায় কথা বলে। গণপ্রজাতন্ত্রী চীন গাসা জেলার উত্তর অংশ দাবি করেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

গাসা পূর্বে পুনাখা জেলার একটি ডংখাগ (উপজেলা) ছিল। ১৯৯২ সালে সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী পুনাখাকে একটি পৃথক জংখাগে (জেলায়) উন্নীত করা হয়।[১]

ভূগোল[সম্পাদনা]

গাসা জেলার উত্তরে রয়েছে চীনের তিব্বত স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল এবং দক্ষিণে থিম্ফু, পুনাখা, এবং ওয়াংদুয়ে ফোদ্রাং জেলা।

প্রশাসনিক বিভাগ[সম্পাদনা]

গাসা জেলা চারটি গিয়োগে বিভক্ত[১] [২]

  • খামেদ গিয়োগ,[২] পূর্বে গোয়েনখামে [১] নামে পরিচিত ছিল
  • খাতোয়েদ গিয়োগ, পূর্বে গোয়েনকাটো নামে পরিচিত ছিল
  • লায়া গিয়োগ
  • লুনানা গিয়োগ

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

২০০৫ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী জেলার জনসংখ্যা ছিল ৩,১১৬ জন। ২০১৭ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী জনসংখ্যা হল ৩,৯৫২ জন।[৩] জেলার জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ২৬.৮% এবং জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১.৩ জন।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Annual Dzongkhag Statistics 2010: Gasa" (PDF)। [National Statistics Bureau], Government of Bhutan। ২০১০। ২৫ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ আগস্ট ২০১১ 
  2. "Gewogs and chiwogs in Gasa (2011)" (PDF)। [Election Commission], Government of Bhutan। ২০১১। ২ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুলাই ২০১১ 
  3. "Population and Housing Census of 2017 (National Report)" (PDF)। National Statistics Bureau। ২০১৮-০৬-২৬। পৃষ্ঠা 102। ২০১৯-০২-২৮ তারিখে মূল (pdf) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-৩১