আলাপ:সেন্ট পিটার্সবার্গ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

নিচের আলোচনাটি User:Zaheen-এর আলাপ পাতা থেকে অনুলিপি করা হয়েছে।

"সেন্ট পিটার্সবার্গ" প্রসঙ্গে[সম্পাদনা]

ভাইয়া, সেন্ট পিটার্সবার্গ নামটিই স্বাভাবিকভাবে প্রচলিত এবং ব্যবহৃত। দেখলাম আপনি সেন্ট পিটার্সবার্গ নিবন্ধটি সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ-এ স্থানান্তর করেছেন। কিন্তু আগেরটা ঠিক রাখাই মনে হয় ভালো। - রেজওয়ান (আলাপ) ১৭:০০, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (ইউটিসি)

Gnome-edit-redo.svgRezwan Khair: আমি জানি যে সেন্ট পিটার্সবার্গ বহুল প্রচলিত। এরকম আরও অনেক জায়গা আছে যেমন প্যারিস, রোম, ইত্যাদি, যেখানে আমরা সরাসরি ইংরেজি উচ্চারণ থেকে আমাদের বানান তৈরি করেছি। আপনার যুক্তি আমি বুঝতে পারছি। এধরনের বেশির ভাগ নামেই আমরা এখনও হাত দেইনি। আমাদের শুধুমাত্র বিবিসি সিএনএন আর ইংরেজি-কেন্দ্রিক দুর্ভাগ্যজনক বিশ্বচর্চার ফলাফল এটা। কিন্তু এটাও তো স্বীকার করতে হবে যে, জায়গাটার আসল নাম "সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ", এবং আমাদের কাছে রুশ ভাষা থেকে সহজে বাংলা প্রতিবর্ণীকরণ করার নিয়মনীতি হাতের কাছেই বরাদ্দ আছে। বাংলা ভাষার বর্ণমালা দিয়ে রুশ ধ্বনিগুলি সহজে উচ্চারণ করা সম্ভব। পিটার্সবার্গ-এর তুলনায় পিতেরবুর্গ উচ্চারণ করা কঠিন নয়। যদি উচ্চারণে বাধা না থাকে, যদি বাংলা বানান মাত্রাতিরিক্ত বিদঘুটে না লাগে, তাহলে উত্‌স ভাষার শব্দ যথাসম্ভব সেই ভাষার মত প্রতিবর্ণীকরণ করাটাই বেশি যুক্তিযুক্ত নয় কি? যেটা ২০শ শতকে "স্বাভাবিকভাবে প্রচলিত" ও "ব্যবহৃত", তা হয়ত ২১শ শতকে এসে আর স্বাভাবিক না-ও থাকতে পারে। বিদেশী ভাষার সঠিক উচ্চারণের প্রতি সংবেদনশীল বাংলা বানানের সময় কি এখনও আসেনি? ২১শ শতকে উচ্চগতির ইন্টারনেটের যুগে বাস করি আমরা, তথ্যের আদান প্রদান যেখানে তাত্‌ক্ষনিক তাই আমরা এখন সাংক্‌ত পিতেরবুর্গের সঠিক রুশ উচ্চারণও একটা মাউস ক্লিকের মাধ্যমে শুনে যাচাই করতে পারি, উইকিপিডিয়ারই পাতা থেকে। সবকিছুই কি ইংরেজির ফিল্টার হয়ে আসতে হবে? সবসময়ই কি ২০শ শতকে পড়ে থাকতে হবে, যখন ইন্টারনেট ছিল না, বিভিন্ন ভাষার উচ্চারণ বোঝার হাতিয়ার ছিল না, গুটিকয়েক ইংরেজি পড়ুয়া লোকের হাতে আমাদের বিশ্বজ্ঞান জিম্মি ছিল? সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ হচ্ছে রুশ থেকে বাংলার সরাসরি প্রতিবর্ণীকরণ, মাঝখানে কোন ইংরেজির মধ্যস্থতা নেই। এটাই কি নতুন আদর্শ হওয়া উচিত নয়? অর্ণব (আলাপ | অবদান) ০০:২০, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (ইউটিসি)
আরেকটা কথা, সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ কিন্তু আমার নিজস্ব উদ্ভাবন নয়, বহু আগে, চার দশক আগে, ১৯৭০-এর দশকে আমার মতে বাংলাভাষার প্রথম মানসম্মত বিশ্বকোষের যে একটি প্রচেষ্টা, যার নাম ছিল বাংলা বিশ্বকোষ (মুক্তধারা), সেটিতেও এই রকমেরই প্রতিবর্ণীকরণ নীতি অনুসৃত হয়েছিল। সেই বিশ্বকোষ ছিল সময়ের চেয়ে অনেক এগিয়ে। সেখানেও সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ বা এই জাতীয় বানান ব্যবহৃত হয়েছিল। সেই বিশ্বকোষে কাজ করেছিলেন মুনীর চৌধুরীর মত বিখ্যাত বুদ্ধিজীবীরা, যারা আর নেই। হয়ত সেকারণেই এই রীতিটা হারিয়ে গেছে। মাঝখান থেকে আমরা ৪০ বছর পিছিয়ে গেছি। এর পরে কলকাতা থেকেও ১৯৯০র দশকে (?) বিদেশী ভাষার শব্দের যথাযথ প্রতিবর্ণীকরণের উপরে উচ্চমানের বই বেরিয়েছে। সেগুলি সম্বন্ধে সাধারণ মূলধারার পাঠকেরা এখনও ওয়াকিবহাল নন। কিন্তু ইংরেজির গন্ডি থেকে বেরিয়ে এসে এগুলি নিয়ে দুই বাংলাতেই কাজ হয়েছে। বাংলা উইকিপিডিয়াকে আধুনিক হতে হবে না, পুরনো এই অগ্রগামী কাজগুলির মর্ম বুঝতে পারলেও অনেক ভাল হয়। অর্ণব (আলাপ | অবদান) ০০:৩৫, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (ইউটিসি)

নাম পরিবর্তনের অনুরোধ[সম্পাদনা]

আলোচনা না করেই এই রকম একটি অদ্ভুত নামে (হোক তা আসল নাম বা রুশ প্রতিবর্ণীকরণ) কেন শিরোনাম নেয়া হল বুঝতে পারছি না। উইকিপিডিয়ার কাজ কি প্রচলিত শব্দ ব্যবহার করা নাকি প্রচলিত বাদ দিয়ে প্রতিবর্ণীকরণ করে নতুন নতুন শব্দ উদ্ভাবন করা? নীতিমালা অনুসারে কোন দেশের কোন জায়গার আসল নাম কি তা বাংলা উইকিপিডিয়া দেখার বিষয় নয় যদি প্রচলিত বাংলা নাম পাওয়া যায়। এখানেও তা লঙ্ঘন করে একটি অদ্ভুত নাম দেয়া হয়েছে।

রুশ প্রতিবর্ণীকরণ অনুসারে করা হলেও অদ্ভুত নাম বলতে বাধ্য হচ্ছি কারণ এই বানানেও সাথে আমি পরিচিত না, কখনো শুনিনি, কখনো কোথাও দেখিনি। উপরে ইংরেজি নাম ব্যবহার না নিয়ে বিভিন্ন যুক্তি দেখানো হয়েছে এবং আমিও তাঁর সাথে একমত কিন্তু তা প্রচলিত শব্দের ক্ষেত্রে নয়, নতুন অপ্রচলিত শব্দ, বানান গঠনে তা প্রযোজ্য। তাঁর মানে এই নয় সমাজে প্রচলিত বানান পরিবর্তন করতে হবে। উইকিপিডিয়ার কাজ প্রচলিত বানানে ভুল ধরা নয়, প্রচলিত বানান ব্যবহার করা। (যেদিন সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ প্রচলিত হবে সেদিন আমি সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ নামে নেয়ার সমর্থন দিব।)

তাই আমি এটিকে আগের শিরোনাম সেন্ট পিটার্সবার্গ-এ নেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। --আফতাব (আলাপ) ০০:২৮, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)

সেন্ট পিটার্সবার্গ নাকি সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ[সম্পাদনা]

নিচের লেখাগুলি এই নিবন্ধের শিরোনাম নিয়ে উইকিপিডিয়া:আলোচনাসভার আলোচনা থেকে অনুলিপি করা হয়েছে।
সম্প্রতি আলাপ না করে সেন্ট পিটার্সবার্গ নিবন্ধের শিরোনাম সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ করা হয়েছে। আমি আগের নামে ফেরত নেয়ার অনুরোধ করেছি। আলাপ:সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ-এ সবার মতামত কাম্য। --আফতাব (আলাপ) ০০:৩২, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)

  • ইংরেজি উইকিপিডিয়া ইংরেজদের জন্য করা হয়েছে বলেই তারা Bengali লেখে Bangali না। বাংলা উইকিপিডিয়া একইভাবে বাঙালীদের জন্য লেখা হচ্ছে জার্মানদের জন্য নয়। তাই প্রচলিত বানানগুলোকে উচ্চারণজনিত শুদ্ধতার উদ্দেশ্যে অপরিচিত নামে স্থানান্তর এখনো আমার কাছে যুক্তিহীন মনে হয়। ফেরদৌস • ০৫:২২, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)
সবসময়ই প্রচলিত বানানের পক্ষে।--যুদ্ধমন্ত্রী আলাপ ০৬:৩৮, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)
একই সাথে জাহিন ভাইয়ের ও অন্যদের করা অপ্রচলিত সব নিবন্ধের শিরোনাম প্রচলিততে ফিরিয়ে আনার পক্ষে মত দিচ্ছি। জাহিন ভাই প্রথম দিকে যখন উইকিতে সক্রিয় ছিলেন তখনকারও কিছু আলোচনা দেখলাম সেসময়ও প্রায় সবাই প্রচলিত নামই ব্যবহার করার পক্ষে মত দিয়েছিলেন কিন্তু জাহিন ভাই আবারও অপ্রচলিত বানান প্যুশ করছেন বলেই আমি মনে করছি (উদাহরণস্বরুপ, প্রথমদিকে সক্রিয়দের একটি আলোচনা আলাপ:কোপেনহেগেন, এরকম আরও বহু)। তবে, আলাপ:জওহরলাল নেহ্‌রু পাতায় জাহিন ভাইর মন্তব্য দেখে আমার একটু খটকা লাগছে কারণ তিনি ওটাতে লিখেছেন প্রচলিত বানানের কথা ও সে অনুসারে নিবন্ধ স্থানান্তর করে দিয়েছেন। একই সাথে তিনি উচ্চারণের দিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। সবশেষে, উইকিপিডিয়া:নিবন্ধ শিরোনাম (বাংলাটার অনুবাদে সমস্যা থাকলে দয়া করে ইংরেজিটা দেখুন) যে নীতিমালা আছে সেখানে স্পষ্ট করে লেখা আছে, লোকজন যে নামে অভ্যস্থ ও যে নামটি দিয়ে অনুসন্ধানের সম্ভাবনা বেশি এবং যেগুলো প্রচলিত সেগুলোই ব্যবহার করা হবে। এটা নিয়ে প্রতিটি নিবন্ধে শুধু শুধু বাড়তি আলোচনা হচ্ছে এবং একই কাজ বারবার বড়ছে যেখানে একটা নীতিমালাই আছে সেখানে এটি আলোচনার কিছু দেখি না। যদি নীতিমালাতে কোন সমস্যা থাকতো সেক্ষেত্রে আলোচনা হতে পারে কিন্তু নীতিমালা না মানলে বা সম্প্রদায়ের অধিকাংশের মত উপেক্ষা করলে সেক্ষেত্রে সেটাতো আমাদের সমস্যা নয়।--যুদ্ধমন্ত্রী আলাপ ০৭:০১, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)
বিশ্বকোষ সর্বজন পঠিত, তাই এটিকে জটিল রুপ না দিয়ে যতোটা সম্ভব স্বচ্ছ রাখা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে প্রচলিত বানান ব্যবহার স্বভাবতই অধিক প্রাসঙ্গিক। তবে প্রয়োজন সাপেক্ষে মূল বানান নিবন্ধের প্রথম লাইনে বন্ধনিতে রাখা যেতে পারে। একই বিষয় নিয়ে পুনঃআলোচনার অবকাশ না রাখাই ভালো। তাই সাংক্‌ত পিতেরবুর্গ কে সেন্ট পিটার্সবার্গে ফেরত নেয়া হোক। ~ মহীন (আলাপ) ০৮:০২, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)
প্রচলিত নাম ব্যবহারের পক্ষে মত দিচ্ছি। আমাদের যেভাবে উচ্চারণ করতে সুবিধা হয়, আমরা সেভাবেই লিখবো। --মাসুম-আল-হাসান (আলাপ) ১০:৪১, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)
প্রচলিত নাম দেয়ার বিকল্প নাই। কারণ যারা বিষয়টি খুঁজবেন তারা প্রচলিত নাম দিয়েই খুজবেন। এবং ইংরেজি যেসব প্রতিষ্ঠানের নাম যেভাবে আছে সেভাবেই করা উচিত। এসব নামের অনুবাদ করলে সেটা ভিন্ন হয়ে যায়। আমি অবশ্যই প্রচলিত নামের পক্ষে মত দিচ্ছি। --নুরুন্নবী চৌধুরী (হাছিব)আলাপ • ১১:০২, ৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)

নিবন্ধের নামকরণ নিয়ে প্রায়শঃই বিতর্কের মুখোমুখি হতে হয়; বিশেষতঃ ইংরেজীবিষয়ক বিভিন্ন দেশের বানানের ক্ষেত্রে! নীতিমালা অনুযায়ী যা প্রচলিত, তা-ই উইকিতে স্বতঃসিদ্ধ। নাম পরিবর্তনের প্রক্রিয়াটি অনেকাংশেই হাসির খোরাক জোগায়! কিন্তু, বানানজনিত শুদ্ধরূপের অজুহাতে প্রচলিত বানানকে অস্বীকার করা উইকি’র কাজ নয়। সুতরাং, জাহিন ভাইয়ের গণহারে নব্যনামাঙ্কিত নিবন্ধগুলোকে যাচাই-বাছাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হ-উ-ক যা শুরুতেই উনার আলাপ পাতায় ব্যক্ত করেছিলাম! এছাড়াও, অপ্রচলিত নামকরণের ক্ষেত্রেও নিজস্ব মতবাদপ্রথাকে তিরোধান করা প্রয়োজন! কেননা, নিজস্ব চিন্তা-ভাবনা উইকিতে প্রকাশের স্থান নয়; নিশ্চয়ই বিজ্ঞ-অভিজ্ঞ ব্যবহারকারীগণ একমত হবেন এবং আরও সচেতনতা অবলম্বন করে উইকিকে গ্রহণযোগ্যতা ও গতিশীলতার দিকে নিয়ে যাবেন। সবচেয়ে ভালো হতো - সংশ্লিষ্ট নিবন্ধ প্রণেতার ভূমিকা! যেহেতু, তিনি অনুপস্থিত, তাই জটিলতা নিরসনে প্রথমতঃ আলাপ পাতা ও পরবর্তীতে আলোচনা সভায় উল্লেখ করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে। টীকা কিংবা পার্শ্বটীকাসহ আলাপ পাতায় নামকরণের বিষয়ে আলোকপাত করা যায়। এছাড়াও, পুণঃনির্দেশনাতো রয়েছেই!

কার্ল নানেস নিবন্ধটিকে তিনি কার্ল নুনেসে রূপান্তর করেছেন। অথচ ব্যবহারকারী সক্রিয় এবং আলাপ পাতাও বর্তমান। সম্পাদনা সারাংশে লিখলেন - পর্তুগিজ উত্‌স থেকে আগত শব্দের ইংরেজি উচ্চারণ অনুযায়ী সঠিক প্রতিবর্ণীকরণ। এখানে পর্তুগিজ উৎস আসলো কোত্থেকে তা উনি যথাযথভাবে ফুঁটিয়ে তুলেননি! লক্ষ্য করে দেখুন - তৃতীয় পাঞ্চেন লামা নিবন্ধের যথোচিত ও সাধারণ নাম থাকা স্বত্ত্বেও অপরিচিত নামের শিরোনাম রাখা হয়েছে। এটিও কিন্তু এ আলোচনার অংশবিশেষ! আরও রয়েছে ইওসিফ স্তালিন। এজাতীয় আলোচনা রজার ফেদেরারসহ সংরক্ষণাগারে রাখারও ব্যবস্থা করা হউক! - Suvray (আলাপ) ০৪:৩৬, ৯ মে ২০১৭ (ইউটিসি)

শিরনাম পরিবর্তন করা প্রসঙ্গে[সম্পাদনা]

বানান বা প্রচলিত উচ্চারণ ভুল হলেও মেনে নিতে হবে কেন - সেটিই আমার মাথায় আসে না, কোন যৌক্তিকতাও খুজে পাই না। বিশ্বকোষ ব্যবহার করা হয় সঠিক তথ্য জানার জন্য - ভুল তথ্য শেখার জন্য নয়। প্রতিটি নিবন্ধ সঠিক বানান ও উচ্চারণে স্থানান্তর করে নিবন্ধের ভূমিকাংশে একটি লাইনে প্রচলিত বানান ও উচ্চারণে এটিকে _ _ _ বলে নির্দেশ করা হয় - এতটুকু কথা যোগ করে দেয়াই যথেষ্ট বলে আমি মনে করি; এবং এর ফলে তথ্য খুজে পেতে কোন সমস্যা হতেও আমি দেখিনি - সকল সার্চ ইঞ্জিনেও এভাবে লিখলেই তথ্যটি আসে, উইকিতেতো বটেই! সমস্য হলো - আমরা ধরেই নিচ্ছি যে, উইকি হলো গণতন্ত্র প্রয়োগের স্থল; পক্ষে - বিপক্ষে ভোটাভুটির দ্বারা এখানে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যৌক্তিকতাকে পাশ কাটিয়ে! সবচেয়ে বড় কথা হলো, সরকারিভাবে ব্যবহৃত (ওয়েব সাইটগুলোর) বানানকে পর্যন্ত এখানে অবলীলায় পাশ কাটানো হয় নিজের অযৌক্তিক সিন্ধান্তকে বহাল রাখতে গিয়ে (উদাহরণ হিসাবে 'বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন'এ থেকে স্থানের নাম ব্যবহার করা পরও কেউ কেউ সেই বানান সরিয়ে নিজেদের খেয়াল খুশি মতো নিবন্ধ সরিয়ে নেন!)। এবং, আরেকটি বিষয়কে আমি অতীব জরুরী মনে করি - ইংরেজিকে অনুসরণ না-করা। সবকিছুতেই আমাদের এইধরণের অভিরুচী খুবই দৃষ্টিকটু। ইংরেজরা আমাদের প্রভু নয় - তাদের নির্দেশনা মানতে আমরা বাধ্য নই - তাহলে কেন নিবন্ধের নাম তাদেরটা দেখে দেখে লিখতে হবে? '২০১২ ঢাকা অগ্নিকান্ড' সম্পর্কে সাধারণ দেশবাসী আগ্রহী? না-কি, 'তাজরিন অগ্নিকান্ড' বললে সবাই বুঝবে? অন্ধ অনুকরণ-অনুসরণ করা একধরণের হীনমন্যতা। বাঙালি ও বাংলা ভাষা তেমনটি নয়, তবুও কেন এধরণের পরনির্ভরতা ও অন্ধ-অনুকরণ? ধন্যবাদান্তেঃ Ashiq Shawon (আলাপ) ০৯:২৪, ১৮ মে ২০১৭ (ইউটিসি)