খোন্দকার আশরাফ হোসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
খোন্দকার আশরাফ হোসেন
Portrait of a man standing in font of bookshelf
হোসেন
জন্ম (১৯৫০-০১-০৪)৪ জানুয়ারি ১৯৫০
জয়নগর, জামালপুর, ঢাকা, পূর্ব পাকিস্তান (now বাংলাদেশ)
মৃত্যু ১৬ জুন ২০১৩(২০১৩-০৬-১৬) (৬৩ বছর)
ঢাকা, বাংলাদেশ
মৃত্যুর কারণ Heart attack
সমাধি ঢাকা
জাতীয়তা বাংলাদেশী
শিক্ষা
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
পেশা
  • কবি
  • essayist
  • translator
  • সম্পাদক
  • অধ্যাপক
কার্যকাল ১৯৫০-২০১৩
পুরস্কার আলাওল সাহিত্য পুরস্কার
লিটল ম্যাগাজিন লাইব্রেরি ও গবেষণা কেন্দ্র পুরস্কার
জীবনানন্দ পুরস্কার

খোন্দকার আশরাফ হোসেন (জানুয়ারি ৪, ১৯৫০ - জুন ১৬, ২০১৩) ছিলেন বাংলাদেশী উত্তরাধুনিক[১] কবি, গদ্যকার, সাহিত্য সমালোচক, সম্পাদক, অনুবাদক, এবং অধ্যাপক। তার প্রকাশিত গ্রন্ধের সংখ্যা প্রায় ত্রিশ।[২][৩]

জন্ম, শৈশব ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

খোন্দকার আশরাফ হোসেনের জন্ম ১৯৫০ সালের ৪ জানুয়ারি জামালপুরের জয়নগরে। ১৯৬৫ সালে তিনি ভাটারা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মানবিক বিভাগে মাধ্যমিক শেষ করেন। উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন জামালপুরের সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে। হোসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৭০ সালে স্নাতক এবং পরবর্তী বছর ১৯৭১ সালে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন ইংরেজি বিষয়ে। পরবর্তীতে যুক্তরাজ্যের লিডস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভাষাতত্ত্ব ও ধ্বনিতত্ত্ব বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা এবং ১৯৮১ সালে ভাষাতত্ত্ব বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

হোসেন ২০১২ সালে।

হোসেন ১৯৭৩ সাল থেকে ২০১৩ সালে মৃত্যুর পূর্বাবধি পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগে চার দশককাল অধ্যাপক হিসাবে কর্মরত ছিলেন। তিনি ছিলেন একজন মেধাবী গবেষক ও সাহিত্য সমলোচক। ২০১৩ খ্রিস্টাব্দে অকালীন মৃত্যুর পূর্বপর্যন্ত তিনি ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়-এর উপাচার্য হিসাবে নিযুক্ত ছিলেন।[৫][৬] তিনি ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।[৭] তিনি ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট ও ফ্যাকাল্টি নির্বাচন কমিটির সদস্য ছিলেন।[৫]

সাহিত্যধারা[সম্পাদনা]

সমুজ্জল সুবাতাস সাহিত্য পত্রিকার দেড় যুগপূর্তী অনুষ্ঠানে সম্মাননা গ্রহণ করছেন খোন্দকার আশরাফ হোসেন।

আশির দশকের মাঝামাঝিভাগে - ১৯৮৪ খ্রিস্টাব্দে - তিন রমনীর ক্বাসিদা শিরোনামীয় কাব্যগ্রন্থের মাধ্যমে বাংলা আধুনিক কবিতার জগতে আত্মপ্রকাশ করেন। তাঁর অন্যান্য কাব্যগ্রন্থসমূহের মধ্যে রয়েছে ১৯৮৬ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত পার্থ তোমার তীব্র তীর, ১৯৮৯-এ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত জীবনের সমান চুমুক, ১৯৯১-এ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত সুন্দরী ও ঘৃণার ঘুঙুর, ১৯৯৫-এ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত নির্বাচিত কবিতা, ১৯৯৮ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত যমুনাপর্ব এবং ২০০১ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত জন্মবাউল। তার প্রকাশিত প্রবন্ধগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ১৯৯৫-এ প্রকাশিত বাংলাদেশের কবিতা অন্তরঙ্গ অবলোকন, ২০১০-এ প্রকাশিত কবিতার অন্তর্যামী: আধুনিক উত্তর আধুনিক ও অন্যান্য প্রসঙ্গ এবং ২০১২ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত "রবীন্দ্রনাথ ইয়েটস গীতাঞ্জলি"। ২০১৩-তে প্রকাশিত হয় তাঁর সর্বশেষ প্রবন্ধগ্রন্থ "বাঙালির দ্বিধা ও রবীন্দ্রনাথ এবং বিবিধ তত্ততালাশ"। [৮] তিনি অনুবাদ করেছেন পাউল সেলানের কবিতা

একবিংশ সাহিত্য পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক হিসাবে তিনি সুখ্যাতি লাভ করেন। সাহিত্যকর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি "আলাওল সাহিত্য পুরস্কার", "জীবনানন্দ পুরস্কার", এবং "পশ্চিমবঙ্গ লিটল ম্যাগাজিন পুরস্কার" লাভ করেন।

অনুবাদকর্ম[সম্পাদনা]

হোসেন বাংলা থেকে ইংরেজি ভাষায় এবং জার্মান ও ইংরেজি থেকে বাংলা ভাষায় অনুবাদের কাজ করেছেন। তার রচিত কবিতাও ইংরেজি, জার্মান, ফরাসি, তেলুগু এবং হিন্দি ভাষায় and অনুদিত হয়েছে।[৯]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

হোসেন হার্ট অ্যাট্যাক পরবর্তী চিকিৎসাকালীন সময়ে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে ২০১৩ সালের ১৬ জুন রোববার সকালে ৬৩ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।[১][১০][১১][১২]

গ্রন্থতালিকা[সম্পাদনা]

প্রকাশিত গ্রন্থসংখ্যা[সম্পাদনা]

খোন্দকার আশরাফ হোসেন গ্রন্থতালিকা
মুক্তি
কবিতা
অনুবাদ ১০
প্রবন্ধ
সম্পাদিত কাগজ

কবিতা[সম্পাদনা]

কাব্যসংকলন[সম্পাদনা]

প্রবন্ধ[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশের কবিতা: অন্তরঙ্গ অবলোকন (বাংলা একাডেমি)
  • চিরায়ত পুরাণ (ফ্রেন্ডস বুক কর্নার)
  • বিশ্বকবিতার সোনালি শাশ্ব (আগামী প্রকাশনী)
  • রোমান্টিক ও আধুনিক কবিতার অক্ষ-দ্রাঘিমা (নিউ এজ)
  • কবিতার অন্তর্জামী (নান্দনিক)
  • আধুনিক উত্তআধুনিক ও অন্যান্য
  • প্রসঙ্গ (Bangla Poetry in the contexts of Modernism, postmodernism and other trends)
  • Modernism and Beyond: Western Influences on Bangladesh poetry (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়)

অনুবাদ[সম্পাদনা]

  • টেরি ঈগলটন/সাহিত্যতত্ত্ব (মূল: Terry Eagleton’s Literary Theory: An Introduction, নিউ এজ)
  • সফোক্লিসের রাজা ঈদিপাস (মূল: Sophocles’ King Oedipus, Euripides’ Alcestis, Medea, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র)
  • ইউরিপিডিসের আলসেস্টিস (বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র)
  • ইউরিপিডিসের মিডিআ (বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র)
  • পাউল সেলানের নির্বাচিত কবিতা (জার্মান-বাংলা, বাংলা একাডেমি)
  • ডেভিড অ্যাবারক্রম্বির সাধারণ ধ্বনিতত্ত্ব (মূল: Elements of General Phonetics by David Abercrombie, বাংলা একাডেমি)
  • Folk Poems from Bangladesh (from Bangla into English)
  • Folk Tales from Bangladesh (from Bangla into English)
  • Edith Hamilton’s Mythology (into Bangla)
  • Oedipus Rex by Sophocles

শিশুতোষ[সম্পাদনা]

  • ওরা হারিয়ে যাচ্ছে (টইটম্বুর)

সম্পাদনা[সম্পাদনা]

  • The Dhaka University Studies (Journal of the Faculty of Arts), Editor
  • একবিংশ (লিটল ম্যগাজিন)
  • সিলেকটেড পয়েমস অব নির্মলেন্দু গুণ[১৩]
  • The Bangla Academy English-Bangla Dictionary (Co-edited, with a note on pronunciation)
  • An English Anthology (Co-edited, published by Department of English, Dhaka University)

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Zaynul Abedin (মার্চ ৮, ২০১৫)। "Khondakar Ashraf Hossain"The Daily Star। Dhaka। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ৮, ২০১৮ 
  2. Ahmed, Mohiuddin (২০০২)। Six Seasons Review (vol. 2, Number 3&4)University Press Limitedআইএসবিএন 978-984-05-1652-0 
  3. "Anti-India forces involved in mutiny: Bangladesh author"The Times of India। ১৪ মার্চ ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১০ 
  4. বাংলা একাডেমি লেখক অভিধান, পৃষ্ঠা ১২৭
  5. "Professor Dr. Khondakar Ashraf Hossain"bracu.ac.bdBRACU। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ৮, ২০১৮ 
  6. "New VC at JKKNIU"The Independent। Dhaka। ৭ মে ২০১৩। ২০ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১৩ 
  7. কবি খোন্দকার আশরাফ হোসেন আর নেই
  8. কবি ও শিক্ষাবিদ খোন্দকার আশরাফ হোসেন আর নেই
  9. "খোন্দকার আশরাফ হোসেন"The University Press Limited। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-১৭ 
  10. "Khondakar Ashraf no more"। bdnews24.com। ৪ জানুয়ারি ১৯৫০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-১৭ 
  11. "Prof. Ashraf Hossain passes away"The Independent। Dhaka। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-১৭ 
  12. "Khondakar Ashraf no more"। bdnews24.com। ৪ জানুয়ারি ১৯৫০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-১৭ 
  13. www.rokomari.com/book/4131;jsessionid=90EAA7FAC04B0A99462FFC88E307F2BE

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]