আলাপ:জাবালোপনিষদ্‌

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভালো নিবন্ধ জাবালোপনিষদ্‌ দর্শন ও ধর্ম বিষয়ক ভালো নিবন্ধের মানদণ্ড অনুসারে একটি ভালো নিবন্ধ হিসেবে চিহ্নিত। আপনি যদি নিবন্ধটির আরো উন্নয়ন করতে সমর্থ হন, তবে অনুগ্রহপূর্বক তা করুন। আপনি যদি মনে করেন যে নিবন্ধটিতে মানদণ্ড অনুসৃত হয়নি তাহলে এটির পুনঃপর্যালোচনা আহবান করতে পারেন।
মে ২৫, ২০১৬ প্রস্তাবিত ভাল নিবন্ধ তালিকাভুক্ত

ভালো নিবন্ধের পর্যালোচনা[সম্পাদনা]

এই পর্যালোচনা আলাপ:জাবালোপনিষদ্‌/ভালো নিবন্ধ১ থেকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই অনুচ্ছেদের সম্পাদনা লিঙ্ক পর্যালোচনায় মন্তব্য যোগ করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

পর্যালোচক: Bodhisattwa (আলাপ · অবদান) ১৩:০৩, ২৪ মে ২০১৬ (ইউটিসি)

পরিবর্তন প্রয়োজন[সম্পাদনা]

অত্যন্ত সুলিখিত তথ্য সমৃদ্ধ নিবন্ধ সন্দেহ নেই। দুই একটি জায়গায় পরিবর্তন প্রয়োজন।

  • পাদটীকাগুলির ক্ষেত্রে ইংরেজিতে note শব্দটি রয়েছে, সেইটি বাংলা করা দরকার। এজন্য, {{Refn|group=note| এর পরিবর্তে{{Refn|group=পাদটীকা| করা দরকার। একই সাথে পাদটীকা অনুচ্ছেদে {{reflist|group=note}} এর পরিবর্তে {{reflist|group=পাদটীকা}} করলেই হবে।
    • YesY - করা হয়েছে।
  • আমার যতদূর পড়ে মনে হল, ১, ২ ও ৪ নং পাদটীকা কোন উদ্ধৃতি নয়, সেক্ষেত্রে সেগুলিকে বাংলায় অনুবাদ করা প্রয়োজন।
    • YesY - করা হয়েছে। অন্যান্য পাদটীকাগুলিও একটু দেখে নিতে হবে।
  • পবিত্র শহর বারাণসী অনুচ্ছেদে লেখা পড়ে মনে হচ্ছে ‘বরণা’ শব্দের দুটি অর্থ ১) ‘এইখানে ইন্দ্রিয়ের ভ্রান্তিগুলি দূর হয়’ (‘বর্যতি’) এবং ২) ‘ইন্দ্রিয়ের প্রভাবে সৃষ্ট পাপগুলি বিনষ্ট হয়’ (‘নাশ্যতি’)। যা ভ্রান্তি তৈরি করছে। বরণা শব্দটি শুধুমাত্র ১) নং এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, ২) এর ক্ষেত্রে নয়।
    • YesY - করা হয়েছে। ২ নং কথাটি 'অসি' শব্দের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। 'বরণা' শব্দের ক্ষেত্রে নয়। --Jonoikobangali (আলাপ) ০৯:৫৯, ২৫ মে ২০১৬ (ইউটিসি)

আমার মনে হয়, এই পরিবর্তনগুলি করলে, এই নিবন্ধকে ভালো নিবন্ধ হিসেবে উন্নীত করা যায়। -- বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ১৬:০২, ২৪ মে ২০১৬ (ইউটিসি)

পর্যালোচনা[সম্পাদনা]


  1. সুলিখিত
    ক) গদ্য:
    খ) রচনাশৈলী সহ বিন্যাস, তালিকা ইত্যাদি:
    উত্তীর্ণ
  2. তথ্যগতভাবে নির্ভুল এবং যাচাইযোগ্য
    ক) তথ্যসূত্র:
    খ)নির্ভরযোগ্য উৎস থেকে উদ্ধৃতি করা হয়েছে:
    গ) মৌলিক গবেষণা:
    ঘ) তথ্যসূত্র হালনাগাদ করা হয়েছে:
    উত্তীর্ণ
  3. নিবন্ধের ব্যাপকতা বা ব্যপ্তি রয়েছে
    ক) প্রধান বিষয়:
    খ) মূল বিষয়েই নিবন্ধ আছে কিনা:
    উত্তীর্ণ
  4. নিরপেক্ষভাবে লিখিত
    পক্ষপাত ব্যতীত তুল্যমূল্য উপস্থাপনা:
    উত্তীর্ণ
  5. স্থিতিশীল
    কোনো সম্পাদনা যুদ্ধ বা পরিবর্তনশীল হচ্ছে কিনা:
    উত্তীর্ণ
  6. যথাযথ স্থানে বর্ণনাসহ চিত্র ব্যবহৃত হয়েছে।
    ক) সকল মুক্ত ছবি আছে কিনা বা কোনো সৌজন্যমূলক ছবি থাকলে তা ঠিক বর্ননা করা আছে কিনা:
    খ) ছবিতে ছবির উপযোগী বর্ণনা আছে কিনা:
    উত্তীর্ণ
  1. সিদ্ধান্ত:
    উত্তীর্ণ:

প্রধান পাতার জন্য অনুচ্ছেদ[সম্পাদনা]

জাবালোপনিষদ্‌ গ্রন্থের প্রধান আলোচ্য বিষয় হল হিন্দুধর্মের সন্ন্যাস সংক্রান্ত ধারণাটি।

জাবালোপনিষদ্‌ হল হিন্দুধর্মের একটি অপ্রধান উপনিষদ্‌। এই গ্রন্থটি সংস্কৃত ভাষায় রচিত ও শুক্লযজুর্বেদ গ্রন্থের সম্পর্কযুক্ত অন্যতম সন্ন্যাস উপনিষদ্‌। জাবালোপনিষদ্‌ ৩০০ খ্রিস্টাব্দেরও আগে রচিত হয়। এই গ্রন্থে সাংসারিক জীবন পরিত্যাগ করে আধ্যাত্মিক জ্ঞান অনুসন্ধানের বিষয়টি আলোচিত হয়েছে। এতে হিন্দুদের পবিত্র তীর্থ বারাণসী (অধুনা ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে অবস্থিত) নগরীটিকে একটি আধ্যাত্মিক পরিভাষায় (‘অভিমুক্তম্‌’) বর্ণনা করা হয়েছে। এছাড়া এই গ্রন্থে বলা হয়েছে যে, মানুষের অন্তরে নিহিত আত্মাই পবিত্রতম স্থানের মর্যাদা পাওয়ার যোগ্য। (বাকি অংশ পড়ুন...)

 করা হয়েছে -- বোধিসত্ত্ব (আলাপ) ১৪:৩৯, ২৬ মে ২০১৬ (ইউটিসি)