ওমর হেনরি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ওমর হেনরি
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৪৮)
১৩ নভেম্বর ১৯৯২ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট২ জানুয়ারি ১৯৯৩ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৯)
২ মার্চ ১৯৯২ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ ওডিআই১১ এপ্রিল ১৯৯২ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৩–১৯৭৬ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স এসএসিবি দল
১৯৭৭–১৯৮৪ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স/বি
১৯৮৪–১৯৮৯, ১৯৯৩–১৯৯৪বোল্যান্ড
১৯৮৪–১৯৮৯ইম্পালাস
১৯৮৯–১৯৯২স্কটল্যান্ড
১৯৮৯–১৯৯৩অরেঞ্জ ফ্রি স্টেট
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৩১ ১৫৩
রানের সংখ্যা ৫৩ ২০ ৪৫৬৬ ২২৮২
ব্যাটিং গড় ১৭.৬৬ ১০.০০ ২৭.৩৪ ১২.২১
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ৫/২০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৪ ১১ ১২৫ ৭৩*
বল করেছে ৪২৭ ১৪৯ ২৭,০৬০ ৬,৬৮০
উইকেট ৪৪৩ ১০৫
বোলিং গড় ৬৩.০০ ৬২.৫০ ২৫.১৭ ৩৯.৬৭
ইনিংসে ৫ উইকেট ২২
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ২/৫৬ ১/৩১ ৭/২২ ৩/৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/- ১/- ১২৯/- ৫৬/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ১৯ মে ২০১৮

ওমর হেনরি (ইংরেজি: Omar Henry; জন্ম: ২৩ জানুয়ারি, ১৯৫২) কেপ প্রদেশের স্টেলেনবশ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে ফ্রি স্টেট ও বোল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে ভূমিকা রাখতেন। বামহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিং করতেন তিনি।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৯২ থেকে ১৯৯৩ সময়কালে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে তিনটি টেস্ট ও তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করার সুযোগ হয় তার। ১৩ নভেম্বর, ১৯৯২ তারিখে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে ওমর হেনরি’র। এরফলে ১৯১২ সালে চার্লি লিউইলিনের পর প্রথম অ-শ্বেতাঙ্গ খেলোয়াড় হিসেবে বর্ণবৈষম্যবাদ পরবর্তী যুগে খেলেছেন তিনি।[১]

১৯৯২ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে কেপলার ওয়েসেলসের নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকান দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। ঐ প্রতিযোগিতায় তার দল সেমি-ফাইনালে অবতীর্ণ হয়েছিল। এছাড়াও, স্কটল্যান্ডের পক্ষেও অনেকগুলো খেলায় অংশ নিয়েছেন তিনি।

অবসর[সম্পাদনা]

খেলোয়াড়ী জীবন থেকে অবসর নেয়ার পর জাতীয় দল নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্য মনোনীত হন। এক পর্যায়ে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন ওমর হেনরি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]