আবিদ আজাদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আবিদ আজাদ
জন্ম(১৯৫২-১১-১৬)১৬ নভেম্বর ১৯৫২
মৃত্যু২২ মার্চ ২০০৫(2005-03-22) (বয়স ৫২)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
জাতিসত্তাবাঙালি
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
যে জন্য পরিচিতআধুনিক বাংলা কবি

আবিদ আজাদ আধুনিক বাংলা কবি। তিনি বাংলাদেশের কবিতার ইতিহাসে সত্তর দশকের সঙ্গে চিহ্নিত।

কবি জীবন[সম্পাদনা]

১৯৫২ সালের ১৬ নভেম্বর কিশোরগঞ্জের চিকনিরচরে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। সত্তরের কালপর্বে কবিতার ভুবনে আবিদ আজাদের (১৯৫২-২০০৫) আবির্ভাব। প্রথম কাব্যগ্রন্থ ঘাসের ঘটনা (১৯৭৬) প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই তরুণতম কবি হিসেবে পাঠক ও বোদ্ধা মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সমর্থ হন। ষাটের দশকের সংগ্রাম, সংঘাত, আন্দোলন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ সত্তরের কবিদের মানস গঠনে ক্রিয়াশীল ছিল।[১] তিনি সাহিত্যের কাগজ ‘শিল্পতরু’র সম্পাদক ছিলেন।

প্রকাশিত গ্রন্থাদি[সম্পাদনা]

তাঁর প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের নাম ঘাসের ঘটনা। এটি ১৯৭৬ সালে প্রকাশিত হয়। বনতরুদের মর্ম তাঁর ২য় কাব্যগ্রন্থ, এটি প্রকাশিত হয় ১৯৭৮ খ্রিষ্টাব্দে।

  • ‘শীতের রচনাবলি’ (১৯৮৩)
  • আমার স্বপ্নের আগ্নেয়াস্ত্রগুলি’ (১৯৮৭)
  • ছন্দের বাড়ি ও অন্যান্য কবিতা’ (১৯৮৭)
  • তোমাদের উঠোনে কি বৃষ্টি নামে? রেলগাড়ি থামে?’ (১৯৮৮)
  • আমার কবিতা’ (১৯৮৯)
  • আরো বেশি গভীর কুয়াশার দিকে’ (১৯৯৩)
  • আমার অমতার গল্প’ (১৯৯৮)
  • খেলনাযুগ ও অন্য একুশটি কবিতা’ (২০০০)

এছাড়াও তাঁর আরো কিছু বই রয়েছে।

পুরস্কার ও সন্মাননা[সম্পাদনা]

তিনি তার কবিতার জন্য বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৬), শহীদ জিয়া স্মৃতি পুরস্কার (১৯৮৩), আমি তুমি ও সে পুরস্কার (১৯৮৪), চারণ সাহিত্য পুরস্কার (১৯৮৬), আবুল হাসান স্মৃতি পুরস্কার (১৯৮৯), মাইকেল মধুসূদন একাডেমি পুরস্কার (১৯৯৪, পশ্চিমবঙ্গ) লাভ করেন।[২] ২০১৮ সালে মরণোত্তর সা’দত আলি আখন্দ সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

তিনি ২০০৫ সালের ২২ মার্চ ৫২ বছর বয়সে ঢাকার শমরিতা হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "আবিদ আজাদের কবিতা"। ২২ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  2. "কবি আবিদ আজাদের মৃত্যুবার্ষিকী আজ"যুগান্তর। ২২ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ 

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]