আজহার খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আজহার খান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমোহাম্মদ আজহার খান
জন্ম (1955-09-07) ৭ সেপ্টেম্বর ১৯৫৫ (বয়স ৬৫)
গুজরানওয়ালা, পাঞ্জাব, পাকিস্তান
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার, রেফারি
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৮৪)
১৮ মার্চ ১৯৮০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৫৯
রানের সংখ্যা ১৪ ৭৭৩৩
ব্যাটিং গড় ১৪.০০ ৩৭.৫৩
১০০/৫০ -/- ১৬/৪২
সর্বোচ্চ রান ১৪ ২০৯*
বল করেছে ১৮ ৭৫২৮
উইকেট ১২২
বোলিং গড় ২.০০ ২৫.৬২
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/১ ৬/৩৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১১১/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৮ অক্টোবর ২০২০

মোহাম্মদ আজহার খান (উর্দু: اظہر خان‎‎; জন্ম: ৭ সেপ্টেম্বর, ১৯৫৫) পাঞ্জাবের গুজরানওয়ালা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক পাকিস্তানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও রেফারি। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮০ সালে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে পাকিস্তানের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর পাকিস্তানি ক্রিকেটে হাবিব ব্যাংক লিমিটেড, লাহোর, পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স, পাকিস্তান ইউনিভার্সিটিজ ও পাঞ্জাব দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন আজহার খান

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৭১-৭২ মৌসুম থেকে ১৯৯৩-৯৪ মৌসুম পর্যন্ত আজহার খানের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। দক্ষ অফ স্পিন অল-রাউন্ডার ছিলেন আজহার খান। তবে, দীর্ঘ ২২ বছরের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে কেবলমাত্র একবারই আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন।

১৯৭২ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন আজহার খান।[১] তন্মধ্যে, ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে পাকিস্তান ইউনিভার্সিটিজের সদস্যরূপে বাহাওয়ালপুরের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ অপরাজিত ২০৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।[২] এক বছর পর আবারো বাহাওয়ালপুরের বিপক্ষে ২০৩ রান তুলেন। এ পর্যায়ে তিনি লাহোর এ দলের পক্ষে খেলেছিলেন।[৩]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন আজহার খান। ১৮ মার্চ, ১৯৮০ তারিখে লাহোরে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি। তাকে কোন ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

১৯৭৯-৮০ মৌসুমে লাহোরে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতে নামেন। নয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৪ রান সংগ্রহ করেন। এরপর উভয় ইনিংসেই দলের পঞ্চম পরিবর্তিত বোলার হিসেবে বোলিং করার সুযোগ পান। প্রথম ইনিংসে দুই ওভার (২-১-১-০) ও দ্বিতীয় ইনিংসে এক ওভার (১-০-১-১) করেছিলেন। অ্যালান বর্ডারের উইকেটটি জাভেদ মিয়াঁদাদ স্ট্যাম্পিং করেছিলেন ১৫৩ রান থাকাকালীন।

অবসর[সম্পাদনা]

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচ রেফারির ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন তিনি।[৪]

ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত ৫০-ঊর্ধ্ব ক্রিকেট বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলের সদস্য ছিলেন।[৫][৬] তবে, প্রতিযোগিতার তৃতীয় রাউন্ড চলাকালীন বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ায় বাতিল হয়ে যায়।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "First-Class Matches played by Azhar Khan"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  2. "Pakistan Universities v Bahawalpur 1974-75"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  3. "Lahore A v Bahawalpur 1975-76"CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  4. "Azhar Khan"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৩ 
  5. "2020 over-50s world cup squads"Over-50s Cricket World Cup। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২০ 
  6. "Over-50s Cricket World Cup, 2019/20 - Pakistan Over-50s: Batting and bowling averages"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২০ 
  7. "Over-50s World Cup in South Africa cancelled due to COVID-19 outbreak"Cricket World। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]