কেনিয়া জয়ন্তীলাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেনিয়া জয়ন্তীলাল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহার্জি কেনিয়া জয়ন্তীলাল
জন্ম১৩ জানুয়ারি, ১৯৪৮
হায়দ্রাবাদ, অন্ধ্রপ্রদেশ, ব্রিটিশ ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ১২৬)
১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭১ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬৭ - ১৯৭৯হায়দ্রাবাদ
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৯১
রানের সংখ্যা ৪,৬৮৭
ব্যাটিং গড় ৫.০০ ৩৬.৩৩
১০০/৫০ ০/০ ৮/২২
সর্বোচ্চ রান ১৯৭
বল করেছে ৬০৬
উইকেট
বোলিং গড় ৫১.৮৩
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/৪৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ৬৬/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২১ জুন ২০২০

হার্জি কেনিয়া জয়ন্তীলাল (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; হিন্দি: केनिया जयंतीलाल; জন্ম: ১৩ জানুয়ারি, ১৯৪৮) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের হায়দ্রাবাদ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৭০-এর দশকের শুরুতে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে হায়দ্রাবাদ দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন কেনিয়া জয়ন্তীলাল

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৬৭-৬৮ মৌসুম থেকে ১৯৭৪-৭৫ মৌসুম পর্যন্ত কেনিয়া জয়ন্তীলালের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

মজবুত গড়নের অধিকারী ডানহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ছিলেন কেনিয়া জয়ন্তীলাল। বেশ ভালোমানের রক্ষণাত্মক ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনসহ পুল শটে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন। রঞ্জী ট্রফিতে অন্ধ্রের বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। ঐ খেলায় তিনি ১৫৩ রান তুলেছিলেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ কিছু দূর্দান্ত ক্রীড়ানৈপুণ্যে স্বাক্ষর রেখেছেন। প্রায় দুই দশক হায়দ্রাবাদের অন্যতম চালিকাশক্তিতে পরিণত হন। ৪১.১০ গড়ে ২৩৮৪ রান তুলেছিলেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন কেনিয়া জয়ন্তীলাল। ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৯৭১ তারিখে কিংস্টনে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

১৯৭১ সালে সংরক্ষিত উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমন করেন। সুনীল গাভাস্কার আহত হলে কিংস্টনে সিরিজের প্রথম টেস্টে অংশ নেন। ঐ টেস্টে তিনি পাঁচ রান সংগ্রহ করতে পেরেছিলেন। পরবর্তীতে আঘাতপ্রাপ্ত সুনীল গাভাস্কারের পরিবর্তে অতিরিক্ত খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামেন।

এটিই তার খেলোয়াড়ী জীবনের একমাত্র টেস্ট হিসেবে পরিচিতি পায়। তবে, প্রথম-শ্রেণীর খেলাগুলোয় বেশ সফল হয়েছিলেন। ৫৬.২২ গড়ে ৫০৬ রান তুলেন ও ঐ সফরে গড়ের দিক দিয়ে চতুর্থ স্থানে ছিলেন। তবে, ঐ বছরের শেষদিকে ইংল্যান্ড সফরে তেমন সফল হননি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of India Test Cricketers
  2. "India – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০২০ 
  3. "India – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জুন ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]