কাউয়াই

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
কাউয়াʻ
ডাকনাম: দ্য গার্ডেন আইল্যান্ড
Kauai from space oriented.jpg
আগষ্ট ১৯৮৯ স্যাটেলাইট ছবি
Map of Hawaii highlighting Kauai.svg
হাওয়াʻ-এ অবস্থান
ভূগোল
অবস্থান ২২°০৫′ উত্তর ১৫৯°৩০′ পশ্চিম / ২২.০৮৩° উত্তর ১৫৯.৫০০° পশ্চিম / 22.083; -159.500
আয়তন টেমপ্লেট:Convinfobox/sec2
আয়তনে ক্রম চতুর্থ বৃহত্তম হাওয়াইয়ান দ্বীপ
সর্বোচ্চ উচ্চতা ৫২৪৩ ফিট (১৫৯৮.১ মি)
সর্বোচ্চ বিন্দু কাউয়াইকিনি
প্রশাসন
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
{{{region}}} প্রতীক
ফুল Mokihana (Melicope anisata)[১]
Color Poni (Purple)
জনপরিসংখ্যান
জনসংখ্যা ৬৫,৬৮৯ (২০০৮[২])
জনঘনত্ব ১০৬ /বর্গ মাইল (৪০.৯ /কিমি)

কাউʻয়াই, ইংরেজিকৃত বা অ্যাংলাইজড যেমন Kauai,[ক] (ইংরেজি উচ্চারণ: /kəˈw.i/; টেমপ্লেট:IPA-haw) হচ্ছে মূল হাওয়াইয়ান দ্বীপের ভূতাত্ত্বিকভাবে একটি প্রাচীন দ্বীপ। এর আয়তন ৫৬২.৩ বর্গমাইল (১,৪৫৬.৪ কিমি), এটি এই দ্বীপপুঞ্জের চতুর্থ বৃহত্তম এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ২১তম বৃহত্তম দ্বীপ[৩] "গার্ডেন ইসলে" নামেও পরিচিত, কাউʻয়াই কাʻয়াই চ্যানেলের ১০৫ মাইল (১৬৯ কিমি) জুড়ে অবস্থিত, এবং ʻআহুর উত্তর পশ্চিমে অবস্থিত। দ্বীপটি ওয়াইমিয়া ক্যানিয়ন স্টেট পার্ক এর স্থল।

মার্কিন আদমশুমারি দপ্তর কাউয়াʻইকে সংজ্ঞায়িত করেছে কাউয়াই কাউন্টি, হাওয়াʻ-এর আদমশুমারি এলাকা ৪০১ থেকে ৪০৯ পর্যন্ত, কা'উলা, লেহুয়া এবং নিʻইহাউ দ্বীপগুলো ব্যতীত সমস্ত কাউন্টি নিয়ে গঠিত। ২০১০ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আদমশুমারি অনুযায়ী দ্বীপটির জনসংখ্যা ছিল ৬৭,০৯১জন [৪] সবচেয়ে জনবহুল শহর ছিল কাপাʻ

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৭৭৮-এ, ক্যাপ্টেন জেমস কুক ওয়াইমিয়া উপসাগরে পৌঁছান, হাওয়াʻইয়ান দ্বীপপুঞ্জে প্রবেশ করা তিনিই প্রথম ইউরোপীয়। তার পৃষ্ঠপোষক স্যান্ডউইচ এর ৬ষ্ঠ আর্ল, জর্জ মন্টাগু এর নামে তিনি দ্বীপপুঞ্জটির নামকরন করেন।[৫]

রাজা কামেহামেহা এর রাজত্বের সময়, কাউয়াʻই এবং নিʻইহাউ দ্বীপ ছিল শেষ হাওয়াʻইয়ান দ্বীপ যেগুলো তার হাওয়াʻ রাজ্যের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। সেখানের শাসক, কাউমুয়ালিʻ, কামেহামেহাকে কিছু বছরের জন্য প্রতিরুদ্ধ করে রাখে। রাজা কামেহামেহা শক্তিমত্তা দিয়ে দুইবার জাহাজ এবং নৌকার একটি বিশাল বাহিনী দ্বারা দ্বীপটি গ্রহণ করার জন্য প্রস্তুতি নেয়, এবং দুইবার ব্যর্থ হয়; একবার একটি ঝড়ের কারণে, এবং একবার একটি মহামারীর কারনে। আরো আক্রমণ হুমকির মুখে, যাইহোক, কাউমুয়ালিʻই রক্তপাত ছাড়াই রাজত্বে যোগদান করার সিদ্ধান্ত নেয়, এবং ১৮১০-এ কামেহামেহার সামন্ত হন। ১৮২৪-এ তার মৃত্যুর পর দ্বীপটি হাওয়াʻই রাজ্যের নিকট সর্মপন করা হয়।[৫]

Schäffer affair[সম্পাদনা]

১৮১৫-এ, রাশিয়ান-আমেরিকান কোম্পানির একটি জাহাজ এই দ্বীপে ধ্বংস হয়। ১৮১৬-এ, রাশিয়ানদেরকে ফোর্ট এলিজাবেথ নির্মানে অনুমতি দিতে কুউমুয়ালিʻই কতৃর্ক একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এটি ছিল কুউমুয়ালি'ই কর্তৃক একটি প্রয়াস যা রাজা কামেহামেহা এর বিরুদ্ধে লড়তে রাশিয়ানদের সর্মথন আদায়ে ভূমিকা রাখে। ১৮১৭-এ নির্মান শুরু হয়, সে বছরের জুলাইয়ে স্থানীয় হাওয়াই ও মার্কিন ব্যবসায়ীদের অধিরোহণ প্রতিরোধের কারনে রাশিয়ানরা তাড়িত হয়।

কোলোয়ার পুরানো চিনিকল[সম্পাদনা]

১৮৩৫-এ, পুরানো কোয়ালা শহর একটি চিনিকল চালু করে।[৫] ১৯০৬ থেকে ১৯৩৪ পর্যন্ত জন মাহিʻয়াই কানিয়াকুয়া কর্তৃক কাউন্টি ক্লার্ক অফিস পরিচালিত হয়, যিনি ১৮৯৩-এ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃক হাওয়াʻই নিয়ে নেওয়ার পর সিংহাসনের রানী লিলিওকালানিকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টায় সক্রিয় ছিলেন।[৬]

বু্ৎপত্তি এবং ভাষা[সম্পাদনা]

হাওয়াইয়ান আখ্যান নাম এর উৎপত্তি হাওয়াʻইলোয়া উপকথায় পাওয়া যায়, পলিনেশিয়ান ন্যাভিগেটরদের নাম হাওয়াʻইয়ান দ্বীপপুঞ্জের আবিষ্কারের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। প্রচলিত রয়েছে কিভাবে তিনি তার প্রিয় পুত্রের নামে কাউয়াʻই দ্বীপের নামকরন করেন; কাউয়াʻই এর সম্ভাব্য অনুবাদ হচ্ছে "ঘাড়ের কাছাকাছি স্থান", বর্ণনা রয়েছে কিভাবে একজন পিতা একজন প্রিয় সন্তানকে বহন করবে। অন্য সম্ভাব্য অনুবাদ হতে পারে "খাদ্য মৌসুম"।[৭]

কাউয়াʻই এটির হাওয়াইয়ান ভাষার স্বতন্ত্র উপভাষার জন্য পরিচিত ছিল; এটি নিʻihauইহাও এর উপর বেঁচে আছে। যদিও আজ মানসম্পন্ন ভাষা হাওয়াʻই দ্বীপের উপভাষা গ্রহন করেছে, যার আওয়াজ আছে [k], কুয়াʻই উপভাষা [t] উচ্চারনের জন্য পরিচিত ছিল। এই প্রভাবের মধ্যে, কাউয়াʻই উপভাষা পুরাতন প্যান-পলিনেশিয়ান /t/ অপরিবর্তিত রেখেছে, যেখানে "স্টান্ডার্ড" হাওয়াʻই উপভাষা [k] এ পরিবর্তিত হয়েছে।[স্পষ্টকরণ প্রয়োজন] এই কারণে, কাউয়াʻই এর স্থানীয় নাম ডাকা হতো টাউয়াʻ, এবং প্রধান স্থান কাপাʻয়া এর উচ্চারন করা হতো টাপাʻয়া

ভূগোল[সম্পাদনা]

কাউয়াʻইয়ের উৎপত্তি আগ্নেয়গিরি থেকে, দ্বীপটি হাওয়াই হটস্পটের উপর প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্লেটের উত্তরণ দ্বারা গঠিত হয়েছে। প্রায় ছয় মিলিয়ন বছর বয়স এই দ্বীপের, এটি প্রধান দ্বীপগুলির মধ্যে প্রাচীনতম। এই পাহাড়ী দ্বীপের সর্বোচ্চ চূড়া হল কাওয়াকিনি, এর উচ্চতা ৫,২৪৩ ফুট (১,৫৯৮ মি)।[৮]

দ্বিতীয় সর্বোচচ চূড়া হল মাউন্ট ওয়াইʻআলেʻআলে, যেটি দ্বীপটির কেন্দ্রে অবস্থিত এবং সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ৫,১৪৮ ফু (১,৫৬৯ মি) উপরে। পৃথিবীর অন্যতম আর্দ্র স্থল, বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমান ৪৬০ ইঞ্চি (১,২০০ সেমি), এটি মাউন্ট ওয়াইʻআলেʻআলে এর পূর্ব দিকে অবস্থিত। উচ্চ বার্ষিক বৃষ্টিপাত কেন্দ্রীয় পাহাড়ে গভীর উপত্যকায় ক্ষয়সাধন করে, এবং অনেকগুলি মনোরম গিরিখাতের সঙ্গে জলপ্রপাতের সৃষ্টি করে। দ্বীপের পশ্চিম দিকে, ওয়াইমিয়া শহর ওয়াইমিয়া নদীর মুখে অবস্থিত, যার প্রবাহ ওয়াইমিয়া গিরিখাত গঠন করেছিল, বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর গিরিখাতের একটি, যেটি ওয়াইমিয়া ক্যানিয়ন স্টেট পার্ক এর অংশ। ৩,০০০ ফু (৯১৪ মি) গভীরতা নিয়ে, ওয়াইমিয়া গিরিখাত প্রায়ই "প্রশান্ত মহাসাগরের গ্রান্ড ক্যানিয়ন" হিসেবে অ্যাখ্যায়িত হয়। কোকেয়ো পয়েন্ট দ্বীপের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। না পালি কোস্ট বন্য পরিবেশে অবস্থিত একটি বিনোদনমূলক কেন্দ্র, এতে রয়েছে সমুদ্র সৈকত বরাবর কায়াকিং, বা উপকূলীয় ক্লীফ বরাবর হাইকিংয়ের ব্যবস্থা ।[৯] কুয়াহনু পয়েন্ট অন্তরীপ, দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত।

জলবায়ু[সম্পাদনা]

কাউয়াʻইয়ের জলবায়ু গ্রীষ্মপ্রধান, সাধারণত আর্দ্র ও স্থিতিশীল অবস্থা বছর জুড়ে বিরাজ করে, যদিও আবহাওয়া ঘটনা এবং অনিয়মিত ঝড়গুলি চরম আবহাওয়ার ঘটনা ঘটায়। নিম্ন উচ্চতায় (উত্তর-পূর্বাঞ্চল) বায়ুর প্রতিবাতে (বায়ুর দিকে অবস্থিত) তীরে বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমান ৫০ ইঞ্চি, দ্বীপের (দক্ষিণ-পশ্চিম) অনুবাতে (বায়ুপ্রবাহ থেকে সুরক্ষিত দিকে অবস্থান) বৃষ্টিপাতের পরিমান ২০ ইঞ্চির কম। লিহু'ই, দ্বীপের প্রশাসনিক অঞ্চলে, গড় তাপমাত্রা ফেব্রুয়ারিতে ৭৮ °ফা (২৬ °সে) থেকে আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে ৮৫ °ফা (২৯ °সে)। কাউয়াʻইয়ের পাহাড়ী অঞ্চলগুলি শীতল তাপমাত্রা প্রদান করে এবং উষ্ণ উপকূলীয় অঞ্চল একটি সুন্দর বিপরীত আবহাওয়া প্রদান করে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩,২০০–৪,২০০ ফু (৯৮০–১,২৮০ মি)উচ্চতায় কোকিʻই স্টেট পার্কে, জানুয়ারি মাসে দিনের বেলায় গড় তাপমাত্রা ৪৫ °ফা (৭ °সে) এবং জুলাইয়ে ৬৮ °ফা (২০ °সে)। কোকিʻই স্টেট পার্কে শীতকালে তাপমাত্রা ব্যাপক হারে কমে যায় , ১৯৮৬-এ ফেব্রুয়ারি মাসে কানলোহুলুউলুলু মিয়াডোতে অনানুষ্ঠানিকভাবে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ২৯ °ফা (−২ °সে)।

কাউয়াʻইয়ের পাহাড়ী অঞ্চলগুলিতে বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমান ৫০–১০০ ইঞ্চি (১,৩০০–২,৫০০ মিমি)। কোকিʻই স্টেট পার্কের ১০ মা (১৬ কিমি) দক্ষিণ-পূর্বে ৫,০৭৫ ফু (১,৫৪৭ মি) উচ্চতা নিয়ে, মাউন্ট ওয়াইʻআলেʻআলে হচ্ছে বৃষ্টিপাতের কেন্দ্রস্থল।[১০] মাউন্ট ওয়াইʻআলেʻআলে প্রায়ই সাহিত্যে পৃথিবীর সবচেয়ে আর্দ্র স্থান হিসাবে উল্লেখ করা হয়, যদিও এটি বিতর্কিত। ১৯৩১ থেকে ১৯৬০ পর্যন্ত সময়ের তথ্যের উপর ভিত্তি করে গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাত ছিল ৪৬০ ইঞ্চি (১২,০০০ মিমি) (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিবেশগত বিজ্ঞান সেবা প্রশাসন, ১৯৬৮)। ১৯৪৯ থেকে ২০০৪ সালের মধ্যে মাউন্ট ওয়াইʻআলেʻআলে-এ গড় বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমান ছিল ৩৭৪ ইঞ্চি (৯,৫০০ মিমি)।[১১]

কাউয়াʻই কেবল বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাতের পরিমানের ক্ষেত্রেই রেকর্ড করেনি, এটি ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমানের হিসেবেও রেকর্ড করেছে। জানুয়ারি ২৪-২৫, ১৯৫৬-এ একটি ঝড়ের সময়ে, অত্যাধিক বৃষ্টি চলাকালীন সময়ে কাউয়াʻইয়ের সাবেক কিলাউইয়া সুগার প্লান্টেশন কেবল ৬০ মিনিটেই ১২ ইঞ্চি (৩০০ মিমি) বৃষ্টিপাতের রেকর্ড লিপিবদ্ধ করে। এক ঘন্টায় ১২ ইঞ্চি (৩০০ মিমি) বৃষ্টিপাত লিপিবদ্ধ করা ছিল একটি অবমূল্যায়ন, যেহেতু বৃষ্টির পরিমান অত্যধিক, যার ফলে একটি ইঞ্চির হিসাবে একটি ত্রুটি হতে পারে।[১২] ২২ জুন, ১৯৪৭ সালে মিসৌরির বিশ্ব রের্কডের ঘটনায় ৬০ মিনিটের বৃষ্টিপাতে ৪২ মিনিটের মধ্যেই ১২ ইঞ্চি বৃষ্টিপাত হয়।[১৩]

সময় অঞ্চল[সম্পাদনা]

হাওয়াই স্ট্যান্ডার্ড টাইম কাউয়াʻইয়ে সারাবছর পালন করা হয়। যখন বেশিরভাগ রাজ্যেই দিবালোক সংরক্ষণ সময় বিরাজমান, উদাহরণস্বরূপ, কাউয়াʻইয়ের সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম উপকূলের তিনঘন্টা পেছনে এবং পূর্ব উপকূলের ছয়ঘন্টা পেছনে।[১৪]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

পোর্ট এলেনে বাণিজ্যিক এলাকা

পর্যটন হচ্ছে কাউয়াʻইয়ের বৃহত্তম শিল্প। ২০০৭-এ, ১,২৭১,০০০ জন ব্যক্তি কাউয়াʻই ভ্রমন করেছে। মহাদেশীয় দুটি বৃহত্তম দল ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (সকল পর্যটকের ৮৪%) এবং জাপান (৩%)।[১৫] ২০০৩ অনুযায়ী, কাউয়াʻইয়ে প্রায় আনুমানিক ২৭,০০০ চাকরী ছিল , যার মধ্যে সবচেয়ে বড় খাত ছিল বাসস্থান / খাদ্য পরিষেবা (২৬%, ৬,৮০০ চাকরি) এই দ্বারা অনুসারে সরকারি (১৫%) এবং রিটেইল (১৪.৫%), কৃষিতে ২.৯% (৭৮০ চাকরি) এবং শিক্ষাগত সেবা প্রদান ০.৭% (১৮৩ চাকরি)।[১৬] আয়ের ক্ষেত্রে, কাউয়াʻইয়ের আয়ের এক তৃতীয়াংশ পর্যটন শিল্প থেকে আসে।[১৬] কর্মসংস্থান ক্ষুদ্র ব্যবসায় দ্বারা প্রভাবিত হয়, ৮৭% অ-খামার ব্যবসায় ২০ জন এর কম কর্মচারী রয়েছে।[১৬] ২০০৩ অনুযায়ী, কাউয়াʻইয়ের বেকারত্বের হার ছিল ৩.৯%, সমগ্র রাজ্যের জন্য তুলনায় ৩.০% এবং ৫.৭% সম্পূর্ণ হিসাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে। কাউয়াʻইয়ের দারিদ্র্য হার ছিল ১০.৫%, তুলনামূলক ৪৮ রাজ্যের তুলনায় ১০.৭%।[১৬]

২০০৪ সালের মাঝামাঝিতে, একটি একক পরিবারের বাড়ির মধ্যম মূল্য ছিল $৫২৮,০০০, যা ২০০৩ এর চেয়ে ৪০% বৃদ্ধি। ২০০৩ সালের হিসাবে, কাউয়াʻইয়ের বাড়ির মালিকানার শতাংশ ছিল ৪৮%, যা রাজ্যের ৬৪% এর থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে কম, এবং অবকাশের ঘরগুলি রাজ্যব্যাপী শতাংশের চেয়ে হাউজিং স্টকের একটি বড় অংশ ছিল (কাউয়াʻই ১৫%, রাজ্য ৫%)।[১৬] বাসস্থানগুলোর দাম ২০০৮ সালে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পায়। ২০১৪-এর বসন্তের হিসাবে, মধ্যমা মূল্য প্রায় $৪০০,০০০ বেড়ে ছিল।

১৮৩০ থেকে বিংশ শতাব্দীর মধ্য পর্যন্ত, আখ চাষ ছিল কাউয়াʻইয়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শিল্প। ১৮৩৫ সালে কাউয়াʻই-এ প্রথম আখ চাষ শুরু হয়, এবং পরবর্তী শতাব্দীতে এই শিল্প হাওয়াʻই-এর অর্থনীতিতে প্রভাব রাখে।[১৭] এসকল ভূমির অধিকাংশ এখন পশুর লালন পালনের জন্য ব্যবহার করা হয়।[১৫] কাউয়াʻইয়ের একমাত্র অবশিষ্ট চিনি অপারেশন, ১১৮ বছর বয়সী গে ও রবিনসন প্লান্টেশন, আখের ইথানল চাষ এবং প্রক্রিয়াজাতকরণে এটির কার্যক্রম রূপান্তর করার পরিকল্পনা করছে।[১৫]

কাউয়াʻই হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর "বার্কিং স্যান্ডস" প্যাসিফিক মিসাইল রেঞ্জ ফ্যাসিলিটি এর কেন্দ্র, যা সূর্যকরোজ্জ্বল এবং শুষ্ক পশ্চিম তীরে অবস্থিত। এইচএফ ("শর্টওয়েভ") রেডিও স্টেশন ডব্লিউডব্লিউভিএইচ, এবং ফোর্ট কলিন্স, কলোরাডো-এর WWVB বার্কিং স্যান্ডের ৩ মাইল (৫ কিমি) দক্ষিনে কাউয়াইয়ের পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত। ডব্লিউডব্লিউভিএইচ, ডব্লিউডব্লিউভি এবং ডব্লিউডব্লিউভিবি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেকনোলজি কর্তৃক পরিচালিত হয়, এটি জনগণের নিকট আদর্শ সময় এবং ফ্রিকোয়েন্সি তথ্য প্রচার করা।

কাউয়াই এর মার্টি খুবই উর্বর; কৃষকরা ফল ও অন্যান্য ফসলের চাষাবাদ করেন। পেয়ারা, কফি, আখ, আম, কলা, পেঁপে, আভাকাডো, কামরাঙ্গা, কাভা, নোনি এবং আনারস এসবের চাষাবাদ করা এই দ্বীপে।

শহর ও নগর[সম্পাদনা]

লিহুʻ শহরটি, দ্বীপের দক্ষিণ পূর্ব উপকূলে, কাউয়াʻই বিভাগ এর অবস্থান স্থল এবং দ্বীপের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। "কোকোনাট কোস্ট" এর (একটি পুরানো নারকেলেরর বাগান) কাপাʻয়া লিহুʻই এর ৬ মাইল (৯.৭ কিমি) উত্তরে অবস্থিত, এখানে প্রায় ১০,০০০ জনসংখ্যা রয়েছে, বা লিহুʻই থেকে ৫০% বেশি। দ্বীপের উত্তর দিকের প্রিন্সভ্যালি, একসময় কাউয়াʻই এর রাজধানী ছিল।

আনাহোলা উপসাগর
মাউন্ট না মোলোকামা এবং মামালাহোয়ার দৃশ্যসহ হানালেই শহর

কাপায়া নামক ছোট গ্রামটিতে জনসংখ্যা ৯৫০০। নীচের তালিকাটি হাওয়াই রুট ৫৬০ এর উত্তরপথের শেষ থেকে হাওয়াই রুট ৫০ পশ্চিমাঞ্চলের বৃহত্তর বা অধিক উল্লেখযোগ্য তালিকা দেখায়।

পরিবহন[সম্পাদনা]

আকাশ পথ[সম্পাদনা]

দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অবস্থিত, লিহুই বিমানবন্দর হচ্ছে কাউয়াʻই এ বিমানে করে আসার প্রবেশপথ। লিহুʻই বিমান বন্দরের সঙ্গে হনলুলু, কাহুলুই/মায়ুই, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখন্ড, এবং ভ্যাঙ্কুভার, কানাডার সঙ্গে সরাসরি রুট রয়েছে।

মহাসড়ক[সম্পাদনা]

কাউয়াই কাউন্টিতে কিছু মহাসড়ক রয়েছে। এগুলো হল: হাওয়াই রুট ৫০, হাউয়াই রুট ৫৮, হাউয়াই রুট ৫৬০

কাউয়াইয়ের প্রধান সড়ক যেগুলো দ্বীপের অন্য অংশগুলিকে সংযোগ করে এমন অন্য প্রধান সড়কগুলি হল: হাওয়াই রুট ৫৫, হাওয়াই রুট ৫৫০, হাওয়াই রুট 5৩০, হাওয়াই রুট ৫২০, হাওয়াই রুট ৫৭০, হাওয়াই রুট ৫৮০, হাওয়াই রুট ৫৮১, হাওয়াই রুট ৫৮৩

হাওয়াই নৈসর্গিক উপপথ[সম্পাদনা]

  • হোলো হোলো কলোয়া নৈসর্গিক উপপথ, এই নৈসর্গিক পথটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১৯ মাইল (৩১ কিমি) এবং এটি কাউয়াইয়ের অনেক ঐতিহাসিক এবং সাংস্কৃতিক দর্শনীয় স্থান যেমন: মালুহিয়া সড়ক (ট্রি টানেল), পুহি (স্পাউটিং হর্ন), জাতীয় ক্রান্তীয় বোটানিকাল গার্ডেন, এবং সল্ট বেডের সাথে সংযোগ তৈরি করেছে।

গণ পরিবহন[সম্পাদনা]

দ্য কাউয়াʻই বাস হচ্ছে কাউয়াʻই কাউন্টির গণপরিবহন ব্যবস্থা।

আকর্ষনের স্থান[সম্পাদনা]

চিত্র:Wild Hens.jpg
কাউয়াইয়ের লাইডগেইট বীচ পার্কে কিছু বন্য মুরগী

কাউয়াʻই হাজারো বন্য মুরগীর বাসস্থান, যদিও বেজি কাউয়াʻই-এ পরিচিত হয়নি এটি হাওয়াইয়ের অন্যান্য দ্বীপপুঞ্জে বিরাজমান।[১৮][১৯] কাউয়াʻইয়ের মুরগীগুলো মূলত পলিনেশিয়ান ঔপনিবেশিকদের মাধ্যমে এখানে এসেছে, যারা এগুলোকে তাদের খ্যাদ্যের উৎস হিসেবে এনেছিল। তখন থেকে এই মুরগীগুলো ইউরোপীয় মুরগীর জাতের সঙ্গে বেড়ে উঠেছে। ইউরোপীয় মুরগীগুলো প্রজোননকারীদের খামার ও মুরগী লড়াই থেকে মুক্ত থেকেছে।

কাউয়াʻই হেরিটেজ সেন্টার অব হাওয়াʻইয়ান কালচার এন্ড দ্য আর্টস ১৯৯৮-এ প্রতিষ্ঠিত হয়। তাদের লক্ষ্য হাওয়াইয়ান সংস্কৃতির মূল্যায়ন এবং সম্মানের একটি বৃহত্তর অনুভূতি পোষণ করা। তারা হাওয়াইয়ান ভাষাগুলোতে পাঠদান, হুলা, লেই এবং দড়ি তৈরি করা, চন্দ্র পঞ্জিকা এবং উচ্চারন, এবং সাংস্কৃতিক সাইটগুলি ভ্রমণের ব্যবস্থা করে।

কাউয়াইতে অনেকগুলি শেভ বরফের স্থান রয়েছে, যা দ্বীপগুলির একটি ঐতিহ্য।

স্পাউটিং হর্ন: কাউয়াইয়ের দক্ষিণ উপকূল অবস্থিত
ওয়াইমেয়া ক্যানিয়ন এবং ওয়াইফো জলপ্রপাত
A view of the Hanalei Valley in Northern Kauaʻi. The Hanalei River runs through the valley and 60% of Hawaiʻi's taro is grown in its fields.
উত্তরাঞ্চলীয় কাউয়াইয়ের হানালেই ভ্যালীর দৃশ্য। হানালেই নদী উপত্যকা মধ্য দিয়ে প্রবাহিত এবং হাওয়াইয়ের ৬০% কচু এখানকার মাঠে জন্মে
view of the Nā Pali coastline from the ocean. It is part of the Nā Pali Coast State Park which encompasses ৬,১৭৫ একর (২০ কিমি২) of land and is located on the northwest side of Kauaʻii.
সাগর থেকে না পালি উপকূলের দৃশ্য। এটি না পালি কোস্ট স্টেট পার্ক এর অংশ যা ৬,১৭৫ একর (২০ কিমি) ভূমি নিয়ে বিস্তৃত এবং কাউয়াইয়ের উত্তর-পশ্চিম দিকে অবস্থিত।
কালালাউ লুকআউট থেকে কাউয়াইয়ের কালালাউ ভ্যালির দৃশ্য।
কালালাউ লুকআউট থেকে কাউয়াইয়ের কালালাউ ভ্যালির দৃশ্য।

চলচ্চিত্রে[সম্পাদনা]

কাউয়াʻই দ্বীপটি ৭০ এর অধিকবার হলিউড চলচ্চিত্র এবং টেলিভিশন শোতে উপস্থাপিত হয়েছে, এগুলোর মধ্যে রয়েছে গীতিনাট্য সাউথ প্যাসিফিক এবং ডিজনির ২০০২-এর অ্যানিমেটেড ফিচার চলচ্চিত্র লিলো অ্যান্ড স্টিচ এবং এটির ফ্রাঞ্চাইজের তিনটি ধারাবাহিক চলচ্চিত্র (২০০৩-এর স্টিচ! দ্য মুভি, ২০০৫-এর লিলো অ্যান্ড স্টিচ ২: স্টিচ হ্যজ এক গ্লিচ, এবং ২০০৬-এর লেরয় অ্যান্ড স্টিচ) এবং প্রথম টেলিভিশন ধারাবাহিক (লিলো অ্যান্ড স্টিচ: দ্য সিরিজ)। সাউথ প্যাসিফিক চলচ্চিত্রের দৃশ্যসমূহ হানালেই এর আশেপাশে শুট করা হয়েছিল। ওয়াইমায়া ক্যানিয়ন ব্যবহৃত হয়েছিল ১৯৯৩-এর চলচ্চিত্র জুরাসিক পার্ক এবং এটির ২০১৫-এর ধারাবাহিক জুরাসিক ওয়ার্ল্ড এর শুটিংয়ের সময়ে। ২০১৬-এর কমেডি চলচ্চিত্র মাইক এবং ডেভ নিড ওয়েডিং ডেইট এর দৃশ্যও এখানে শুটিং করা হয়েছিল। দ্বীপের কিছু অংশ 'ইন্ডিয়ানা জোনস এর চলচ্চিত্র রাইডার্স অব দ্য লষ্ট আর্কের উদ্বোধনী দৃশ্যের জন্যও ব্যবহৃত হয়েছিল। এখানে চিত্রগ্রহণ করা অন্যান্য চলচ্চিত্রের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত সিক্স ডেস সেখেন নাইটস, ১৯৭৬-সংষ্করন কিং কং[২০] এবং জন ফোর্ডের ১৯৬৩-এর চলচ্চিত্র ডোনোভান'স রিফ। সাম্প্রতিক চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে ট্রপিক থান্ডার এবং বেথানিয়া হ্যামিলটন বায়োপিক চলচ্চিত্র সোল সার্ফার। জনপ্রিয় টেলিভিশন শো M*A*S*H এর উদ্বোধনী ক্রেডিটের একটি দৃশ্য (পাহাড়ের উপর দিয়ে হেলিকপ্টার উড়ে যাওয়ার) দৃশ্য কাউয়াʻই-এ চিত্রগ্রহণ করা হয়েছিল। জাস্ট গো উইথ ইট, জর্জ অব দ্য জঙ্গল এবং পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান এর কিছু দৃশ্য কাউয়াʻই-এ চিত্রগ্রহণ করা হয়েছিল।[২১] এ পারফেক্ট গেটওয়ে চলচ্চিত্রটি কাউয়াʻই-এ শ্যুটিং হয়েছে।

২০০২-এর চলচ্চিত্র ড্রাগনফ্লাই সেখানে চিত্রায়িত হয়েছিল (যদিও মানুষ এবং ভূমি দক্ষিণ আমেরিকান হিসাবে উপস্থাপন করা হয়েছে) এবং প্রযোজক সেখানের স্থানীয় হাওয়াইয়ান জনগনকে নেন (at least three with speaking parts), এখানকার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ করতে,[২২] এই দুটি দ্বীপপুঞ্জের প্রাক-মার্কিন নাম সহ, আতই বা টাওয়াʻই।[২৩][২৪]

এলভিস প্রেসলির দুটি চলচ্চিত্র, ১৯৬২-এর ব্লু হাওয়াই এবং ১৯৬৬-এর প্যারাডাইস, হাওয়াইয়ান স্টাইল, এর প্রধান অংশ কাউয়াই এর বিভিন্ন স্থানে চিত্রায়ন হয়। উভয় চলচ্চিত্রই বিখ্যাত কোকো পাম রিসোর্টে চিত্রগ্রহণ করা হয়। হারিকেন ইনিকি কোকো পাম ধ্বংস করে দেয় এবং এটি পরে কখনো পুনর্নির্মিত হয়নি। কোকো পাম রিসোর্ট এখন পুর্ণনির্মাণাধীন রয়েছে।

২০১১-এর নভেম্বরে মুক্তি পাওয়া আলেকজান্ডার পাইন এর চলচ্চিত্র এবং মূল চরিত্রে জর্জ ক্লুনি অভিনীত দ্য ডিসেন্ডেন্টস চলচ্চিত্রটির গুরুত্বপূর্ণ অংশ কাউয়াʻই-এ চিত্রগ্রহণ করা হয়েছে, যেখানে মুল চরিত্র এবং তারর কাজিনরা তাদের পূর্বপুরুষের জমিগুলো বিক্রয় করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। চলচ্চিত্রটি হাওয়াʻইয়ান লেখক কাউই হার্ট হেমিংসের ২০০৭-এর উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি হয়েছে।

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. The spelling with the ʻokina accent (as "Kauaʻi") indicates syllabic "i" with the respelled pronunciation of "cow-Eye" or "cow-a-ee". Sometimes, an apostrophe or grave is used, as: Kaua'i or Kaua`i.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mokihana"Native Hawaiian PlantsKapiʻolani Community College। ২০০৯-০৩-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৩-০৭ 
  2. "Population estimates, July 1, 2015 US Census Kauai County"। US Census Bureau। জুলাই ১৩, ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Table 5.08 - Land Area of Islands: 2000" (PDF)2004 State of Hawaii Data Book। State of Hawaii। ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৭-২৩ 
  4. Census Tracts 401 through 409, Kauaʻi County United States Census Bureau
  5. "Kauai History"। Hawaiian Tourism Authority। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০৬-১৬ 
  6. Soboleski, Hank (আগস্ট ১০, ২০১৩)। "John Mahiai Kaneakua"। The Garden Island। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জানুয়ারি ২০১৪ 
  7. Pukui, Mary Kawena; Elbert, Samuel H.; Mookini, Esther T. (১৯৭৪)। Place Names of Hawaii। University of Hawaii Press। আইএসবিএন 978-0-8248-0524-1 
  8. "Table 5.11 - Elevations of Major Summits" (PDF)2004 State of Hawaii Data Book। State of Hawaii। ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৭-২৩ 
  9. "Trail Information - Kalalau Trail" 
  10. Henning, D. (1967). Mt. Waialeale. Wetter und Leben (Vienna). 19(5-6), 93-100
  11. USGS,NWIS
  12. Schmidli, R.J. (1983). Weather extremes (NOAA Technical Memorandum NWS WR-28, Revised.) Salt Lake City, UT: NOAA.
  13. National Climatic Data Center
  14. "Discover Kauai"। H&S Publishing, LLC। 
  15. "Kauai Economic Outlook Summary: Tourism Woes Mean No Growth Through 2009"University of Hawaii Economic Research Organization। ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১১-০৫ 
  16. "Kauai Economic Development Plan 2005-2015" (PDF)County of Kauai Office of Economic Development,Kauai Economic Development Board। ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১১-০৫ 
  17. "Kauai Plantation Railway - Kauai Sugar Plantations" 
  18. Kenneth Chang (এপ্রিল ৬, ২০১৫)। "In Hawaii, Chickens Gone Wild"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ৭, ২০১৫Dr. Gering speculated that until recent decades, the Kauaʻi chickens were largely like the ones that the Polynesians brought long ago, living in small parts of the island and modest in number. Then they began mating with the escaped farm chickens or their descendants, with greater fecundity and a wider range of habitats. 
  19. E. Gering; M. Johnsson; P. Willis; T. Getty; D. Wright (মার্চ ৬, ২০১৫)। "Mixed ancestry and admixture in Kauaʻi's feral chickens: invasion of domestic genes into ancient Red Junglefowl reservoirs"। Molecular Ecology24: 2112–2124। doi:10.1111/mec.13096PMID 25655399our data support the hypotheses that (i) Kauaʻi's feral G. gallus descend from recent invasion(s) of domestic chickens into an ancient Red Junglefowl reservoir and (ii) feral chickens exhibit greater phenotypic diversity than candidate source populations. 
  20. "King Kong (1976) Filming Locations" imdb.com
  21. "Kauai Film Locations | GoHawaii.com"www.gohawaii.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৮-০৩ 
  22. এই ভাষা এবং সংস্কৃতির ক্ষতির পটভূমি হচ্ছে: ১৮৯৩-এ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃক হাওয়াʻ নিয়ে নেওয়া।
  23. Current interest in the language and culture.
  24. "Kauai Chiefs to Change to Original Name of Island: Atooi"। UniLang। 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:হাওয়াই

স্থানাঙ্ক: ২২°০৫′ উত্তর ১৫৯°৩০′ পশ্চিম / ২২.০৮৩° উত্তর ১৫৯.৫০০° পশ্চিম / 22.083; -159.500